কলকাতা

corona virus btn
corona virus btn
Loading

করোনা পরিস্থিতিতে রিভিউ ও স্ক্রুটিনির খরচ কমাল সংসদ, ৩১ অগাস্ট অবধি করা যাবে আবেদন

করোনা পরিস্থিতিতে রিভিউ ও স্ক্রুটিনির খরচ কমাল সংসদ, ৩১ অগাস্ট অবধি করা যাবে আবেদন

শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় ও স্কুল শিক্ষা দফতরের সচিবের নির্দেশে রিভিউ ও স্ক্রুটিনির খরচ কমানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদ ৷

  • Share this:

#কলকাতা: শুক্রবার ১৭ জুলাই প্রকাশিত হল উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার ফলাফল ৷ কোভিড পরিস্থিতির মোকাবিলা করেও উচ্চমাধ্যমিকে ঐতিহাসিক ফল ৷ নির্ধারিত সময়ে সাংবাদিক বৈঠকের মাধ্যমে ফল ঘোষণা করলেন উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদের সভাপতি মহুয়া দাস। সেখানেই তিনি ঘোষণা করেন, শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় ও স্কুল শিক্ষা দফতরের সচিবের নির্দেশে রিভিউ ও স্ক্রুটিনির খরচ কমানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদ ৷ শুধু মাত্র চলতি বছরের জন্যই এই ব্যবস্থা বলেও জানিয়েছে সংসদ ৷ খাতা স্ক্রুটিনি করতে হলে পরীক্ষার্থীকে ৬০ টাকার বদলে দিতে হবে ৫০ টাকা ৷ কেউ এবছর রিভিউ করাতে হলে তাঁকে দিতে হবে ৭৫টাকা। আগে দিতে হত ১০০ টাকা। সংসদের তরফে জানানো হয়েছে যারা এদিনের রেজাল্টে সন্তুষ্ট হবেন না, তারা স্কুলে আবেদনপত্র জমা দিলে কোভিড পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে পরীক্ষার ব্যবস্থা করা হবে ৷ তবে সেক্ষেত্রে ওই পরীক্ষার ফল যাই হোক না কেন তাকেই চুড়ান্ত বলে মানা হবে ৷ যেসব বিষয়ে পরীক্ষা হয়েছে সেই বিষয়গুলিতেই স্ক্রুটিনির জন্যে আবেদন করা যাবে ৩১ অগাস্টের মধ্যে ৷

চলতি বছরে মোট পরীক্ষার্থী ৭ লাখ ৭৫ হাজার ৩৩৪ ৷ পাস করেছেন ৯০.১৩ শতাংশ ৷  ৫০০-এর মধ্যে সর্বোচ্চ নম্বর উঠেছে ৪৯৯৷ চলতি বছরে পাসের হারে নজির উচ্চমাধ্যমিকে ৷ উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদের সভাপতি মহুয়া দাস জানিয়েছেন, এবারে পাশের হারে রেকর্ড ৷  গতবারের তুলনায় পাসের হার বাড়ল ৩.৮৩ শতাংশ ৷ রেকর্ড ৬০ শতাংশ নম্বর অর্থাৎ প্রথম বিভাগ পাওয়ার ক্ষেত্রেও ৷ সংসদ সভাপতি জানিয়েছেন এবারে প্রথম বিভাগে পাস করেছেন ৩ লক্ষ ২২ হাজার ৫৬ জন পরীক্ষার্থী ৷ সবার আগে নির্ভুল রেজাল্ট দেখতে ছাত্রছাত্রী এবং তাদের অভিভাবকরা লগ ইন করুন- www.news18bangla.com-এ ৷ এরপর রোল নম্বরের (Roll Number) পাশাপাশি জন্ম তারিখ (Date Of Birth ) দিন ৷ তারপর ক্লিক করুন চেক রেজাল্টে (Check Result) ৷  নেওয়া যাবে রেজাল্টের প্রিন্টআউটও ৷

৩১ জুলাই বেলা ২ টো থেকে ৫২টি  বিতরণ কেন্দ্র থেকে পাওয়া যাবে মার্কশিট ৷ পরে তা স্কুল থেকে সংগ্রহ করতে পারবেন অভিভাবক ও পড়ুয়ারা ৷

Somraj Bandopadhyay

Published by: Elina Datta
First published: July 17, 2020, 10:40 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर