corona virus btn
corona virus btn
Loading

এবার মিটবে সমস্যা, চিকিৎসা পরিষেবার জন্য শহরে নামছে ২০০ অ্যাপ ক্যাব 

এবার মিটবে সমস্যা, চিকিৎসা পরিষেবার জন্য শহরে নামছে ২০০ অ্যাপ ক্যাব 

কলকাতা পুলিশের বিশেষ কন্ট্রোল রুমে ১০৭৩ নাম্বারে ফোন করে জরুরি পরিষেবার জন্য বুকিং করতে পারা যায় ট্যাক্সিগুলি।

  • Share this:

ABIR GHOSHAL

#কলকাতা: কথা মতোই কাজ। বুধবার থেকে কলকাতার অ্যাপ ক্যাব সংগঠনের উদ্যোগে শহরে চালু হয়ে গেল বিশেষ ট্যাক্সি পরিষেবা। আগামীদিনে জরুরি পরিষেবার জন্য ট্যাক্সি দিতে প্রস্তুত রাজ্যের অন্যতম বৃহৎ ট্যাক্সি সংগঠন অনলাইন ক্যাব অপারেটর গিল্ড । গত দুই সপ্তাহ আগে থেকেই কলকাতা শহরের রাস্তায় দেখা মিলছে ট্যাক্সির। বেশিরভাগই নীল-সাদা ট্যাক্সি। তবে অনেক জায়গায় চলতে দেখা গেছে হলুদ ট্যাক্সিও। অনলাইন ক্যাব অপারেটর গিল্ড সিদ্ধান্ত নিয়েছে, শহরে শুধুমাত্র আপৎকালীন পরিস্থিতিতে মেডিকেল সংক্রান্ত কাজে চালানো হবে ক্যাব ট্যাক্সি। প্রায় ২০০ ট্যাক্সি থাকবে শহরের রাস্তায়। স্যানিটাইজ ক্যাব চালানো হবে।

প্রতি থানা এলাকাতেই এই ক্যাব দেওয়া থাকবে। ক্যাব অপারেটর গিল্ড নেতা ইন্দ্রনীল বন্দোপাধ্যায় জানাচ্ছেন, "অনেকেই ডায়ালিসিস, কেমো'র মতে জরুরি কাজে হাসপাতালে যাচ্ছেন। কিন্তু কোনও গাড়ি যাতায়াতের মাধ্যম হিসেবে মিলছে না। তাই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে আমরা শুধুমাত্র মেডিকেল কারণে গাড়ি দেব।" সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে, আপাতত গাড়ি যখন লাগবে তার ৩০ মিনিট আগে ডিটেইলস আমাদের জানাতে হবে। সেই অনুযায়ী আমরা থানার সাথে কথা বলে গাড়ির প্রয়োজনীয়তা জেনে নেব। তারপর আমরা গাড়ি দেব। চালক সহ চারজন থাকতে পারবেন গাড়িতে। ভাড়া নেওয়া হবে সাধারণ ট্যাক্সির মতোই। আপাতত শহরের ৫ পয়েন্ট থেকে মিলছে হলুদ ট্যাক্সি।

উত্তরের হাডকো মোড় ও শ্যামবাজার। দক্ষিণের বেহালা চৌরাস্তা ও গড়িয়া। মধ্য কলকাতার এক্সাইড মোড় থেকে পাওয়া যাচ্ছে এই ট্যাক্সি। কলকাতা পুলিশের বিশেষ কন্ট্রোল রুমে ১০৭৩ নাম্বারে ফোন করে জরুরি পরিষেবার জন্য বুকিং করতে পারা যায় ট্যাক্সিগুলি। এর পাশাপাশি যদি মানুষের জরুরি পরিষেবায় শহর থেকে শহরতলি বা অন্যত্র যাওয়ার জন্য ট্যাক্সি প্রয়োজন হয় তার জন্যে ট্যাক্সি দেবে বিটিএ। তাঁদের অফিসের জন্য দু’টি জরুরি পরিষেবার জন্য নম্বর ঠিক করা হয়েছে। নম্বর দু’টি হল ৯৮৩১৩৩৪৮২৪ ও ৯৩৩৯০৫৩৬০৫...ট্যাক্সি অ্যাসোসিয়েশনের বক্তব্য এই দুই নম্বরে ফোন করলে মিলবে গাড়ি। তবে কেন, কোন জরুরি কাজের জন্য তিনি ট্যাক্সি ভাড়া নিচ্ছেন তা জানাতে হবে। যদি মনে হয় সত্যিই জরুরি কাজে ট্যাক্সি নিচ্ছেন তাহলেই ট্যাক্সি দেওয়া হবে।

বিটিএ'র সম্পাদক বিমল গুহ জানান, "আমরা রাজ্য সরকারকে সম্পূর্ণ সাহায্য করতে চাই। সরকারি উদ্যোগে ট্যাক্সি চলছে। তার পরেও প্রয়োজন হলে আমরা পুলিশের থেকে যথাযথ অনুমতি নিয়ে গাড়ি দিতে পারি।" তবে যে সব ট্যাক্সি রাস্তায় নামবে তাদের সবক’টি ট্যাক্সি যথাযথ স্যানিটাইজ করা হচ্ছে। ভবানীপুর এলাকার পদ্মপুকুরের গ্যারেজে থাকছে এই ট্যাক্সিগুলি। সেগুলিকে রাস্তায় নামানোর আগে পুরোপুরি স্যানিটাইজ করা হচ্ছে। চালকের স্বাস্থ্য সংক্রান্ত রিপোর্ট যাচাই করা হচ্ছে। এমনকি যাত্রীর স্বাস্থ্য সংক্রান্ত রিপোর্ট দেখে নিতে চাইছেন ট্যাক্সি চালকরা। এছাড়া গ্লাভস, মাস্ক ও স্যানিটাইজার থাকছে গাড়িগুলিতে। অনলাইন ক্যাব অপারেটর গিল্ড ইতিমধ্যেই রাজ্য পরিবহন দফতরের কাছে আগেই ২০০ ট্যাক্সি বা ক্যাবের তালিকা পাঠিয়ে দিয়েছিল। আগামী দিনে প্রয়োজন হলে এই সমস্ত গাড়িও ব্যবহার করা হবে বলে জানানো হয়েছিল।

এই গাড়িগুলি সংক্রান্ত যাবতীয় তথ্য নিয়ে ডেটাবেস তৈরি করে ফেলেছিল রাজ্য পরিবহন দফতর। গিল্ডের সাধারণ সম্পাদক ইন্দ্রনীল বন্দোপাধ্যায় জানান, "আমাদের সবক’টি গাড়ি সারাবছর পরিষ্কার থাকে। গাড়িগুলি জীবাণুনাশক করা আছে। ফলে এই সব গাড়ি ব্যবহারের যোগ্য।" আগামী ৩ মে অবধি দেশে লকডাউন ঘোষণা করেছে সরকার। তার মধ্যে ট্যাক্সির চাহিদা হলে প্রস্তুত থাকছে সব পক্ষই।

Published by: Simli Raha
First published: April 22, 2020, 5:11 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर