গ্রামের পড়ুয়ারা পড়াশুনায় মনোযোগী, শহুরেরা ব্যস্ত ফেসবুকে ! রেজাল্ট তার প্রমাণ: পার্থ চট্টোপাধ্যায়

গ্রামের পড়ুয়ারা পড়াশুনায় মনোযোগী, শহুরেরা ব্যস্ত ফেসবুকে ! রেজাল্ট তার প্রমাণ: পার্থ চট্টোপাধ্যায়

শহরের ছাত্রছাত্রীদের তুলনায় গ্রামের ছাত্রছাত্রীরা রেজাল্ট ভাল করে। তার কারণ গ্রামের ছাত্রছাত্রীরা পড়াশোনায় মনোযোগী।

  • Share this:

UJJAL ROY

#কলকাতা: শহরের ছাত্রছাত্রীদের তুলনায় গ্রামের ছাত্রছাত্রীরা রেজাল্ট ভাল করে। তার কারণ গ্রামের ছাত্রছাত্রীরা পড়াশোনায় মনোযোগী। আর শহরের ছাত্রছাত্রীরা ফেসবুকে বেশি সময় নষ্ট করে। রবিবার আলিপুরে ওয়েবকুপার কর্মসূচিতে এই তথ্য তুলে ধরেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। তিনি বলেন, "বিনোদন থাকা ভাল কিন্তু তার মধ্যে নিয়ন্ত্রণ থাকা প্রয়োজন"

ব্যস্ততম জীবনে অভ্যস্ত শহরবাসী। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই বাবা মা দুজনকেই চাকরি করতে হয়। ফলে ছাত্রছাত্রীদের দিকে অনেক সময়েই নজর দেওয়ার সুযোগ থাকে না তাঁদের। শিক্ষামন্ত্রী জানান, এই রকম পরিস্থিতিতে অফিস থেকে ফিরে অভিভাবকরা ছাত্রছাত্রীদের পড়াশোনার কথা জিজ্ঞেস করেন বটে কিন্তু আদপে তাঁরা সঠিক ভাবেই সেই কাজ করেন কিনা তাও দেখার সুযোগ থাকে না

শুধুমাত্র ফেসবুক নয়। ইন্টারনেটে সামাজিক মাধ্যমের গ্রামের তুলনায় শহরের মানুষই বেশি করে। বিশেষ করে বর্তমান প্রজন্মের কাছে এটি অনেক বেশি জনপ্রিয়। এর জন্য আরেকভাবে দায়ী ছাত্রছাত্রীদের একাকিত্ব। অবিভাবকরা কাছে না থাকায় ছাত্রছাত্রীরা সময় কাটানোর জন্য সামাজিক মাধ্যমের উপরেই বেশি নির্ভরশীল হয়ে পড়ছে। তার প্রভাব পড়ছে পড়াশোনাতে। অন্যদিকে যে কোনও কারণেই হোক গ্রামের দিকে সেই বিনোদনের সুযোগ তুলনামূলক কম। তাই গ্রামের ছেলেমেয়েরা এখনও পর্যন্ত পড়াশোনার দিকেই বেশি মনযোগী। শেষ কয়েকবছরে মাধ্যমিক উচ্চমাধ্যমিক-সহ সব প্রতিযোগিতা মূলক পরীক্ষাতেই কলকাতার তুলনায় জেলার ছাত্রছাত্রীদের অনেকটাই ভাল ফল তারই প্রমাণ বলে মনে করে ওয়াকিবহল মহল। এদিন শিক্ষামন্ত্রী সেই ব্যাখাই তুলে ধরেছেন বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল ৷

First published: 10:58:49 PM Dec 22, 2019
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर