ফিল্ম ফেস্টিভ্যালের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে নেই রুদ্রনীল, বাড়ল গেরুয়া যোগের জল্পনা

ফিল্ম ফেস্টিভ্যালের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে নেই রুদ্রনীল, বাড়ল গেরুয়া যোগের জল্পনা
রুদ্রনীল ঘোষ৷

  • Share this:

#কলকাতা: শুক্রবারই রাজ্যের শাসক দলের সমালোচনায় সরব হয়েছিলেন৷ বিজেপি-তে যোগদানের জল্পনাও বাড়িয়েছেন৷ তার চব্বিশ ঘণ্টার মধ্যেই কলকাতা আন্তর্জাতিক উৎসবের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে না যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিলেন রুদ্রনীল ঘোষ৷ বিশেষত এই অনুষ্ঠানে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপস্থিত থাকার কথা থাকলেও তা এড়িয়ে নিজের রাজনৈতিক ভবিষ্যৎ নিয়ে জল্পনা আরও বাড়ালেন অভিনেতা৷

শুক্রবার নবান্ন সভাঘর থেকে ভার্চুয়ালি ফিল্ম ফেস্টিভ্যালের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান হওয়ার কথা। উদ্বোধন করবেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং থাকবেন শাহরুখ খান। কিন্তু সেই উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের আগেই ছন্দপতন। ফিল্ম ফেস্টিভ্য়াল- এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আসছেন না রুদ্রনীল ঘোষ। যদিও তাঁকে আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন তাঁর ঘনিষ্ঠ বন্ধু তথা কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের চেয়ারম্যান রাজ চক্রবর্তী। ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে না আসার কারণ হিসেবে রুদ্রনীল জানান, 'ব্যক্তিগত কিছু কাজ আছে৷ তাই আমি যেতে পারছি না। আমাকে রাজ আমন্ত্রণ জানিয়েছিল।'

গত বুধবার রুদ্রনীল ঘোষের জন্মদিনে বিজেপির যুব নেতা বাড়িতে গিয়ে শুভেচ্ছা জানিয়েছে ছিলেন। শুধু তাই নয় বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতা কৈলাশ বিজয়বর্গীয় তাঁর সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে চান বলেও ওই বিজেপির যুব নেতা রুদ্রনীলকে জানিয়েছিলেন। সেই আবেদনেও সাড়া দিয়েছেন রুদ্রনীল। তার সঙ্গেই অবশ্য রাজ্যের শাসকদলের বিরুদ্ধে একাধিক ক্ষোভ উগরে দেন রুদ্রনীল ঘোষ। কাটমানি নেওয়া থেকে শুরু করে একাধিক ইস্যু নিয়ে গতকাল নিউজ ১৮ বাংলার মুখোমুখি হয়ে সরব হন টলিউডের এই অভিনেতা। মুখ্যমন্ত্রীর সদিচ্ছা থাকলেও তৃণমূল নেতা কর্মীদের একাংশ তাঁর কথা শুনছেন না বলে আক্ষেপ করেন রুদ্রনীল৷ একই সঙ্গে তাঁর অভিযোগ, বিভিন্ন দুর্নীতিতে অভিযুক্ত শাসক দলের নেতাদের বিরুদ্ধে আইন মেনে কোনও পদক্ষেপ করা হচ্ছে না৷


মুখে ব্যস্ততার কথা বললেও ফিল্ম ফেস্টিভ্যালের খরচ নিয়েও কিছুটা সরব হয়েছেন রুদ্রনীল ঘোষ। তিনি বলেন " আমফান, করোনা পরিস্থিতির পর কোটি কোটি টাকা খরচ করে ফিল্ম ফেস্টিভ্যালের আয়োজনের কতটা যৌক্তিকতা রয়েছে, তা নিয়ে আমার মনে প্রশ্ন রয়েছে৷ এর কিছুটা অংশ গরিব মানুষের কাজে লাগালে বোধহয় ভাল হতো।'

তবে শুক্রবার ফিল্ম ফেস্টিভ্যালের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে না যাওয়ার সঙ্গে রাজনীতির কোনও যোগ নেই বলেই দাবি করেছেন টলিউডের অভিনেতা। তিনি বলেন, 'ফিল্ম ফেস্টিভালের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের সময় পরিবর্তন হয়েছে। আমার কিছু নির্দিষ্ট কাজ আগে থেকেই ছিল। তাই আমি যেতে পারছিনা।' রুদ্রনীলের দাবি, ২০১১ সালের পর থেকে অন্তত চার থেকে পাঁচ বার তিনি ব্যস্ততার কারণে ফিল্ম ফেস্টিভ্যালের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে থাকতে পারেননি৷ রুদ্রনীলের আরও দাবি, ২০১৪ সাল থেকেই একাধিকবার অন্যায়ের বিরুদ্ধে সরব হয়েছেন তিনি৷

যদিও রাজনৈতিক মহলের মতে বিজেপির যুবনেতার তাঁর সঙ্গে সাক্ষাৎ এবং তারপর কৈলাশ বিজয়বর্গীয়র সঙ্গে সম্ভাব্য় বৈঠকের কথা জানিয়ে নিজের অবস্থান কিছুটা হলেও পরিবর্তনের ইঙ্গিত দিয়েছেন অভিনেতা। সেক্ষেত্রে কৌশলে তিনি উদ্বোধনী অনুষ্ঠান এড়ালেন কি না, সেই প্রশ্ন উঠছে৷ তবে রুদ্রনীল না থাকলেও শুক্রবারের ফিল্ম ফেস্টিভ্যালের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে একাধিক অভিনেতা-অভিনেত্রীদের থাকার কথা নবান্ন সভা ঘরে।

 Somraj Bandopadhyay

Published by:Debamoy Ghosh
First published: