কলকাতা

corona virus btn
corona virus btn
Loading

লেক কালীবাড়িতে পুজোর প্রস্তুতি তুঙ্গে, রাতে নিবেদন করা হবে মাছ-খাসির মাংস-সহ আমিষ ভোগ

লেক কালীবাড়িতে পুজোর প্রস্তুতি তুঙ্গে, রাতে নিবেদন করা হবে মাছ-খাসির মাংস-সহ আমিষ ভোগ

করোনাভাইরাস পরিস্থিতিকে মাথায় রেখে স্বাস্থ্যবিধি মেনে কাউকেই প্রসাদ দেওয়া হবে না

  • Share this:

#কলকাতা: নিউ নর্মাল পরিস্থিতিতে লেক কালীবাড়িতে শনিবার শেষ মুহূর্তের ব্যস্ততা। এদিন দুপুরে গতবছরের ঘট বিসর্জনের পুজো শেষ হয়েছে। লেক কালীবাড়ির রীতি মোতাবেক ঘটের বিসর্জন হয় লেকে এবং তারপর  লেক থেকেই জল তুলে রাতে আবার মা কালীর পুজো শুরু হবে। মন্দির কমিটির তরফে জানানো হয়েছে, রাত ন'টা থেকে শুরু হবে মা কালীর পুজো। অন্তত ভোর পাঁচটা পর্যন্ত পূজো চলবে। অঞ্জলি হবে একদম পুজোর শেষে। অর্থাৎ, অঞ্জলি হতে হতে ভোর পাঁচটা বেজে যেতে পারে বলে মনে করছে মন্দির কমিটি।

লেক কালীবাড়ি রীতি অনুযায়ী প্রত্যেকবারই কালীপুজোর দিন মাকে আমিষ ভোগ নিবেদন করা হয়। অর্থাৎ, এদিনের ভোগের তালিকায় থাকছে একাধিক রকমের মাছ, খাসির মাংস, পাঁচ রকমের ভাজা, পোলাও, পাঁচমিশালি তরকারি, পায়েস। পুজোর রাতে মা কালীকে এই ভোগ নিবেদন করা হলেও এই ভোগ দর্শনার্থীদের দেওয়া হবে না। এই ভোগ নিবেদন করে নেওয়া হয়।

শনিবার সকাল থেকেই লেক কালীবাড়িতে ছিল দর্শনার্থীদের ভিড় । যদিও পুজো গ্রহণ করা হচ্ছে একটি নির্দিষ্ট জায়গায়। করোনাভাইরাস পরিস্থিতিকে মাথায় রেখে স্বাস্থ্যবিধি মেনে কাউকেই প্রসাদ দেওয়া হবে না। মন্দির কমিটির তরফ ইতিমধ্যেই জানানো হয়েছে দূর থেকে অর্থাৎ মন্দিরের চাতাল থেকেই প্রণাম করে দর্শনার্থীদের বেরিয়ে যেতে হবে। বিকেলের পর থেকে  ভিড় নিয়ন্ত্রণ করবে পুলিশ। মন্দির কমিটির তরফে  জানানো হয়েছে, বিকেলের পর থেকে মন্দিরের চাতালের সামনে কাউকে থাকতে দেওয়া হবে না। দূর থেকেই দর্শন করে চলে যেতে হবে দর্শনার্থীদের। শুধু তাই নয়, ফুল দিয়ে অঞ্জলি দেওয়া যাবে না। হাতজোড় করে প্রণাম করে অঞ্জলি দিতে পারবেন দূর থেকে। অবশ্য পুরোহিত মশাইয়ের মন্ত্র যাতে সবাই শুনতে পারেন, তার জন্য একাধিক সাউন্ডবক্স লাগানো হয়েছে। সব মিলিয়ে শনিবার রাতের কালী পূজার জন্য চূড়ান্ত প্রস্তুতি নিয়ে ফেলেছে লেক কালীবাড়ি কর্তৃপক্ষ।

SOMRAJ BANDOPADHYAY

Published by: Rukmini Mazumder
First published: November 14, 2020, 4:48 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर