• Home
  • »
  • News
  • »
  • coronavirus-latest-news
  • »
  • লক ডাউন অমান্যকারীদের বাধা, ক্ষোভে তলোয়ারের কোপ, খসে পড়ল পুলিশের হাত

লক ডাউন অমান্যকারীদের বাধা, ক্ষোভে তলোয়ারের কোপ, খসে পড়ল পুলিশের হাত

পাতিয়ালায় পুলিশকর্মীর হাত কেটে নেয় দুষ্কৃতীরা৷ PHOTO- FILE

পাতিয়ালায় পুলিশকর্মীর হাত কেটে নেয় দুষ্কৃতীরা৷ PHOTO- FILE

লক ডাউন না মেনে বাইরে বেরিয়ে পড়েছিল। বাধা দিয়েছিল পুলিশ। তার জেরে পুলিশ তলোয়ারের কোপে অফিসারের হাত কেটে দিল দুষ্কৃতীরা।

  • Share this:

    #পাতিয়ালাঃ লক ডাউন না মেনে বাইরে বেরিয়ে পড়েছিল দল বেঁধে। বাধা দিয়েছিল পুলিশ। তার জেরে তলোয়ারের কোপে অফিসারের হাত কেটে দিল দুষ্কৃতীরা। রবিবার এই ঘটনা ঘটেছে পঞ্জাবের পটিয়ালায়র এক সবজি মান্ডিতে। আচমকা হামলার জেরে আহত হয়েছেন আরও ২ পুলিশকর্মী।

    রবিবার সকাল সওয়া ছ’টা নাগাদ এই ঘটনা ঘটেছে পাঞ্জাবের পাতিয়ালা জেলার সানউর সবজি মান্ডিতে। এদিন সকালে পটিয়ালার ওই মান্ডি খোলার পর থেকেই সেখানে ভিড় জমছিল। খবর পেয়ে সেই মানদই বন্ধ করতে আসে পালিয়ালা পুলিশ। দলে ছিলেন পঞ্জাব পুলিশের অ্যাসিস্ট্যান্ট সাব ইন্সপেক্টর হরজিৎ সিংহ। তাঁর উপর তলোয়ার নিয়ে চড়াও হয় হামলাকারীদের এক জন। মুহূর্তে রণক্ষেত্রের চেহারা নেয় এলাকা। হাতে কোপ পড়া পুলিশ অফিসারকে প্রথমে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে তাঁকে চণ্ডীগড়ের পিজিআইএমইআর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানেই তাঁর অস্ত্রোপচার হয়েছে বলে জানিয়েছেন পাতিয়ালার পুলিশ সুপার মনদীপ সিং সিধু।

    এদিনের হামলায় আহত হয়েছেন আরও দুই পুলিশ আধিকারিক। পুলিশ জানিয়েছে, লক ডাউন ঠিকমতো মানা হচ্ছে কি না তা খতিয়ে দেখার সময়ই পুলিশের উপরে হামলা চালায় দুষ্কৃতীরা। পঞ্জাব পুলিশের মুখ্য দিঙ্কর গুপ্ত ট্যুইট করে লিখছেন, 'পুলিশ অফিসারদের পাশাপাশি নিহাঙ্গদের ওই দলেরও কয়েকজন গুরুতর আহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন পাটিয়ালার ওই সবজি মান্ডির বোর্ডের এক কর্তা।' ঘটনার সময়ের যে ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়েছে তাতে দেখা যাচ্ছে, পটিয়ালার ওই সব্জি মাণ্ডি গার্ড রেল দিয়ে ঘিরছিল পুলিশ। ঠিক সেই সময়েই একটি গাড়ি গার্ড রেলকে ধাক্কা মেরে এগিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। ভিডিয়োয় দেখা যাচ্ছে, পুলিশকর্মীরা যখন ওই গাড়িটিকে আটকানোর চেষ্টা করছেন ঠিক সেই সময়েই হরজিৎ সিংহের দিকে তলোয়ার নিয়ে তেড়ে আসেন এক ব্যক্তি। হরজিৎ আক্রমণের হাত থেকে বাঁচার চেষ্টা করলেও নিজেকে রক্ষা করতে পারেননি। সরাসরি তাঁর হাতে কোপ বসায় ওই দুষ্কৃতী।

    এদিকে ঘটনায় অভিযুক্ত সাত দুষ্কৃতীকে গ্রেফতার করার পরই পঞ্জাবের স্পেশ্যাল চিফ সেক্রেটারি কেবিএস সিন্ধু বলছেন, "বালবেরার একটি গুরুদ্বার থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে ওই সাতজন নিহাঙ্গ শিখকে। এদের মধ্যে একজন পুলিশের গুলিতে আহত। তাকে হাসপাতালেও ভর্তি করা হয়েছে।"

    Published by:Shubhagata Dey
    First published: