কলকাতা

corona virus btn
corona virus btn
Loading

কেন তৃণমূল ছাড়লেন? খোলা চিঠিতে বিস্ফোরক শুভেন্দু

কেন তৃণমূল ছাড়লেন? খোলা চিঠিতে বিস্ফোরক শুভেন্দু
রাজ্য মন্ত্রিসভার তিনটি দফতরের মন্ত্রী ছিলেন শুভেন্দু৷ পরিবহণ দফতর ছাড়াও সেচ ও জলসম্পদ উন্নয়ন দফতরের মন্ত্রী ছিলেন শুভেন্দু অধিকারী৷ এ দিন নিজের লেখা চিঠিতে অবশ্য তিনি দাবি করেছেন, অনেক চেষ্টা করেও গত দশ বছরে তৃণমূলে পরিবর্তন আনতে পারেননি তিনি৷
  • Share this:

#কলকাতা: বিজেপি-তে যোগ দেওয়ার ঠিক আগেই তৃণমূল কংগ্রেস কর্মীদের উদ্দেশে খোলা চিঠি লিখলেন শুভেন্দু অধিকারী৷ চিঠিতে শুভেন্দু লিখেছেন, 'তৃণমূলে পচন ধরেছে৷ গত ১০ বছরে দলে কোনও পরিবর্তন হয়নি৷' শুভেন্দু বিস্ফোরক অভিযোগ করেছেন, ব্যক্তি স্বার্থেই এখন তৃণমূল চলছে{

জানা গিয়েছে, পুরোন দলের কর্মী এবং সাধারণ মানুষের উদ্দেশে ইংরেজিতে ৪ পাতার চিঠি লিখেছেন শুভেন্দু৷ কেন তিনি তৃণমূল ছাড়লেন, তা স্পষ্ট করার জন্যও এই চিঠি লিখেছেন শুভেন্দু৷ চিঠিতে শুভেন্দু আরও অভিযোগ করেছেন, তিনি চেষ্টা করেও গত দশ বছরে দলে পরিবর্তন আনতে পারেননি৷ উন্নতি করতে পারেননি৷ দলের প্রতিষ্ঠাতা সদস্যরাই এখন তৃণমূলে কোণঠাসা বলেও চিঠিতে অভিযোগ করেছেন শুভেন্দু অধিকারী৷

খোলা চিঠিতে একের পর এক বিস্ফোরক অভিযোগ করেছেন শুভেন্দু৷ তাঁর অভিযোগ, তৃণমূল সরকার আর মানুষের জন্য কাজ করছে না৷ দল ব্যক্তি স্বার্থে চলছে৷ এমন কি, ভোট কুশলী প্রশান্ত কিশোরের নাম না করেও তাঁর নিযুক্তি নিয়ে চিঠিতে প্রশ্ন তুলেছেন শুভেন্দু৷ অভিযোগ করেছেন, এই ধরনের বহিরাগত পেশাদারদের বাস্তব পরিস্থিতি এবং তৃণমূল কর্মীদের স্বার্থত্যাগ নিয়ে কোনও ধারণাই নেই৷

শুভেন্দু চিঠিতে দাবি করেছেন, তাঁর কাছে আর অন্য কোনও পথ খোলা ছিল না৷ বলা ভাল, এই চিঠির মাধ্যমেই তৃণমূল কর্মীদের বিজেপি-তে যোগদানের বার্তা দিয়েছেন৷ শুধু তাই নয়, আগামী নির্বাচনে নির্বাচন কমিশন যথাযথ ভূমিকা পালন করবে এবং সত্যের জয় হবে বলেও চিঠির শেষ পাতায় লিখেছেন শুভেন্দু৷

এ দিনই বিজেপি-তে যোগ দিচ্ছেন শুভেন্দু৷ মেদিনীপুরে অমিত শাহের সভায় তিনিই প্রথম বক্তা৷ সেই সভা থেকেও শুভেন্দু মুখ খুলতে পারেন বলে অনুমান করা হচ্ছে৷ গত বৃহস্পতিবার দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে চিঠি লিখে দলের সদস্যপদ ছেড়েছিলেন শুভেন্দু৷ যদিও সেই চিঠিতে দল ছাড়ার কোনও কারণ লেখেননি তিনি৷

Kamalika Sen Gupta

Published by: Debamoy Ghosh
First published: December 25, 2020, 12:24 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर