corona virus btn
corona virus btn
Loading

করোনা আতঙ্কে যে কেউ মুড়ি-মুড়কির মত খেতে পারবেন না হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন, কড়া নির্দেশিকা জারি স্বাস্থ্য দফতরের

করোনা আতঙ্কে যে কেউ মুড়ি-মুড়কির মত খেতে পারবেন না হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন, কড়া নির্দেশিকা জারি স্বাস্থ্য দফতরের

কোনও ওষুধের দোকান রেজিস্টার্ড চিকিৎসকের প্রেসক্রিপশন ছাড়া হাইড্রক্সি-ক্লোরোকুইন বিক্রি করতে পারবে না।

  • Share this:

#কলকাতাঃ প্রাণঘাতী নোভেল করোনাভাইরাস ঠেকাতে সারা বিশ্বে নানা গবেষণা চলছে। প্রথম সারির বৈজ্ঞানিকদের কালঘাম ছুটে যাচ্ছে এই ভাইরাসের প্রতিষেধক আবিষ্কার করতে। এরই মাঝে বিশ্বের বেশ কয়েকজন চিকিৎসক জানান ম্যালেরিয়া প্রতিষেধক হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন ওষুধ অনেক করোনা আক্রান্ত রোগীর ক্ষেত্রেই অত্যন্ত উপকারী। ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অব মেডিক্যাল রিসার্চ (ICMR) জানায়, করোনা চিকিৎসার ক্ষেত্রে এই হাইড্রক্সি-ক্লোরোকুইন অনেকটাই উপযোগী। এরপরই গোটা দেশজুড়ে হিড়িক পড়ে যায় ওষুধ কেনার জন্য। বিভিন্ন ওষুধের দোকানে এই ওষুধের স্টকও কমে যায়। হাইড্রক্সি-ক্লোরোকুইন ওষুধের মাত্রাছাড়া কেনার জন্য দেশের বিভিন্ন প্রান্তে কয়েকজনের মৃত্যুর খবরও পাওয়া গিয়েছে। যদিও ICMR (ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অব মেডিক্যাল রিসার্চ) রীতিমত নির্দেশিকা দিয়ে জানায়, কোনও ওষুধের দোকান রেজিস্টার্ড চিকিৎসকের প্রেসক্রিপশন ছাড়া হাইড্রক্সি-ক্লোরোকুইন বিক্রি করতে পারবে না। এমনকি এই ওষুধ বিক্রি করলেও তার সমস্ত তথ্য জমা রাখতে হবে এবং তা প্রতিনিয়ত স্বাস্থ্যদফতরের কাছে জমা দিতে হবে।

Order_COVID-19_139_prophylaxisHydroxy_cloroquine

এ রাজ্যেও হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন ওষুধ মাত্রাছাড়া বিক্রি শুরু হয়ে যায়। ফলে প্রজন থাকলে বহু জায়গায় মিলছে না ওষুধ। এরপর  শুক্রবার রাজ্য স্বাস্থ্য দফতর রীতিমত নির্দেশিকা জারি করে জানিয়েছে...

*যে সমস্ত চিকিৎসক, নার্স, স্বাস্থ্যকর্মী, সাফাইকর্মী সরাসরি কোনও করোনা আক্রান্ত সন্দেহে চিকিৎসাধীন ব্যক্তির সংস্পর্শে আসে বা করোনা আক্রান্ত বা পজিটিভ ব্যক্তির সংস্পর্শে আসে, তাঁদের ক্ষেত্রে এই হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন ওষুধ খাওয়া যেতে পারে। তবে তাঁদের ক্ষেত্রে প্রথম দিন এই ওষুধ দুটো করে এবং পরের ৭ সপ্তাহে ১টি করে খেতে হবে।

*যে সমস্ত করোনা পজিটিভ বা করোনা আক্রান্ত ব্যক্তির পরিবার অর্থাৎ বাড়ির লোক, তাঁরা এই হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন ওষুধ খেতে পারবে। তাঁদের ক্ষেত্রে প্রথম দিন এই ওষুধ দুটো এবং তারপর পরের তিন সপ্তাহের প্রতি সপ্তাহে ১ টি করে ওষুধ খেতে হবে।

ফলে, মানুষ যাতে যথেচ্ছ হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন না খায়, তার জন্য রাজ্য স্বাস্থ্য দফতর এই বিশেষ নির্দেশিকা জারি করেছে। একদিকে এই ওষুধ বাতের ব্যথা নিরাময়ের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। ফলে মানুষ অকারণে যদি এই ওষুধ কেনে, তবে বাজারে ওষুধের অভাব দেখা দেবে। এমনকি এই ওষুধ সাধারণ মানুষ খেলে হীতে বিপরীতও হতে পারে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য দফতরের আধিকারিকরা।

ABHIJIT CHANDA

Published by: Shubhagata Dey
First published: April 10, 2020, 8:26 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर