• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • 4 YEARS OLD APPEALS FATHER DURING TERRORIST ENCOUNTER IN SOPIAN DD

Terrorist Encounter: ৪ বছরের শিশু পুত্রের মর্মান্তিক আর্তি, ‘‘বাবা বেরিয়ে এস, এরা কিছু করবে না’’

Terrorist Encounter-Photo - News18 English

অত্যন্ত মর্মস্পর্শী ভিডিও এখন ভাইরাল৷

  • Share this:

    #শোপিয়ান :  জম্মু -কাশ্মীরে (Jammu-Kashmir) শোপিয়ানে (Shopian) সুরক্ষাকর্মীরা (Security Forces)  জঙ্গিদের ওপর হামলা চালাল৷ এই ঘটনার একটি ভাইরাল ভিডিও  (Viral Video)  তৈরি হয়ে গেছে৷ এই ভিডিওতে একটি চার বছরের শিশু নিজের ‘জঙ্গি’ বাবাকে ঘর থেকে বেরিয়ে আত্মসমর্পণ করার আহ্বান জানাচ্ছে৷ তাঁর আবেদন অত্যন্ত মর্মস্পর্শী৷ শিশুটির সঙ্গে তাঁর মা-ও রয়েছেন৷ তিনিও নিজের স্বামীকে লাগাতার আত্মসমর্পণের আবেদন করছেন৷ কিন্তু মা ও ছেলের সমস্ত চেষ্টাই ব্যর্থ হচ্ছে কারণ তাঁর বাকি উগ্রপন্থী সহযোগীরা কেউ তাঁকে বাইরে বেরিয়ে এসে আত্মসমপর্ণ করার কোনও সুযোগ দিচ্ছে না৷

    ২৫ বছরের আকিব আহমেদ মলিক প্রায় মাস তিনেক আগে আতঙ্কবাদী দলে নিজের নাম লেখান৷ শোপিয়ানে সদ্য সদ্য হওয়া সুরক্ষা আধিকারকিদের একটি তল্লাশিতে তাঁদের আত্মসমর্পণ করার সুযোগ দেওয়া হয়৷ মালিক যে ঘরে ছিলেন সে ঘরে তাঁর সঙ্গে আরও সহযোগিরা ছিলেন৷ সেখানেই জওয়ানরা তাঁর স্ত্রা ও ছেলেকে নিয়ে পৌঁছয়৷ তাঁরা বারবার সেই ব্যক্তিকে ঘর থেকে বেরিয়ে এসে সারেন্ডার করার আবেদন করতে থাকে৷ ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে শিশুটি লাগাতার তার বাবাকে আবেদন করছে বাইরে বেরিয়ে আসতে আর তার সঙ্গে সে এটাও বলছে যে যাঁরা বাইরে আছেন তাঁরা বাবার কোনও ক্ষতি করবে না৷ সে বলছিল, 'बाहर आ जाओ, वे आपको नुकसान नहीं पहुंचाएंगे. बाहर आ जाओ, मैं आपको याद कर रहा हूं.'- অর্থাৎ ‘‘বাইরে চলে এস, এরা তোমার কোনও ক্ষতি করবে না৷ বাইরে এসো, আমার তোমার কথা মনে পড়ছে৷ ’’

    সেনা সূত্রে খবর মালিক বাইরে এসে আত্মসমর্পণ করতে চাইছিল কিন্তু তার সহযোগী আতঙ্কবাদীরা তাঁকে বেরিয়ে আসতে দেয়নি৷ সেনা আধিকারিকরা মেজর জেনারেল রশিম বালী বলে, ‘প্রথমে ওঁর স্ত্রী তাঁকে আত্মসমর্পণ করার আবেদন করেন, এরপরে তার ছেলেও তাঁকে বাইরে বেরিয়ে আসতে বলে৷ তারা নিজের বাবাকে বেরিয়ে আসতে বলে৷ আকিবও বাইরে আসতে চাইছিলেন৷ তাঁর সঙ্গীরা তাঁকে আসতে দিতে চায়নি৷ ও যদি বেরিয়ে আসত তাহলে ওকে আমরা বাঁচাতে পারতাম৷ ’

    স্থানীয় মানুষদের মতে ২০ ডিসেম্বর থেকে সে গায়েব হয়ে গিয়েছিল৷ আতঙ্কবাদীদের দলে সামিল হওয়ার আগে তিনি একটি ব্যাঙ্কে চাকরি করতেন৷ সেনা জানিয়েছে এনকাউন্টার স্থল থেকে একটি রাইফেল ও তিনটি পিস্তল পাওয়া গেছে৷ এই এনকাউন্টারে দুটি ঘর শেষ হয়ে গেল৷ গত সপ্তাহে এনকাউন্টারে ৭ টি ঘর শেষ হয়ে গেল৷ ২ জন আতঙ্কবাদী মারা যায়৷

    Published by:Debalina Datta
    First published: