Monsoon Sickness: বর্ষাকালে সুস্থ থাকতে মানতেই হবে এই নিয়মগুলি

বর্ষায় বাড়তি সতর্কতা অবলম্বন করা দরকার

রিমঝিম বর্ষার (Monsoon) শোভা দেখতে ভাল লাগলেও এই সময়ে সর্দি, জ্বর ইত্যাদির প্রকোপও বেড়ে যায়।

  • Share this:

রিমঝিম বর্ষার (Monsoon) শোভা দেখতে ভাল লাগলেও এই সময়ে সর্দি, জ্বর ইত্যাদির প্রকোপও বেড়ে যায়। গ্রীষ্মের প্রচণ্ড দাবদাহ থেকে মুক্তি দেয় বর্ষা। কিন্তু এই সময়ে আর্দ্রতা বেশি থাকায় সক্রিয় হয়ে ওঠে জীবাণুরা। চিন্তার বিষয় হল এই জীবাণুরা ফেলে দেওয়া খাবার বা ভেজা জামাকাপড় যে কোনও জায়গায় জন্মাতে পারে। তাই এই সময় কিছু বাড়তি সতর্কতা অবলম্বন করা দরকার।

বৃষ্টিতে ভিজবেন না

বৃষ্টিতে ভিজলে সেই জল থেকে ত্বকে চুলকানি বা ছত্রাক সংক্রমণ হতে পারে। তাই বৃষ্টির জল এড়িয়ে চলাই ভাল। যদি বৃষ্টির জল গায়ে পড়ে তাহলে গরম জলে স্নান করে নিতে হবে। যে জামা কাপড় ভিজে গিয়েছে সেটাও ভাল করে কেচে নিতে হবে।

বারবার হাত ধুতে হবে

শরীরের মধ্যে বেশিরভাগ জীবাণু প্রবেশ করে হাতের মাধ্যমে। হাতের নখেও জীবাণু লুকিয়ে থাকে। তাই বারবার করে এই সময় হাত ধুতে হবে, যাতে কোনও রকম জীবাণু হাতে লেগে না থাকে। খেয়াল রাখতে হবে যাতে নোংরা হাত চোখ, মুখ বা নাকে না যায়। কারণ এতে জীবাণু সংক্রমণের আশঙ্কা বেড়ে যেতে পারে।

ডায়েট নিয়ে যত্নশীল হতে হবে

বাইরের খাবার থেকেও জীবাণু আসতে পারে। তাই এই সময় বাইরের খাবার যতটা সম্ভব এড়িয়ে চলাই ভাল। বেশি তেল মশলা দেওয়া খাবার ছেড়ে এই ঋতুতে সহজপাচ্য খাবার খেতে হবে। এতে পেটের সমস্যা কম হবে। চেষ্টা করতে হবে গরম ও তাজা খাবার খেতে।

ফোটানো জল পান করতে হবে

বাড়িতে আরও পিউরিফায়ার থাকলে চিন্তার কিছু নেই। যদি না থাকে তাহলে জল ফুটিয়ে খেতে হবে। বাইরে বার হলে নিজের জলের বোতল সঙ্গে নিতে হবে। নাহলে সংক্রমিত জল থেকে ডায়রিয়া হতে পারে।

কোথাও যেন জল না জমে

খেয়াল রাখতে হবে কোথাও যেন জল জমে না থাকে। কুলার ব্যবহার করলে সেটার জলও নিয়মিত পাল্টে ফেলতে হবে। জমা জলে মশার লার্ভা জন্মায়। বর্ষাকালে মশাবাহিত রোগ যেমন ডেঙ্গু, ম্যালেরিয়া, চিকুনগুনিয়া হতে পারে।

Published by:Arpita Roy Chowdhury
First published: