Home /News /kolkata /
Maniktala Arrest : সোশ্যাল সাইটের 'ক্লোজড গ্ৰুপে' আগ্নেয়াস্ত্র সমেত ছবি পোস্ট! সূত্র ধরে পুলিশের জালে দুষ্কৃতী

Maniktala Arrest : সোশ্যাল সাইটের 'ক্লোজড গ্ৰুপে' আগ্নেয়াস্ত্র সমেত ছবি পোস্ট! সূত্র ধরে পুলিশের জালে দুষ্কৃতী

গ্রেফতার অস্ত্র-কারবারি

গ্রেফতার অস্ত্র-কারবারি

Maniktala Arrest : ব্রাউন লেদারের ঘড়ি ও সাদা ফ্লোরাল প্রিন্টের জামা। তারই সূত্র ধরে পুলিশের জালে বেআইনি অস্ত্র কারবারি। বেরিয়ে আসছে আরও বড় সূত্র।

  • Share this:

#কলকাতা : সোশ্যাল সাইটে অস্ত্র বিক্রি করতে আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে ছবি পোস্ট করে পুলিশের জালে যুবক। ব্রাউন লেদারের হাত ঘড়ি ও সাদা শার্টের সূত্র ধরে পুলিশের জালে বমাল ধরা পড়ল অভিযুক্ত। হোয়াটস্যাপ ও ফেসবুকের ক্লোজড গ্রুপে অস্ত্র বিক্রির উদ্দেশ্যে হাতে অস্ত্র নিয়ে একটি ছবি পোস্ট করে ধৃত কিষান জসওয়ারা। পুলিশ সুত্রে খবর, ওই যুবকের গলা থেকে কোমর পর্যন্ত একটি ছবি রয়েছে। বাহাতে ব্রাউন রঙের ঘড়ি পরা ছিল ও সাদা ফ্লোরাল প্রিন্টের ফুল শার্ট ছিল গায়ে। আর হাতে আগ্নেয়াস্ত্র ছিল।

এরপর সেই ক্রিমিনাল গ্রুপের খোঁজ পায় মানিকতলা থানার পুলিশ। সেই পোস্ট করা ছবি সূত্র ধরে পুলিশ তদন্ত শুরু করে। পুলিশ সুত্রে খবর, ওই গ্রুপের উপর নজরদারি চালাতে শুরু করে তারা। পুলিস জানতে পারে কিষান জাসোয়ারা নামে এক যুবক ওই পোস্ট করেছে। কিষানের ফেসবুকে নাম ছিল ডি জে হার্দিক জয়সারা। ওই নামে একটি ফেসবুক প্রোফাইল থেকে ক্লোজড গ্রুপে ওই ছবি পোস্ট করেছিল কিষান। তারই সূত্র ধরে পুলিশ ক্যানেল ইস্ট রোড থেকে কিষানকে প্রথমে আটক করে। পুলিশ দেখে জসওয়ারা হাতে ওই ব্রাউন কালারের লেদারের ঘড়ি। তাই দেখেই সন্দেহ হয় পুলিশের। পরে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

বিহারের বাসিন্দা কিষান আগে কাকিনারা এলাকায় থাকতো। সেখানে তার বেশ কিছু সহযোগী রয়েছে। এছাড়া লাস্ট কয়েক বছর ধরে হরিশ নিয়োগী রোডে থাকছে সে। পুলিশ কিষানকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে প্রথমে সে অস্বীকার করে। কিষান পুলিশকে জানায় এটা পুরোনো ঘড়ি। এরপর পুলিশ নিশ্চিত হতে এরপরেই কিষানের হরিশ নিয়োগী রোডের বাড়িতে গিয়ে তল্লাশি করে সোশ্যাল গ্রুপে পোস্টের ওই সাদা ফ্লোরাল প্রিন্টের জামাটি উদ্ধার করে। তারপরেই গ্রেফতার করা হয় অভিযুক্ত কিষান জয়সাওরাকে।

পুলিশ ধৃতকে জেরা করে জানতে পারে, পেশায় ক্যাব চালক কিষানের অস্ত্র বিক্রির জন্য একটি বিশাল চক্র আছে কাঁকিনারা, ভাটপাড়া এলাকাতে। ধৃতের থেকে উদ্ধার হয় সিঙ্গেল শাটার আগ্নেয়াস্ত্র ও কার্তুজ। জেরা করে জানা যায়, সোশ্যাল মিডিয়া ক্লোজড গ্রুপে যে ছবি পোস্ট হয়েছিল সেইখানে যে আগ্নেয়াস্ত্রর ছবি সেটি ভাটপাড়া খুনের ঘটনায় মোস্ট ওয়ান্টেড অভিযুক্তর কাছে রয়েছে। এরপর মানিকতলা থানার পুলিস অভিযুক্তকে নিয়ে ভাটপাড়া এলাকায় মানিকতলা থানার পুলিশ ও ভাটপাড়া পুলিশ যৌথ উদ্যোগে ভাটপাড়ায় শনিবার তল্লাশি করে। সম্প্রতি ভাটপাড়ায় খুনের ঘটনায় ওই মোস্ট ওয়ান্টেড ( সুমিত ) পলাতক। তার ভাটপাড়ায় বাড়িতে তল্লাশি করে পুলিস অভিযান চালিয়ে অস্ত্র উদ্ধার করতে পারেনি।

এই ঘটনায় ধৃত কিষান জেরায় জানিয়েছে, অস্ত্র বিক্রির উদ্দেশ্যে সে সোশ্যাল সাইটে দুষ্কৃতীদের ক্লোজড গ্রুপে ছবি পোস্ট করেছিল। অন্যদিকে, কিষানের বাবা শঙ্কর রাম জসোয়ারা দাবি, ছেলেকে চক্রান্ত করে ফাঁসানো হচ্ছে। কে ওই ছবি পোস্ট করেছে তা তারা জানেন না। শনিবার পুলিশ এসে ছেলেকে থানায় নিয়ে যায়। কাকে বিক্রি উদ্যেশ ছিল? অস্ত্র ডিলিংয়ে আর কে কে জড়িত ? কোথা থেকে পেল অস্ত্র? কত টাকায় লেনদেন হত? ভাটপাড়া ওই আগ্নেয়াস্ত্র দিয়েছিল কবে? এই সব প্রশ্নের উত্তর খুঁজছে মানিকতলা থানার তদন্তকারী অফিসাররা।

Published by:Sanjukta Sarkar
First published:

Tags: Illegal business, Maniktala

পরবর্তী খবর