Home /News /crime /
শুধু কি মধুচক্রের আসর ? নাকি ভিন রাজ্য থেকে এ শহরে অন্য কোনও মতলবে ? তদন্তে পুলিশ

শুধু কি মধুচক্রের আসর ? নাকি ভিন রাজ্য থেকে এ শহরে অন্য কোনও মতলবে ? তদন্তে পুলিশ

Representational Image

Representational Image

  • Share this:

    Venkateswar Lahiri

    #কলকাতা: গোয়েন্দাদের পাতা ফাঁদে রবিবারই শহরে বড়সড় মধুচক্রের আসরের সন্ধান মিলেছে। কলকাতা পুলিশ ও অ্যান্টি হিউম্যান ট্রাফিকিং ইউনিটের তরফে যৌথ অভিযান হয়। গোয়েন্দাদের কাছে খবর ছিল, শহরের বিভিন্ন প্রান্তে স্পা এবং কল সেন্টারের আড়ালে রমরমিয়ে চলছে মধুচক্রের আসর। এর পরে গোপন সূত্রে খবর পেয়ে শহরের চারটি জায়গায় হানা দেওয়া হয়। পর্দাফাঁস হয় আসরের।

    ১. প্রিন্স আনোয়ার শাহ রোড এলাকা থেকে ৮ জনকে গ্রেফতার করা হয়, ৭ জন যৌনকর্মীকে ছেড়ে দেওয়া হয়।

    ২. ভবানীপুর এলাকায় ৯ জন ক্রেতা ও ১০ জন যৌনকর্মী, একজন ম্যানেজার ও দুই সহযোগীকে পাওয়া যায়। সমস্ত যৌনকর্মীকে ছেড়ে দেওয়া হয়।

    ৩. গড়িয়াহাটের রাসবিহারী অ্যাভিনিউতে দু’জন ক্রেতা, মালিক ও ম্যানেজারকে গ্রেফতার করা হয়। ৬ জন যৌনকর্মীকে ছেড়ে দেওয়া হয় ৷

    ৪. মির্জা গালিব স্ট্রিটের একটি পার্লার থেকে গ্রেফতার করা হয় ম্যানেজার, ২ জন সহযোগী এবং তিনজন ক্রেতাকে। ৬ জন যৌনকর্মীকে ছেড়ে দেওয়া হয়।

    সব মিলিয়ে ৩০ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তবে আদালতের এক সাম্প্রতিক রায়ের পরিপ্রেক্ষিতে সমস্ত যৌনকর্মীকে শারীরিক পরীক্ষা করার পর ছেড়ে দেওয়া হয়। চারটি এলাকার অন্তর্ভুক্ত থানায় অভিযোগ করে নিদিষ্ট ধারা প্রয়োগ করা হয়েছে। ধৃতদের কাছ থেকে বেশ কয়েকটি মোটরবাইক এবং মোবাইল বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। উদ্ধার হয়েছে বেশ কয়েক হাজার টাকাও। ধৃতদের মধ্যে ভিন রাজ্যের যুবকরাও রয়েছে। তবে কি কারণে ভিন রাজ্য থেকে শহরে আসা ? শুধু কি মধুচক্রের আসরে আসা, নাকি শহরে অন্য কোনও মতলবে? উত্তর খুঁজছে তদন্তকারীরা। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, এই সমস্ত মধুচক্রের আসরে নিয়মিত যাতায়াত ছিল কুখ্যাত সমাজবিরোধীদেরও। পুলিশ জানতে পেরেছে শহরের বিভিন্ন প্রান্তে আরো এই ধরনের বেশ কিছু মধুচক্রের আসর চলছে। শীঘ্রই সেখানেও অভিযানে নামবে কলকাতা পুলিশের স্পেশ্যাল টিম বলে সূত্রের খবর।

    First published:

    Tags: Honey Trapped, Human Trafficking

    পরবর্তী খবর