কলকাতা থেকে হেঁটে বীরভূম যাওয়ার পরিকল্পনা, মাঝরাস্তা থেকে কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে নিয়ে গেল পুলিশ

প্রতীকী চিত্র।

  • Share this:

    #কলকাতা:  পেট আর বারণ মানছিল না। অগত্যা মুর্শিদাবাদে ও বীরভূমের বাসিন্দা ৭ জন নির্মাণ শ্রমিক, যাঁরা কাজের সূত্রে কলকাতায় ছিলেন, তাঁরা পায়ে হেঁটে ফিরছিলেন। বুধবার কলকাতা থেকে যাত্রা শুরু করে উত্তর চব্বিশ পরগনা জেলায় ঢুকে পড়েন ওই শ্রমিকরা। লক্ষ্য ছিল পায়ে হেঁটে কয়েকশো কিলোমিটার রাস্তা অতিক্রম করা। ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়কের ওপরে তাঁরা যখন বিশ্রাম নিচ্ছিলেন, তখন বারাসাত থানার পুলিশের নজরে পড়তেই পুলিশ উদ্যোগী হয়। তাঁদের আপাতত ঠিকানা বারাসাতের একটি কোয়ারেন্টাইন সেন্টার।

    কলকাতা সাইন্স সিটি সংলগ্ন এলাকায় কর্মরত নির্মাণ শ্রমিকদের দলটি লকডাউনের আগে কালিকাপুরে আস্তানা গেড়েছিল । একমাস ধরে লকডাউনের মধ্যে তাঁদের কাজ নেই। তাঁদের না আছে খাদ্য, না আছে অর্থ। বাড়ি ফেরার যানবাহনও নেই। প্রায় অভুক্ত অবস্থায় তাঁদের দিন কাটছিল। অবশেষে অভুক্ত অবস্থায় থেকে হেঁটেই নিজের নিজের বাড়ির দিকে ফিরতে মনস্থ করেন তাঁরা। বুধবার তাঁরা নিজেদের বাড়ি মুর্শিদাবাদের খড়গ্রাম ও বীরভূমের দিকে রওনা হন। তাঁদের মধ্যে চারজন মুর্শিদাবাদের ও তিন জন বীরভূমের বাসিন্দা। বারাসতের ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়কের পাশে শশা-মুড়ি খেয়ে জিরিয়ে নিচ্ছিলেন তাঁরা। বিশ্রামরত দেখে বারাসাত থানার পুলিশ তাঁদের পানীয় জল দেওয়ার পরে জিজ্ঞাসাবাদ করে এবং তাঁদের বারাসাত থানায় নিয়ে আসা হয়। তাঁদের আপাতত কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। তাঁদের সুস্থ বুঝলে বাড়ি ফেরার ব্যবস্থা করে দেবে পুলিশ।

    Published by:Simli Raha
    First published: