Money Heist Season 5 Vol 1: শ্বাস নেওয়ার জায়গা নেই ! গোলাগুলি, রক্তের মাঝে গতিহীন 'মানি হাইস্ট'

money heist

Money Heist Season 5 Vol 1: মানি হাইস্ট মানেই তো একটা চমক। সেই চমক কিন্তু একেবারেই নেই এবারের সিরিজে।

  • Share this:

    #মুম্বই: লুকিয়ে আছে প্রফেসর (money heist )। লিসবন পৌঁছে গিয়েছে ব্যাঙ্ক অফ স্পেনে। আনন্দে আত্মহারা টোকিও থেকে ডেনভার সকলেই। ঠিক তখনই প্রফেসরের অন্ধকার, ভিজে কালকুঠুরিতে চলে আসে অ্যালিসিয়া। এখান থেকেই শুরু হয় খারাপ সময়। জিততে জিততে হেরে যেতে থাকে প্রফেসররা। লোহার শিকলে প্রফেসরকে বন্দি বানায় অ্যালিসিয়া। উগড়ে দিতে চায় হেরে যাওয়ার সব রাগ। খুন করতে চায় সে প্রফেসরকে। ঠিক এই সমস্ত কিছুর মাঝেই অ্যালিসিয়া বুঝতে পারে তাঁর পুলিশ ডিপার্টমেন্টই তাঁকে ফাসাচ্ছে। এই কঠিন সময়েই প্রেগন্যান্ট অ্যালিসিয়ার মেয়ের জন্ম হয়। প্রফেসরই সাহায্য করে তাঁকে। ধীরে ধীরে বদলে যেতে থাকে অ্যালিসিয়ার ধারণা। ওদিকে ব্যাঙ্ক অফ স্পেনে তখন ঢুকে পড়েছে আর্মির আটজন যোদ্ধা। চলতে থাকে গোলাগুলি। রক্তা-রক্তি। চারিদিকে শুধুই আগুন আর গুলির আওয়াজ।

    এসব কিছুর মাঝখানেই মানি হাইস্টের (money heist )  পরিচালক তুলে ধরতে থাকেন চরিত্রগুলোর মধ্যের আবেগ। সম্পর্কের বাঁধন দেখাতে চেষ্টা করেন। ঠিক যেভাবে মানি হাইস্ট-এর আগের সবকটি পার্টেই তুলে ধরা হয়েছিল প্রত্যেকটি চরিত্রের সঙ্গে সম্পর্ক। এখানেও অন্যথা হয়নি। মাঝে মধ্যেই বার্লিন ও তাঁর ছেলেকে দেখানো হয়েছে। বোঝা যাচ্ছে ভলিউম ২-তে বার্লিনের ছেলের একটা পার্ট থাকবে। এই চুরি থেকে আদতে কেউ বেঁচে ফিরবে কিনা, তা নিয়ে সন্দেহ থেকেই যাচ্ছে। আগের পার্টে পরিচালক নাইরোবিকে মেরে দেন। যা নিয়ে ক্ষোভ দেখা গিয়েছিল দর্শকের মধ্যে। এবারেও তেমন একটা টুইস্ট রয়েছে। তবে এত কিছুর মধ্যে অ্যালভারো মর্তের জাদু কিন্তু অনেকটাই কমেছে।

    মানি হাইস্ট-এর  (money heist )আগের বিশেষ করে প্রথম সিরিজে দারুণ উত্তেজনা ধরে রাখতে পেরেছিল। তার পরের সিজনগুলোও বেশ ভালো ছিল। টান টান উত্তেজনা ছিল। কিন্তু ভলিউম ৫-এর পার্ট ওয়ানে সেই উত্তেজনার অনেকটাই ঘাটতি দেখা গেল। যেভাবে সারা বিশ্বের মানুষ এই সিরিজ নিয়ে উন্মাদনা ছড়িয়েছেন। ঠিক সেই জায়গায় পৌঁছায়নি এবারের সিরিজ। চরিত্রগুলো আগে থেকেই তৈরি ছিল। কিন্তু আবেগ অনেকটাই কম ছিল এবার। সব কিছু যেন একটা যুদ্ধের মতো ছিল। যুদ্ধ ক্ষেত্রে আবেগ কাজ করে না। তখন শত্রুকে মারাই শেষ কথা। সেটাই তুলে ধরা হয়েছে এখানে।  মানি হাইস্ট মানেই তো একটা চমক। সেই চমক কিন্তু একেবারেই নেই এবারের সিরিজে। কোথাও গিয়ে ভীষণভাবে গতি হারায় সিরিজ। মনে হতে থাকে একই রকম ঘটনার পুনরাবৃত্তি হয়ে চলেছে। শ্বাস নেওয়ার জায়গা নেই। নতুন কিছু নেই। সেই মনিকা -ডেনভারের মাঝে এসে পড়ছে আর্তোরিতো। আবার দেখানো হচ্ছে টোকিওর প্রেম। যা কিনা এর আগেও অনেক বার দেখানো হয়েছে। হেলসিঙ্কির চারিত্রিক জাদুও অনেকটাই কম এই সিরিজে। না আছে প্রফেসরের নতুন কোনও বুদ্ধির খেলা। যা এই মানি হাইস্ট-এর প্রাণ। গতি হারিয়েছে মানি হাইস্ট (money heist )। তবে এটা ভলিউম ওয়ান। ভলিউম ২তে নিশ্চয় পরিচালক নতুন কিছু ভেবেছেন। মানি হাইস্ট জয়ের গল্প বলে। ক্রান্তি শেখায়। সেখানে যদি গোটা ছবিটা গ্যাদগেদে হতে থাকে, তবে কিন্তু দর্শক আশাহতই হবেন।

    Published by:Piya Banerjee
    First published: