Home /News /entertainment /

‘একদিন আমেরিকার প্রেসিডেন্ট হতে পারেন কমলা হ্যারিস’, ২০০৯ সালেই বলেছিলেন মল্লিকা শেরাওয়াত!

‘একদিন আমেরিকার প্রেসিডেন্ট হতে পারেন কমলা হ্যারিস’, ২০০৯ সালেই বলেছিলেন মল্লিকা শেরাওয়াত!

আমেরিকার প্রথম মহিলা ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসাবে নির্বাচিত কমলা হ্যারিস। এরকম কিছু হতে পারে তা ২০০৯ সালেই আভাস দিযেছিলেন অভিনেত্রী, দেখুন কেন এমন কথা বলেছিলেন মল্লিকা

  • Share this:

    #মুম্বই: ফলাফল ঘোষণার পর ২৪ ঘণ্টারও বেশি সময় কেটে গিয়েছে তবুও জো বাইডেন ও কমলা হ্যারিসকে নিয়ে বিশ্বজোড়া উচ্ছ্বাস যেন থামতেই চাইছে না ৷ আমেরিকার প্রথম মহিলা ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিসের সঙ্গে ভারতের যোগসূত্র যেন বাড়তি আনন্দ যুগিয়েছে ৷ শুভেচ্ছার বন্যায় ভাসছেন হ্যারিস ৷ এর মাঝেই সামনে এসেছে অবাক করা এক তথ্য ৷ প্রায় এক দশক আগেই মল্লিকা শেরাওয়াত বলেছিলেন-‘কোনও একদিন আমেরিকার প্রেসিডন্টও হতে পারেন কমলা হ্যারিস ৷’ শুভেচ্ছাবার্তার মাঝেই ভাইরাল মল্লিকার সেই ট্যুইট ৷

    ১১ বছর আগে ২০০৯ সালের ২৩ জুন কমলা হ্যারিসকে নিয়ে ট্যুইট করেন মল্লিকা ৷ লেখেন, ‘আজ একটা পার্টিতে একজন মহিলার সঙ্গে পরিচয় হল, নাম কমলা হ্যারিস ৷ ওরা বলছিল একদিন উনি আমেরিকার প্রেসিডেন্টও হতে পারেন ৷ নারীশক্তির জয় ৷’ মার্ডার অভিনেত্রীর এই ট্যুইটেই এখন মেতেছে নেটিজেনরা ৷

    আসলে ‘পলিটিক্স অফ লাভ’ সিনেমায় মল্লিকার অভিনীত চরিত্রটি বাস্তবে কমলা হ্যারিসের জীবন থেকে খানিকটা অনুপ্রাণিত ছিল ৷ সেই সূত্রেই কমলা হ্যারিসের সঙ্গে সেসময় দেখা করেছিলেন মল্লিকা ৷ ২০০৯ সালে তখন কমলা হ্যারিস ছিলেন সান ফ্রান্সিসকোর অ্যাটর্নি জেনারেল ৷ তাঁর মেধা, দক্ষতা ও স্কিলের কারণে তার মধ্যে তখনই আমেরিকা দেখতে পেয়েছিল ভবিষ্যতের দেশনেতার ঝলক ৷ তাই মল্লিকা শেরাওয়াতের সঙ্গে কমলা হ্যারিসের পরিচয়পর্বেও উঠে এসেছিল সেই বক্তব্য ৷

    প্রায় ৯০ ঘণ্টা, টানা ৪ দিনের অপেক্ষা ও টানটান উত্তেজনা শেষে, আইনি লড়াই, হুমকি, বিক্ষোভ আর জটিলতা কাটিয়ে স্পষ্ট হল প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ফলাফল। আমেরিকার প্রথম মহিলা ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসাবে নির্বাচিত কমলা হ্যারিস। প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ। প্রথম ভারতীয়। প্রথম মহিলা। শনিবার মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হয়ে অনেকগুলি রেকর্ড গড়ে ফেললেন কমলা হ্যারিস। জো বাইডেনের জয়ের সঙ্গে সঙ্গেই ওয়াশিংটনের পাওয়ার করিডরে ঢুকে পড়লেন ভারতীয় কমলা। অন্যদিকে, ডোনাল্ড ট্রাম্পকে অনেকটা পিছনে ফেলে জয় ছিনিয়ে নিয়েছেন জো বাইডেন। আমেরিকায় ৪৬ তম প্রেসিডেন্ট হিসাবে নির্বাচিত ৭৭ বয়সী ডেমোক্র্যাট, জো বাইডেন। মার্কিন ইতিহাসে সবথেকে বয়স্ক দেশনেতা তিনিই ৷

    ট্যুইটে অভিনেত্রী মল্লিকা যে আশা প্রকাশ করেছেন, তা অদূর ভবিষ্যতে বাস্তবায়ন অসম্ভব কিছু না ৷ কারণ, ভোটপ্রচারে নেমে ৭৮ বছরের জো বাইডেন বারেবারে ইঙ্গিত দিয়েছেন, তিনি এক দফাই প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব সামলাবেন। অর্থাৎ ২০২৪-এর প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডেমোক্র্যাট প্রার্থী হওয়ার দৌড়ে এগিয়ে থাকবেন কমলাই। সেক্ষেত্রে চারবছর পরেও সাফল্য ধরে রাখলে, হোয়াইট হাউসের বাসিন্দা হবেন ভারতীয় কমলা। উল্লেখ্য, চলতি নির্বাচনেই প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থীর দৌড়ে ছিলেন কমলা ৷ অন্যদের মতো ধনী নন। তাই মাঝপথেই প্রেসিডেন্ট পদের দৌড় থেকে নিজেকে সরিয়ে নেন। তবে প্রথম ইন্দো-মার্কিন মহিলা প্রেসিডেন্ট হিসাবে হোয়াইট হাউসে ঢোকার প্রথম ধাপটা ভালমতোই পেরিয়ে এলেন কমলা হ্যারিস।

    বাইডেন-কমলার জয়ের পর বিভিন্ন দিক থেকে ভেসে আসতে থাকে শুভেচ্ছাবার্তা, ওবামা থেকে বরিস জনসন, মোদি থেকে মমতা, স্বরা ভাস্কর থেকে প্রিয়াঙ্কা চোপড়া নতুন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ও ভাইস প্রেসিডেন্টকে শুভেচ্ছা জানান সকলেই ৷ সবের মাঝেই এখন সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্রেন্ডিং মল্লিকার ১১ বছরের পুরনো ট্যুইট ৷

    Published by:Elina Datta
    First published:

    Tags: Kamala Harris, Mallika Sherawat, US Election 2020, US Election 2020 Result

    পরবর্তী খবর