Mir Afsar Ali : বাহুতে ফরাসি শিল্পীর অদৃশ্য উল্কি থেকে প্রিয় বুড়োবুড়ির সঙ্গে চা, মীরের পোস্টে বুঁদ নেটিজেনরা

মীর, ছবি-ফেসবুক

এক আশ্চর্য উল্কি! করালেন মীর (Mir Afsar Ali) ৷ শুধু করালেন না ৷ সামাজিক মাধ্যমে তার ছবিও দিলেন ৷ তবে খালি চোখে সে উল্কি দেখাই যায় না ৷

  • Share this:

    কলকাতা : এক আশ্চর্য উল্কি! করালেন মীর (Mir Afsar Ali) ৷ শুধু করালেন না ৷ সামাজিক মাধ্যমে তার ছবিও দিলেন ৷ তবে খালি চোখে সে উল্কি দেখাই যায় না ৷

    শনিবার সকালে সামাজিক মাধ্যমে একটি ছবি দিয়েছেন মীর ৷ সেখানে তাঁর বাঁ বাহু দেখা যাচ্ছে ৷ ভাঁজ করা সেই হাতেই তিনি উল্কি আঁকিয়েছেন ৷ দাবি শিল্পীর ৷ ক্যাপশনে লিখেছেন, ‘‘অনেক ভেবেচিন্তে শেষ অবধি আমার প্রথম ট্যাটু আঁকিয়েই ফেললাম ৷ বাঁ হাতের উপরের অংশে উল্কিটি আঁকা হয়েছে ৷ তবে এই বিশেষ উল্কি সকলের জন্য নয়৷’’

    মীরের কথায়, এই বিশেষ উল্কির নাম ‘ট্যাটু দ্য ইনভিজিবিলি’৷ অদৃশ্য বলে খালি চোখে দেখা যায় না ৷ ফরাসি উল্কিশিল্পীকে দিয়ে তিনি এটা আঁকিয়েছেন ১৭ জুলাই বিশ্ব উল্কি দিবস উপলক্ষে ৷

    মীরের রসবোধে আবার কুপোকাত নেটিজেনরা ৷ আদপে কোনও উল্কিই তিনি করাননি ৷ ছবি দিয়েছেন তাঁর উল্কিবিহীন বাহুর ৷ তার পর মজা করে ক্যাপশনে গল্প বলেছেন ৷ স্বভাবরসিক বিদূষক পোস্টের শেষে এও লিখেছেন, ছবিটি প্রথম দর্শনে দেখে হয়তো অন্য কিছু মনে হতে পারে ৷ তার জন্য তিনি ক্ষমাপ্রার্থী ৷

    মীরের রসিকতায় বুঁদ নেটিজেনরা ৷ অনেকেই মন্তব্যে লিখেছেন, ‘বাহুবলী’৷ মজা করে তাঁর পোস্টকে ‘দুষ্টু’ থেকে ‘অসভ্য’ আখ্যা দিতে ছাড়েননি নেটিজেনরা ৷ প্রসঙ্গত ১৭ জুলাই বিশ্ব ইমোজি দিবসও ৷ সেই উপলক্ষেও মুকাভিনয়ের ঢঙে পরিচিত ইমোজিগুলির অনুকরণে ছবি পোস্ট করেছেন মীর ৷

    রসিকতার পাশাপাশি মীরের পোস্টে ধরা পড়ে তাঁর পারিবারিক পরিসরও ৷ কিছু দিন আগে মীর ছবি শেয়ার করেন তিন কাপ চায়ের ৷ তিনটি হাত ধরে আছে কাপগুলি ৷ ক্যাপশনে মীর লিখেছেন, ‘সারা পৃথিবীতে আমার সবচেয়ে প্রিয় বুড়ো বুড়ির সঙ্গে শনিবারের চা…’৷

    না বলে দিলেও বুঝতে নেটিজেনরা সহজেই বুঝতে পেরেছেন মীর চা খাচ্ছেন তাঁর বাবা মায়ের সঙ্গে ৷ পোস্ট বৈচিত্রের দৌলতে সঞ্চালক মীর মন জয় করে নিয়েছেন সামাজিক মাধ্যমেও ৷

    Published by:Arpita Roy Chowdhury
    First published: