West Bengal Weather Update: উত্তরে ঢুকল বর্ষা, দক্ষিণবঙ্গে কবে প্রবেশ? আজ জেলায়-জেলায় বৃষ্টির সম্ভাবনা

এসে গেল বর্ষা

West Bengal Weather Update: এদিন কলকাতা-সহ দক্ষিণবঙ্গের বিভিন্ন জেলায় বজ্রবিদ্যুৎ-সহ বৃষ্টির পূর্বাভাস জারি করেছে আলিপুর আবহাওয়া দফতর।

  • Share this:

    কলকাতা: অপেক্ষার অবসান ঘটেছে বাংলায়। নির্দিষ্ট সময়ের একদিন আগেই, রবিবার পশ্চিমবঙ্গে প্রবেশ করেছে বর্ষা। রবিবার উত্তরবঙ্গের ৬ জেলায় বর্ষা ঢুকেছে বলে জানিয়েছে মৌসম ভবন। পূর্বাভাস বলছে, কয়েক দিনের মধ্যেই দক্ষিণবঙ্গেও ঢুকে পড়বে বর্ষা। যদিও দক্ষিণবঙ্গের মারাত্মক গরম থেকে কিছুটা স্বস্তি মিলতে পারে সপ্তাহের প্রথম দিনই। কারণ এদিনও কলকাতা-সহ দক্ষিণবঙ্গের বিভিন্ন জেলায় বজ্রবিদ্যুৎ-সহ বৃষ্টির পূর্বাভাস জারি করেছে আলিপুর আবহাওয়া দফতর।

    সোমবার দুই ২৪ পরগনা, দুই মেদিনীপুর, কলকাতা, হাওড়া, পুরুলিয়া, ঝাড়গ্রাম, বীরভূম, নদিয়া, মুর্শিদাবাদ, হুগলি ও দুই বর্ধমানে বজ্রবিদ্যুৎ-সহ বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। বর্ষা ঢুকে যাওয়ায় স্বাভাবিক কারণেই আলিপুরদুয়ার, কালিম্পং, দুই দিনাজপুর, মালদা, দার্জিলিং, জলপাইগুড়ি ও কোচবিহারের মধ্যে কোথাও বজ্রবিদ্যুৎ-সহ বৃষ্টি হতে পারে। কোথাও আবার ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনাও রয়েছে

    আলিপুর আবহাওয়া দফতর জানাচ্ছে, সোমবার বৃষ্টির সম্ভাবনার কারণেই কলকাতার আকাশ আংশিক মেঘলা থাকবে। সপ্তাহ শুরুর দিন কলকাতার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা থাকতে পারে ৩৮ ডিগ্রি সেলসিয়াসের আশেপাশে। আর সর্বনিম্ন তাপমাত্রা থাকতে পারে ২৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস মতো। গত ২৪ ঘণ্টায় কলকাতায় বৃষ্টি হয়েছে ০০২.১ মিমি।

    ইতিমধ্যেই মৌসম ভবন থেকে জানানো হয়েছে, রবিবার উত্তরবঙ্গের ৫ জেলা দার্জিলিং, জলপাইগুড়ি, কোচবিহার, কালিম্পং ও আলিপুরদুয়ারে সম্পূর্ণভাবে প্রবেশ করেছে বর্ষা। উত্তর দিনাজপুরের একাংশেও প্রবেশ করেছে বর্ষা। উত্তর পূর্ব ভারতের ৭ রাজ্যেও ঢুকে পড়েছে বর্ষা, প্রবেশ করেছে বাংলাদেশের একাংশেও। বর্ষা ঢুকতেই তরাই ডুয়ার্সের একাশে বিক্ষিপ্ত বৃষ্টি শুরু হয়েছে। বৃষ্টি হচ্ছে বাংলাদেশেও।

    প্রসঙ্গত, সাধারণত ৭ জুন উত্তরবঙ্গে প্রবেশ করে বর্ষা। কিন্তু এবার একদিন আগেই সেখানে প্রবেশ করেছে মৌসুমি বায়ু। কয়েক দিনের মধ্যে দক্ষিণবঙ্গেও মৌসুমি বায়ুর আগমন ঘটতে চলেছে বলে পূর্বাভাস। এবারের বর্ষায় স্বাভাবিক বৃষ্টির পূর্বাভাসও দিয়েছেন আবহাওয়াবিদরা।

    Published by:Suman Biswas
    First published: