বয়স ১২০, করোনার টিকা নিয়ে গোটা বিশ্বে নজির কাশ্মীরের ঢোলি দেবীর

১২০ বছর বয়সে টিকা নিলেন ঢোলি দেবী, দাবি জম্মু কাশ্মীরের স্বাস্থ্য দফতরের৷

বিশ্বের প্রবীণতম মানুষ হিসেবে তিনি করোনা ভাইরাসের টিকা (Coronavirus Vaccine) নিয়েছেন বলে দাবি জম্মু কাশ্মীরের স্বাস্থ্য দফতরের৷

  • Share this:

    #জম্মু: বয়স ১২০ বছর৷ জম্মু কাশ্মীরের উধমপুর জেলার বসন্তগড় ব্লকের প্রত্যন্ত গ্রাম ঘর কথার বাসিন্দা এক বৃদ্ধাই এখন দেশে করোনার বিরুদ্ধে যুদ্ধে অন্যতম অনুপ্রেরণা৷ কারণ ১২০ বছর বয়সে করোনা প্রতিষেধকের প্রথম ডোজটি নিয়েছেন ঢোলি দেবী৷ সম্ভবত বিশ্বের প্রবীণতম গ্রহীতা হিসেবে করোনার ভ্যাকসিন নিলেন তিনি৷

    জম্মু কাশ্মীরের স্বাস্থ্য দফতরের এক আধিকারিক এ দিন জানিয়েছেন, গতকাল, সোমবার বিকেলে ওই প্রত্যন্ত গ্রামে করোনার টিকাকরণ অভিযান চলার সময় ১২০ বছরের ঢোলি দেবীকে কোভিশিল্ড ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজ দেওয়া হয়৷ ওই আধিকারিক আরও জানিয়েছেন, শুধু প্রথম ডোজ নয়, টিকার দ্বিতীয় ডোজ নেওয়ার বিষয়েও দারুণ উৎসাহী শতায়ু এই বৃদ্ধা৷

    নিজের প্রায় গোটা জীবনটাই ঘর কথা গ্রামের এই প্রত্যন্ত এলাকায় কাটিয়েছেন ঢোলি দেবী৷ তাঁর চোখের সামনে বেড়ে উঠেছে একের পর এক প্রজন্ম৷ ওই মোবাইল ক্যাম্প থেকেই ঢোলি দেবীর পরিবারের ৪৫ বছরের ঊর্ধ্বে আরও ৯ জন সদস্যকে ভ্যাকসিন দেওয়া হয়েছে৷ রাজ্যের স্বাস্থ্য দফতরের আধিকারিকরা বলছেন, যাঁদের মনে এখনও ভ্যাকসিন নেওয়া নিয়ে সংশয় রয়েছে, তাঁদের সামনে রোল মডেল হয়ে উঠতে পারেন ঢোলি দেবী৷

    জম্মু কাশ্মীরের প্রত্যন্ত যে এলাকাগুলিতে ইন্টারনেট সংযোগ নেই এবং কীভাবে কো- উইন পোর্টাল বা অ্যাপ ব্যবহার করতে হবে মানুষ জানেন না, সেখানে মোবাইল ক্যাম্প করে টিকাকরণের উদ্যোগ নিয়েছে রাজ্যের স্বাস্থ্য দফতর৷ এক আধিকারিক জানিয়েছেন, 'জম্মু কাশ্মীরের প্রত্যন্ত এলাকাগুলিতে গিয়ে মানুষকে কো- উইন পোর্টালে টিকা নেওয়ার জন্য নাম নথিভুক্ত করতে সাহায্য করছেন আমাদের কর্মীরা৷ টিকা নেওয়া পর্যন্ত গোটা প্রক্রিয়ার দায়িত্বই নিচ্ছেন স্বাস্থ্য দফতরের কর্মীরা৷' তবে গোটা দেশের মতো ভ্যাকসিনের অভাবে ভুগছে জম্মু কাশ্মীরও৷ ফলে টিকাকরণের গতি থমকে যাচ্ছে বলে অভিযোগ৷

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published: