দেরাদুনে গণধর্ষণের আগে পর্ন ভিডিও দেখেছিল স্কুল ছাত্ররা! মেডিক্যাল পরীক্ষা জানাল অন্তঃসত্ত্বা নয় ছাত্রী

দেরাদুনে গণধর্ষণের আগে পর্ন ভিডিও দেখেছিল স্কুল ছাত্ররা! মেডিক্যাল পরীক্ষা জানাল অন্তঃসত্ত্বা নয় ছাত্রী

এর আগেও দেরাদুনে এরকম ভাবে ৮ থেকে ১৪ বছরেরে ছেলেরা ৮ বছরের মেয়েকে ধর্ষণ করেছিল ৷এবার শিক্ষাঙ্গনেও সেই কালো ছায়া ৷

  • Share this:

#দেরাদুন : দেরাদুনের স্কুল  হস্টেলের ছাত্রীকে গণধর্ষণের ঘটনায় চাঞ্চল্যকর তথ্য সামনে এসেছে ৷ তদন্তকারী পুলিশ দলের থেকে জানা গেছে একেবারে আঁটঘাঁট নেমে ছাত্রীকে গণধর্ষণ করেছিল অভিযুক্ত চার ছাত্র ৷

এর মধ্যে যে ছাত্রটি মূল পান্ডা সে দীর্ঘদিন ধরেই ছাত্রীটির প্রতি আসক্ত ছিল ৷ নানাভাবে সে মেয়েটিকে পাওয়ার চেষ্টা করছিল ৷ কিন্তু মেয়েটি কোনও সময়েই তাঁকে পাত্তা দেয়নি ৷ এরপরেই সেই অভিযুক্ত ছাত্রটি এই ছক কষে৷ যেখানে সে তাঁর বন্ধুদের নিয়ে মেয়েটিকে ধর্ষণ করবে ঠিক করে ৷ মূল অভিযুক্তের সঙ্গে যাঁরা ছিল তার তিনজনেই মাইনর ৷

মেয়েটিকে নিগ্রহের আগে তাঁরা সকলে মোবাইল ফোনে পর্ণগ্রাফি দেখেছিল ৷ অথচ স্কুলে মোবাইল ব্যবহারে কড়া নিষেধাজ্ঞা রয়েছে ৷ ছাত্রছাত্রীরা শুধুমাত্র রবিবার মোবাইল ফোন ব্যবহার করতে পারে তাও মাত্র ২ ঘন্টার জন্য ৷ সেখানে কী করে অভিযুক্ত ছাত্ররা এরকম অবাধ মোবাইল ফোন ব্যবহার করতে পারল তা নিয়েই পুলিশ প্রশ্ন তুলেছে ৷

আরও পড়ুন - শিক্ষকরা নিজেদের ডিউটি-র মাত্র ১৯.১% সময়ে পড়ুয়াদের পড়ান, বাকি সময়ে কী করেন জানলে চমকাবেন

এদিকে ধর্ষিতা ছাত্রীকে বিভিন্ন রকম ঘরোয়া টোটকা ও ওষুধ প্রয়োগ করা হয়েছিল ৷ তার জেরেই মেডিক্যাল পরীক্ষায় জানা গেছে অন্তঃস্তত্ত্বা নয় ছাত্রীটি ৷ প্রাথমিক ভাবে স্কুলে কেয়ারটেকারের স্ত্রী তাঁকে কোনও একটা পানীয় খাইয়েছিল যাতে সে কোনওভাবে গর্ভবতী না হয়ে পরে৷ এছাড়াও চিকিৎসকরদের দেওয়া ওষুধও খাওয়ানো হয় তাঁকে ৷

First published: September 22, 2018, 8:26 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर