• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • CPIM MP BIKASHRANJAN BHATTACHARYA SHARPLY CRITICIZED BRATYA BASU FOR HIS COMMENT OVER SSK TEACHER PROTEST AKD

Bratya Basu vs Bikashranjan Bhattacharya| 'বিজেপির ক্যাডার' মন্তব্যের পাল্টা 'পোষা ক্যাডার'! নেটদুনিয়া সরগরম ব্রাত্য বনাম বিকাশ যুদ্ধে

ব্রাত্য বসু বনাম বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্য। যুদ্দে তোলপাড় নেটদুনিয়া।

Bratya Basu vs Bikashranjan Bhattacharya| ব্রাত্য বসু সকালেই তথ্য পরিসংখ্যান তুলে দেখিয়েছিলন, সামগ্রিক ভাবে যারা এই ধরনের আন্দোলন করছেন তাঁদের অবস্থা যে বাম আমলের তুলনায় অনেকটাই ভালো।

  • Share this:

    #কলকাতা: পাঁচ শিক্ষিকার আত্মহত্যার চেষ্টায় যখন নানামহলে শোরগোল, ঠিক তখনই সোশ্যাল মিডিয়ায় সরব হয়েছিলেন শিক্ষামন্ত্রী  ব্রাত্য বসু। তথ্য পরিসংখ্যান তুলে দেখিয়েছিলন, সামগ্রিক ভাবে যারা এই ধরনের আন্দোলন করছেন তাঁদের অবস্থা যে বাম আমলের তুলনায় অনেকটাই ভালো। এবার সেই প্রতিক্রিয়ার বিরুদ্ধেই তোপ দাগলেন সিপিএম-এর আইনজীবী সাংসদ  বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্য। তাঁর ব্যখ্যায়, ব্রাত্য বসু মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের 'পোষা ক্যা়ডার।'

    এদিন বিকাশরঞ্জন সোশ্যাল মিডিয়ায় লিখেছেন,  "পাঁচজন শিক্ষিকার আত্মহত্যার ঘটনাকে কেন্দ্র করে শ্রীমান ব্রাত্য বসুর মন্তব্য পড়ে নিশ্চিত হলাম তিনি দুর্নীতিগ্রস্থ মমতার পোষা ক্যডার, সাংবিধানিক পদাধিকারী নন| আত্মহননকারী শিক্ষিকরা কোন দলের ক্যাডার তা আমি জানিনা| তবে এটা নিশ্চিত জানি তাঁরা শিক্ষকদের দাবী প্রতিষ্ঠার লড়াই করছেন | ব্রাত্য বাবু বললেন, মমতার আমলে শিক্ষকদের ভাতা বাড়িয়েছেন| বাম আমলের তুলনায় মন্ত্রীদের সামগ্রিক আয় যে অনুপাতে বাড়ল ঠিক সেই অনুপাতে কি রাজ্যের শিক্ষক সহ অন্যান্যদের বেতন বা ভাতা বৃদ্ধি পেয়েছে? ব্রাত্যবাবুর চাকুরি টিকবে না যদি তিনি তাঁর বিবেক অনুযায়ী কাজ করেন|  অবশ্য যদি তাঁর বিবেক বোধ বলে কিছু  থেকে থাকে|"

    উল্লেখ্য ব্রাত্য বসু এদিন সাকালেই নিজের ফেসবুকে লিখেছিলেন,'বাম সরকারের আমলে পঞ্চায়েত এবং গ্রামোন্নয়ন বিভাগের অধীনে SSK এবং MSK-র সহায়ক/সহায়িকা, সম্প্রসারক/সম্প্রসারিকারা নামমাত্র সাম্মানিক-এর বিনিময়ে কাজ করতেন। কাজের নিশ্চয়তা, আর্থিক নিরাপত্তা এবং অবসরকালীন সুযোগসুবিধা বলে কিছু ছিলো না।' পাশাপাশি তথ্য দিয়ে তিনি দেখান, সহায়ক সহায়িকাদের সাম্মানিক বাড়িয়ে মাসিক ১০৩৪০ টাকা এবং সম্প্রসারক/সম্প্রসারিকাদের সাম্মানিক বাড়িয়ে ১৩৩৯০ টাকা করা হয়। এছাড়াও বাৎসরিক ৩% বৃদ্ধি বা ইনক্রিমেন্ট চালু করা হয়েছে। ব্রাত্যর প্রশ্ন, এতসবের পরেও কেন এভাবে আন্দোলন?  এই পদক্ষেপের মধ্যে রাজনীতির গন্ধই পাচ্ছেন তিনি।

    Published by:Arka Deb
    First published: