Twitter Trend on Mamata Banerjee: ট্যুইটারে তুমুল ট্রেন্ডিং ‘ভারত মমতাদিকে চায়'! নতুন সমীকরণের বার্তা?

নতুন সমীকরণের ইঙ্গিত ট্যুইটারে ছবি : ট্যুইটার

#ইন্ডিয়াওয়ান্টসমমতাদি ট্রেন্ডিং এ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা থেকেই উত্তাল হয় সোশ্যাল মিডিয়া মাধ্যম ট্যুইটারের ময়দান। #IndiaWantsMamataDi, অর্থাৎ ভারত মমতা দিদিকে চাইছে বলে ট্রেন্ড হচ্ছে টুইটারে (Twitter Trending)।

  • Share this:

    #কলকাতা : বাংলার বিধানসভা নির্বাচনে (West Bengal Election 2021) শাসক দল তৃণমূলের (Trinamul Congress) স্লোগান ছিল ‘বাংলা নিজের মেয়েকে চায়'। এবার সেই স্লোগানকেও ছাপিয়ে গেল ট্যুইটারের ট্রেন্ডিং (Twitter Trending)। #ইন্ডিয়াওয়ান্টসমমতাদি ট্রেন্ডিং এ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা থেকেই উত্তাল হয় সোশ্যাল মিডিয়া মাধ্যম ট্যুইটারের ময়দান। #IndiaWantsMamataDi, অর্থাৎ ভারত মমতা দিদিকে চাইছে বলে ট্রেন্ড হচ্ছে টুইটারে (Twitter Trending)। রাজনৈতিক মহলের মতে বিজেপি এবং নরেন্দ্র মোদিকে সরিয়ে আগামী নির্বাচনে নতুন সরকার গঠনে কংগ্রেস না, একমাত্র মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ই নেতৃত্ব দিতে পারেন এমনই বিশ্বাস জন্মেছে নেটিজেনদের একাংশের মতে।

    প্রসঙ্গত, ৩৪ বছরের সিপিএম শাসন শেষ করে ২০১১ সালে প্রথমবার ক্ষমতায় এসেছিল তৃণমূল কংগ্রেস। দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের লড়াকু মনোভাব বাংলা সহ গোটা ভারতের রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বদের বেশ পছন্দের। একদা বাম শাসনকে হারানো নেত্রীকে নিয়েই বাংলা দখলের পর ভারত দখলের স্বপ্ন দেখছে তৃণমূলের কর্মী-সমর্থকরা। অন্যদিকে জাতীয় স্তরেও ইঙ্গিত মিলেছে। আগামী লোকসভা নির্বাচনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে মুখ করেই লড়তে চাইছে বিজেপি বিরোধী দলগুলির একাংশ।

    প্রসঙ্গত একুশের নির্বাচন যে দ্বিমুখী লড়াই হতে চলেছিল সেটা আভাস পাওয়া গিয়েছিল অনেক আগেই। আর এই দ্বিমুখী লড়াই ছিল মূলত তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির মধ্যে। আর এই কারণে বিজেপি এই রাজ্যে কোনও মুখ নিয়ে নামেনি। বিজেপি একুশের নির্বাচনে বরাবরই প্রধানমন্ত্রীকে মুখ করেই ভোট চেয়েছে। তবে তা তৃণমূল নেত্রীর জনপ্রিয়তাকে ছাপিয়ে যেতে পারেনি। যদিও গতবারের বিধানসভার তুলনায় এবার ৭৪টি আসন বেশি পেয়েছে বিজেপি। তবুও গেরুয়া শিবির তৃণমূলের কোনও ক্ষতিই করতে পারেনি, বরং বিপুল ভোটে জিতে সরকার গঠন করেছে মমতার ঘাসফুল শিবির।

    নির্বাচন চলাকালীনই তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দেশে অপশাসন এবং অগণতান্ত্রিক পরিস্থিতি তৈরি করার অভিযোগ তুলেছিলেন। সেই সময় তিনি কংগ্রেসের সভাপতি সোনিয়া গান্ধী সহ দেশের তাবড় নেতাদের এক হয়ে বিজেপির বিরুদ্ধে লড়ার আহ্বান জানিয়েছিলেন। অন্যদিকে, একুশের নির্বাচনে শিবসেনা, আরজেডি, এনসিপি, সমাজবাদী পার্টি সহ অনেকেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রতি আস্থা দেখিয়ে তৃণমূল কংগ্রেসের পাশে দাঁড়াতে আহ্বান জানিয়েছিল রাজ্যবাসীকে।

    এখন প্রশ্ন উঠছে, চব্বিশের লোকসভা নির্বাচনেও কি একই জোট দেখা যাবে অবিজেপি দলগুলোর মধ্যে? যদিও এর আগে উনিশের লোকসভা নির্বাচনেও অবিজেপি দলগুলো নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বাধীন বিজেপির বিরুদ্ধে এক হওয়ার চেষ্টা করে। আরও বেশি শক্তিশালী হয়ে সরকার গঠন করা মমতাই কি লোকসভা নির্বাচনে আশা দেখাচ্ছে বিজেপি বিরোধী জোটকে? আর সেই বার্তায় কি দিচ্ছে ট্যুইটারের আগাম ট্রেন্ডিং? উত্তর মিলবে আগামী দিনে।

    Published by:Sanjukta Sarkar
    First published: