ভয়ে কাঁটা হয়ে আছি : মধুমিতা

মধুমিতা সরকার ৷ ছবি: ফেসবুক ৷

মধুমিতা সরকার ৷ ছবি: ফেসবুক ৷

গত শনিবার থেকে টালিগঞ্জ স্টুডিও পাড়ায় ধর্মঘট চলছে। শুটিং বন্ধ। বুধবারেও অচলাবস্থা কাটেনি। কী মনে হচ্ছে? কলম ধরলেন  ‘কুসুমদোলা’র নায়িকা মধুমিতা সরকার ৷

  • Share this:

    #কলকাতা: যেটা চলছে ভাল হচ্ছে না ৷ গত কয়েকদিন যে ঘটনা ঘটছে তা অনভিপ্রেত ৷ একজন শিল্পী হিসেবে বলতে পারি ৷ খারাপ লাগছে বড্ড খারাপ লাগছে ৷ কিন্তু যেটা ঘটছে তা ভাল নয় ৷

    আমাদের উপরে এই সব দেখার জন্য অভিভাবকেরা রয়েছেন ৷ তাঁরা এ সম্পর্কে সঠিক সিদ্ধান্ত নেবেন ৷ আমরা তা জানি ৷ হ্যাঁ আলোচনার মধ্যে একটা বিষয় নিয়ে আমি একমত যে, অভিনেতা-অভিনেত্রীদের মাসের ১৫ তারিখের মধ্যে পারিশ্রমিক মিটিয়ে দেওয়ারা চাহিদাটা প্রচণ্ড সঙ্গত ৷ কেননা এটা আমাদের প্রফেশন ৷ এটা করেই আমরা সংসার চালাই ৷ আমাদের বাড়িতে তো ডোমেস্টিক হেল্পাররা রয়েছেন ৷ তাঁদেরও তো আমরা মাসের পয়লা তারিখের মধ্যে পারিশ্রমিক মিটিয়ে দিই ৷ আর আমরা যখন একটা মেগা সিরিয়ালে অভিনয় করতে আসি ৷ তখন সেটাও আমাদের কাজই ৷ তাই আমরাও এক্সপেক্ট করতে পারি যে, আমাদের পারিশ্রমিকও ১৫ তারিখের মধ্যে মিটিয়ে দেওয়া হবে ৷

    আর গত শনিবার থেকে শুটিং বন্ধ ৷ পাঁচদিন হয়ে গেল ৷ পুজোর সময় একমাত্র বড় একটা ছুটি পাওয়া যায় ৷ কিন্তু তাঁর আগেই এত বড় ছুটি ৷ আবার যেটাকে ছুটিও বলা যায় না ৷ খুব ভয়ে আছি ৷ এই মুহূর্তে ‘কুসুমদোলা’ ধারাবাহিকে অভিনয় করছি ৷ আর এই ধারাবাহিকটা আগামী রবিবারই অফ এয়ার হতে চলেছে ৷ আর তার আগে যদি শুটিং শুরু না হয়, তবে খুব খারাপ ব্যাপার হবে ৷ কেননা ধারাবাহিকের শেষটা দর্শকদের কাছে নয়তো পৌঁছনো যাবে না ৷ তাই আমি চাই, যত তাড়াতাড়ি সম্ভব শুটিং শুরু হোক ৷ এতে সবার ভাল হবে ৷

    অনুলিখন: অমৃত হালদার ৷

    First published: