সোশ্যাল ডিস্টেন্সিংকে বুড়ো আঙুল! এই আয়ুর্বেদিক ওষুধেই নাকি করোনা হবে দূর, কেনার জন্য ঝাঁপিয়ে পড়লেন শয়ে শয়ে মানুষ!

Photo Courtesy: ANI

ওই ব্যক্তির ‘করোনার ওষুধ’-কে আবার সেখানকার জেলাশাসক এবং কিছু আয়ুর্বেদিক ডাক্তাররাও ঠিকঠাক বলে দাবি করেন ৷

  • Share this:

    নেল্লোর: এ দেশে কী না সম্ভব ৷ বিশ্বাস মানুষকে কোন পর্যায় নিয়ে যেতে পারে, তার একটা অদ্ভূত উদাহরণ সম্প্রতি দেখা গেল অন্ধ্র প্রদেশের নেল্লোর জেলার কৃষ্ণাপটনম গ্রামে ৷ যেখানে এক ব্যক্তিকে দেখা গেল বাজারে বসে একটি আয়ুর্বেদিক ওষুধ সবাইকে প্রদান করছেন ৷ সঙ্গে চোখের ড্রপ ৷ এগুলি নিলেই নাকি করোনার থেকে কোনও ভয় নেই ৷ অর্থাৎ ভ্যাকসিন, রেমডেসিভির সব ফেল, করোনা থেকে বাঁচতে বা আক্রান্ত হলেও সুস্থ হওয়ার উপায় নাকি এই আয়ুর্বেদিক ওষুধ ও চোখের ড্রপই !

    এই ওষুধটি কেনার জন্য একেবারে হিড়িক পড়ে যায় গ্রামের মানুষদের মধ্যে ৷ এই করোনাকালেও সোশ্যাল ডিস্ট্যান্সিংয়ের তোয়াক্কা না করেই শয়ে শয়ে মানুষ লাইন দিলেন শুধুমাত্র ওই ওষুধ কিনবেন বলে ৷ এমনকি, ওই লাইনে দাঁড়ালেন করোনা আক্রান্তরাও !

    ওই ব্যক্তির ‘করোনার ওষুধ’-কে আবার সেখানকার জেলাশাসক এবং কিছু আয়ুর্বেদিক ডাক্তাররাও ঠিকঠাক বলে দাবি করেন ৷ কারণ তাঁদের মতে, এটি হার্বাল জিনিস দিয়ে তৈরি ৷ তাই এতে কোনও সাইড এফেক্ট নেই ৷’’ এই শুনে অনেক উৎসাহের সঙ্গেই গ্রামের মানুষরা সবাই মিলে ঝাঁপিয়ে পড়েন ওষুধটি কেনার জন্য ৷ ওষুধটির কয়েকটি স্যাম্পল অবশ্য হায়দরাবাদের আয়ুষ ল্যাবরেটারিতে পরীক্ষা করার জন্য পাঠানো হয়েছে ৷

    অন্ধ্র প্রদেশে করোনার পাশাপাশি ব্ল্যাক ফাঙ্গাস বা মিউকরমাইকোসিসে আক্রান্তের সংখ্যাও এখন বাড়ছে ৷ নেল্লোর, কৃষ্ণা, পশ্চিম গোদাবরী, বিশাখাপত্তনম, চিতুর এবং অনন্তপুরের মতো অনেক জায়গাতেই এই ছত্রাক রোগে আক্রান্তের হদিশ পাওয়া গিয়েছে ৷

    Published by:Siddhartha Sarkar
    First published: