corona virus btn
corona virus btn
Loading

ভারতীয় সেনারা সীমান্ত পেরিয়ে গুলি চালিয়েছে দাবি চিনের

ভারতীয় সেনারা সীমান্ত পেরিয়ে গুলি চালিয়েছে দাবি চিনের

মঙ্গলবার ভারত সরকারের তরফ থেকে এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে ভারতের সেনারা প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখায় কোনও গুলি চালায়নি।

  • Share this:

#লাদাখ: গত তিন মাস ধরে জারি রয়েছে ভারত-চিন দ্বন্দ্ব। সীমান্তে পরিস্থিতি উদ্বেগজনক অবস্থায়। মঙ্গলবার ভারত সরকারের তরফ থেকে এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে ভারতের সেনারা প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখায় কোনও গুলি চালায়নি। অপরদিকে চিনা সেনাদের তরফ থেকে জানানো হয়েছে অবৈধভাবে ভারতীয় সেনারা সীমান্ত রেখা অতিক্রম করে তাদের দিকে এসে গুলি চালিয়েছে। যা মানতে নারাজ ভারতীয় সেনারা। এই নিয়ে দ্বন্দ্ব চলছেই।

অন্যদিকে ভারত ও চিনের প্রতিরক্ষা মন্ত্রীরা মস্কোয় বৈঠকের দুদিন পরে এবং পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের মধ্যে তফসিল বৈঠকের দু'দিন আগে এই খবর আসে। পিএলএ-এর ওয়েস্টার্ন থিয়েটার কমান্ডের মুখপাত্র কর্নেল ঝাং শুইলি বলেছেন, "এটি মারাত্মক একটি সামরিক উস্কানিমূলক ঘটনা .. যা হয়েছে তা খুব খারাপ ।"

মঙ্গলবার ভোরে সামরিক বাহিনীর অফিসিয়াল সংবাদ ওয়েবসাইটে প্রকাশিত এক বিবৃতিতে শুইলি বলেন, চিনা সেনারা ভারতীয় সেনাদের জবাব দিতে পাল্টা ব্যবস্থা নিয়েছিল। কিন্তু চীনা সেনারা ভারতীয় সেনাদের লক্ষ্য করে গুলি চালিয়েছিল কিনা তা স্পষ্ট করেননি তিনি। গত জুনের সংঘর্ষে কুড়ি জন ভারতীয় সেনা নিহত হয়েছিল, এই ঘটনা ঘটার পর চিন ও ভারত সীমান্তে অতিরিক্ত বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছিল দুই পক্ষের থেকেই । শুইলি ওপর একটি বিবৃতিতে বলেছেন , "আমরা ভারতীয় সেনাদের অবিলম্বে বিপজ্জনক পদক্ষেপ বন্ধ করার জন্য অনুরোধ করছি ... এবং অনুরূপ ঘটনা যাতে আবার না ঘটে তা নিশ্চিত করতে গুলি চালানো কর্মীদের বিরুদ্ধে কঠোর তদন্ত ও শাস্তি প্রদান করার দাবি রাখছি ।"

সম্প্রতি ভারত ও চিনের সেনারা পূর্ব লাদাখ এবং উত্তর সিকিমের নাথু লা পাসের কাছে ফের সংঘর্ষে জড়ায় , উভয় পক্ষের বেশ কয়েকজন সৈন্য আহত হয়েছে। ৫ মে সন্ধ্যায় পূর্ব লাদাখের প্যাংগং লেকের উত্তর দিকে ভারতীয় ও চীনা সেনাবাহিনীর মধ্যে বেশ কয়েকবার সংঘর্ষ হয় এবং উভয়পক্ষের মধ্যে বেশ কিছুক্ষণ লড়াই চলতে থাকে। সূত্র থেকে জানা যায় , উভয় পক্ষের বেশ কয়েকজন সেনা একে অপরকে ঘুষি মারতে শুরু করে এবং পাথর ছুঁড়তে থাকে যার ফলে উভয় পক্ষের কিছু সেনা আহত হয় । ২০১৭ সালের অগাস্ট মাসে প্যাং গং লেকের আশেপাশে দুই পক্ষ সংঘর্ষে জড়িয়েছিল ,ব্যাপক পরিমাণে গুলির লড়াই চলেছিল। উভয়পক্ষের বেশ কয়েকজন আহত হয়। অপর একটি পৃথক ঘটনায়, চিন-ভারত সীমান্তের নাথু লা পাসের কাছে প্রায় দেড়শো ভারতীয় ও চিনা সেনাদের মধ্যে লড়াই চলে ,যেখানে কমপক্ষে ১০ জন সেনা আহত হয়েছিল। ২০১৭ সালে ডোকলাম নিয়ে দুইপক্ষ বিবাদে জড়িয়েছিল।

৭৩ দিন ধরে সংঘর্ষ চলতে থাকে সীমানা কেন্দ্র করে। এই ঘটনার কয়েকমাস পর প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং চিনের রাষ্ট্রপতি শি জিনপিং ২০১৮ এর এপ্রিল মাসে চিনের উহানে তাদের প্রথম আনুষ্ঠানিক শীর্ষ সম্মেলন করেছিলেন। দুই পক্ষের তরফ থেকে এই সীমান্ত বিবাদ মিটিয়ে ফেলার বহু চেষ্টা করা হয়। ডোকলাম ইস্যু বর্তমানে কিছুটা থিতিয়ে গেলেও দুই পক্ষের মধ্যে সীমান্ত নিয়ে বিবাদ জারি রয়েছেই। যার জেরে বারবার সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ছে দুই পক্ষ।

Published by: Elina Datta
First published: September 8, 2020, 7:04 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर