‘আর কত বড় হলে আরাধ্যার হাতটা ছাড়বেন?’ সোশ্যাল মিডিয়ায় ব্যাপক ট্রোলড ঐশ্বর্য

বিমানবন্দরের মধ্যেও আরাধ্যার হাত শহক্ত করে ধরে রেখেছেন ঐশ্বর্য । এমনকি গাড়িতে ওঠার আগে পর্যন্ত আরাধ্যা এক মুহূর্তের জন্যও ছাড়েননি তিনি।

বিমানবন্দরের মধ্যেও আরাধ্যার হাত শহক্ত করে ধরে রেখেছেন ঐশ্বর্য । এমনকি গাড়িতে ওঠার আগে পর্যন্ত আরাধ্যা এক মুহূর্তের জন্যও ছাড়েননি তিনি।

  • Share this:

    #চেন্নাই: মেয়েকে প্রায় কখনওই কাছছাড়া করেন না ঐশ্বর্য রাই বচ্চন ৷ বা বলা ভাল হাতছাড়া করেন না ৷ যেখানেই যান না কেন সঙ্গে থাকে ৭ বছরের মেয়ে আরাধ্যা ৷ কিন্তু অদ্ভুত বিষয় হল, কখনও তার হাতটা ছাড়েন না রাই সুন্দরী ৷ মেয়ে যথেষ্ট বড় হয়েছে ৷ এখনও তাকে হাত ধরে নিয়ে চলার কী অর্থ? এমনটাই প্রশ্ন তুলেছেন নেটিজেনরা ৷ একটা সময় পর্যন্ত আরাধ্যাকে কোল থেকে নামাতেন না ঐশ্বর্য ৷ যেখানেই যেতেন তাকে কোলে করে নিয়ে যেতেন ৷ সে সময়ও অতিরিক্ত সাবধানী হওয়ায় ট্রোলড হতে হয়েছিল বচ্চন-বহুকে । তখন নায়িকা বলেছিলেন, পাপারাৎজিদের দেখে ভয় পায় তাঁর মেয়ে ৷ অপ্রস্তুত হয়ে পড়ে ৷ কোল থেকে নামতে চায় না ৷

    এখন অবশ্য সেই খুদে অনেক বড় হয়েছে ৷ সাংবাদিকদের ঘেরাটোপে এখন অনেক অভ্যস্ত আরাধ্যা ৷ কিন্তু মা হাত ছাড়ে না তার ৷ নেটিজেনরা ঐশ্বর্যর এমন কাণ্ড দেখে কেউ বলেছেন, ‘সবসময় আরাধ্যার হাতের পজিশন এইরকমই থাকে ৷ আশা করি, যেন তার কাঁধে যন্ত্রণা না হয় ৷’ কেউ আবার বলেছেন, ‘অ্যাশের উচিত এ বার আরাধ্যার থেকে নিজের অ্যাম্বলিকাল কর্ডটা কাটা ৷’ কেউ বলেছেন, ‘প্লিজ, ফর গড সেক ওর হাতটা এবার আপনি ছাড়ুন ৷’ ‘প্লিজ ওকে একটু একা স্বাধীনভাবে হাঁটাচলা করতে দিন ৷’ ‘এ বার ওর হাতটা ছাড়ুন ৷ এখন আর আরাধ্যা ৩ বছরের মেয়ে নয় ৷’

    সম্প্রতি অ্যাশ, অভিষেক এবং আরাধ্যাকে দেখা গিয়েছে চেন্নাই বিমানবন্দরে । চেন্নাইয়ে মণিরত্নমের ছবিতে অভিনয় করছেন রাই সুন্দরী । সেই ছবির শ্যুটিংয়ে চেন্নাই গিয়েছিলেন তিনি । স্ত্রী’কে সঙ্গ দিতে সেখানে কয়েকদিন ছিলেন অভিষেকও । সঙ্গে ছিল আরাধ্যাও । শ্যুটিং সেরে মুম্বই ফেরার সময় পাপারাৎজিদের ক্যামেরায় ধরা পড়ে বচ্চন পরিবার । সেখানেই দেখা যাচ্ছে, কীভাবে বিমানবন্দরের মধ্যেও আরাধ্যার হাত শহক্ত করে ধরে রেখেছেন ঐশ্বর্য । এমনকি গাড়িতে ওঠার আগে পর্যন্ত আরাধ্যা এক মুহূর্তের জন্যও ছাড়েননি তিনি ।

    এই ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হতেই ট্রোলিং শুরু করেন নেটিজেনরা । কেউ লেখেন, ‘পজেজিভ মাদার’, কেউ লেখেন, ‘আর কত বড় হলে আরাধ্যার হাত ধরা বন্ধ করবেন ঐশ্বর্য’, কেউ লেখেন, ‘সম্ভবত আরাধ্যার হাঁটাচলার জন্য যথেষ্ট নয় বিমানবন্দরের রাস্তা ।’

    Published by:Simli Raha
    First published: