Swine Flu: একই উপসর্গ, করোনার মোড়কে ফাঁকি দিচ্ছে সোয়াইন ফ্লু! শহরে আক্রান্ত ১৯

প্রতীকী ছবি৷

করোনার (Corobavirus) বাড়বাড়ন্তের মধ্যেই বর্ষা শুরু হতে না হতেই কলকাতায় হানা দিয়েছে সোয়াইন ফ্লু (Swine Flu)৷

  • Share this:

#কলকাতা: জ্বর, সর্দি, কাশি, গলা ব্যথা- করোনার সব উপসর্গই থাকছে৷ কিন্তু পরীক্ষা করালে রিপোর্ট আসছে নেগেটিভ৷ রোগী ম্যালেরিয়ায় আক্রান্ত ভেবে সেই পরীক্ষাও করাতে দিচ্ছেন বহু চিকিৎসক৷ কিন্তু বাস্তবে দেখা যাচ্ছে রোগী আক্রান্ত হয়েছেন সোয়াইন ফ্লু-তে৷

করোনার বাড়বাড়ন্তের মধ্যেই বর্ষা শুরু হতে না হতেই কলকাতায় হানা দিয়েছে সোয়াইন ফ্লু৷ গত কয়েকদিনে ইতিমধ্যেই কলকাতার ১৯ জন বাসিন্দা সোয়াইন ফ্লুতে আক্রান্ত হয়ে শহরের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন৷ স্বস্তির খবর, তাঁদের মধ্যে ১৩ জন সুস্থও হয়ে উঠেছেন৷ সোয়াইন ফ্লু আক্রান্তের সংখ্যা ঊর্ধ্বমুখী হওয়ায় পরিস্থিতির দিকে নজর রাখছে রাজ্য স্বাস্থ্য দফতরও৷ সাধারণত বর্ষার শুরু থেকে পুজো পর্যন্ত সোয়াইন ফ্লু-র সংক্রমণের ভয় থাকে৷

স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে খবর, কলকাতায় যে ১৯ জন এখনও পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন, তাঁদের মধ্যে চারজন খিদিরপুর মেটিয়াবুরুজ এলাকার বাসিন্দা ৷ তিনজন বেহালার বাসিন্দা, গড়িয়াহাট এলাকার দু' জন, যাদবপুরের দুই বাসিন্দা, তিন জন কসবার, তিনজন কাঁকুড়গাছি এলাকার এবং দু' জন সল্টলেকের বাসিন্দা৷ তবে এখনও পর্যন্ত কোনও ক্ষেত্রেই সোয়াইন ফ্লু মারাত্মক রূপ নেয়নি৷

যদিও চিকিৎসকরা করোনার মতোই সোয়াইন ফ্লু নিয়েও সতর্ক থাকার পরামর্শ দিচ্ছেন৷ কারণ সোয়াইন ফ্লু অত্যন্ত সংক্রমক৷ ফলে বাড়িতে একজন আক্রান্ত হলে বাকি সদস্যদেরও আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা খুবই বেশি৷ বেহালার নারায়ণ মেমোরিয়াল হাসপাতালের ক্রিটিকাল কেয়ার বিশেষজ্ঞ ধ্রুব ভট্টাচার্য বলেন, 'রোগীদের মতো সোয়াই ফ্লু নিয়েও অত্যন্ত সতর্ক থাকা উচিত৷ উপসর্গ থাকা সত্ত্বেও করোনার ফল নেগেটিভ এলে অনেক ক্ষেত্রেই চিকিৎসকরা স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলেন৷ কিন্তু দেখা যায়, সেই রোগী হয়তো সোয়াইন ফ্লু-তে আক্রান্ত হয়েছেন৷ ফলে চিকিৎসকদেরও সচেতন হতে হবে৷' জ্বর, সর্দি, গলা ব্যথা, কফের সঙ্গে শুকনো কাশি, মাথা ব্যথার পাশাপাশি মাংস পেশিতে ব্যথা, ডায়েরিয়াও সোয়াইন ফ্লু-র উপসর্গ হতে পারে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা৷ ফলে করোনার সব উপসর্গের সঙ্গে সোয়াইন ফ্লু-র মিল রয়েছে৷ এই ধরনের উপসর্গ তিন দিনের বেশি থাকলেই প্রথমে করোনা পরীক্ষা করার পরামর্শ দিয়েছেন চিকিৎসক ধ্রুব ভট্টাচার্য৷ করোনা পরীক্ষার ফল নেগেটিভ আসা সত্ত্বেও উপসর্গগুলি স্থায়ী হলে সোয়াইন ফ্লু নির্ণয়ে প্রয়োজনীয় পরীক্ষা করিয়ে নেওয়ারও পরামর্শ দিয়েছেন তিনি৷

সূত্রের খবর, গোটা পরিস্থিতির উপরে নজর রাখছে রাজ্য স্বাস্থ্য দফতর৷ খুব শিগগিরই সোয়াইন ফ্লু নিয়েও বিশেষজ্ঞদের মতামত সহ গাইডলাইন প্রকাশ করা হতে পারে৷

কয়েক বছর আগে কলকাতায় মারাত্মক আকার নিয়েছিল সোয়াইন ফ্লু৷ বেলেঘাটা আইডি-তে উপচে পড়েছিল রোগী৷ যদিও গত দু'- তিন বছরে সেভাবে কলকাতায় সোয়াইন ফ্লু আক্রান্তের খোঁজ মেলেনি৷ ফলে এখন থেকেই সতর্ক হওয়ার পরামর্শ দিচ্ছেন চিকিৎসকরা৷

Avijit Chanda

Published by:Debamoy Ghosh
First published: