Home /News /life-style /
Health tips : তরমুজ খাওয়ার পর জল খান? শরীরের কোন মারাত্মক ক্ষতি করছেন জানেন?

Health tips : তরমুজ খাওয়ার পর জল খান? শরীরের কোন মারাত্মক ক্ষতি করছেন জানেন?

Watermelon

Watermelon

Health tips : কিছু নিয়ম মেনে ফল খেলে তবেই এর সম্পূর্ণ গুনাগুণ আত্মস্থ করা সম্ভব।

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: গরমে ত্রাহি ত্রাহি রব। প্রতিদিনই রোদের তাপ আরও একটু বাড়ছে। অথচ বৃষ্টির দেখা নেই। এর পরিস্থিতিতে শরীরকে হাইড্রেটেড রাখতে তরমুজের মতো ভালো ফল আর কিছু নেই। এটা একই সঙ্গে শরীরে জলের ঘাটতি মেটায়। পাশাপাশি প্রয়োজনীয় পুষ্টিও যোগায়। কিন্তু ফল খাবার কিছু নিয়ম আছে। অনেকেই তা মানেন না। এতে ফলের পুষ্টিগুণ পুরোমাত্রায় পাওয়া যায় না। তাই কিছু নিয়ম মেনে ফল খেলে তবেই এর সম্পূর্ণগুনাগুণ আত্মস্থ করা সম্ভব।

    খাওয়ার পর জল নয়: বাড়ির বড়রা বলে থাকেন, তরমুজ খাওয়ার পর জল খাওয়া উচিত নয়। এটা কি সত্যি ক্ষতিকারক? তরমুজে প্রচুর পরিমাণে লাইকোপেন থাকে। এটা একটা ক্যারোটিনয়েড। এর জন্য তরমুজ লাল। একই সঙ্গে এটা অ্যান্টিঅক্সিডেন্টও। এর অনেক স্বাস্থ্য উপকারিতা রয়েছে। ক্যারোটিনয়েড শরীরের ফ্রি র‍্যাডিক্যালগুলোকে বের করে দেয়। একই সঙ্গে কোষের ক্ষতি প্রতিরোধ করে। এই সুস্বাদু ফলে থায়ামিন, রাইবোফ্লাভিন, নিয়াসিন, ভিটামিন বি-6, ফোলেট, প্যান্টোথেনিক অ্যাসিড, ম্যাগনেসিয়াম, ফসফরাস, পটাসিয়াম, জিঙ্ক, কপার, ম্যাঙ্গানিজ, সেলেনিয়াম, কোলিন এবং বিটেইন রয়েছে।

    আয়ুর্বেদ যা বলছে: তরমুজে এমনিতেই প্রচুর পরিমাণে জল রয়েছে। এর উপর বেশি জল খেলে পেট ফুলে যেতে পারে। এমনকী পাকস্থলীতে উপস্থিত হজম রস দ্রবীভূত হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। আয়ুর্বেদ অনুযায়ী, এর ফলে হজম প্রক্রিয়া ব্যাহত হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। এমনকী শরীর চক্রের ভারসাম্য পর্যন্ত বিপর্যস্ত হতে পারে। বমি, ডিহাইড্রেশন, অধিকমাত্রায় প্রস্রাব হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

    আরও পড়ুন- একটি চামচ মুখে রাখুন! গন্ধ আর রং বলে দেবে কোন রোগ শরীরে বাসা বেঁধেছে

    তরমুজ খেয়ে জল না খাওয়ার আরেকটি কারণ হল যে তরমুজে ৯২ শতাংশ জল থাকে, ৬ শতাংশ থাকে শর্করা বা চিনি। ফলে তরমুজ খেলে এমনি পেট ভারি হয়ে যায়। তার ওপর জল খেলে পেট আরও ভারি হয়ে যায়। ফলে বমি, ডায়ারিয়া পর্যন্ত হতে পারে। তরমুজের পর জল খেলে শরীরে থাকা ইলেকট্রল আনব্যালেন্সড হয়ে যায়। এর ফলে শরীরের কোষ শুকিয়ে যেতে পারে।

    নির্দিষ্ট পরিমাণ পি এইচ মাত্রার প্রয়োজন হয় আমাদের শরীরে। যা হজমের জন্য প্রয়োজন। যেসব ফল রসালো অর্থাৎ ফলের মধ্যে জল উপস্থিত তা খেয়ে জল খেলে পি এইচ মাত্রা কমে যায়। ফলে হজমের সমস্যা দেখা দেয়। খাবার হজম না হলে শরীরে টক্সিন জমতে থাকে যা একদম ভালো নয়।

    উপসংহার: এর পিছনে কোনও বৈজ্ঞানিক প্রমাণ না থাকলেও তরমুজ খাওয়ার পর জল না খাওয়াই ভালো। বিশেষ করে যাদের পেটের সমস্যা রয়েছে তাঁদের ৪০ থেকে ৪৫ মিনিট পর জল খেতে বলা হয়। সুস্থ থাকার জন্য, তরমুজ খাওয়ার কমপক্ষে ২০-৩০ মিনিট পরে জল পান করতে হবে। খুব তৃষ্ণার্ত বোধ করলে এক বা দুই চুমুক জল পান করা যায়, কিন্তু পুরো পুরো এক গ্লাস কখনওই নয়।

    Published by:Swaralipi Dasgupta
    First published:

    Tags: Watermelon

    পরবর্তী খবর