Home /News /business /
রাজ্যসভায় পাস রিয়েল এস্টেট বিল, কী পরিবর্তন আসছে রিয়েল এস্টেট ব্যবসায়?

রাজ্যসভায় পাস রিয়েল এস্টেট বিল, কী পরিবর্তন আসছে রিয়েল এস্টেট ব্যবসায়?

বৃহস্পতিবার রাজ্য সভায় পাস হয়ে গেল বহু প্রতীক্ষিত রিয়েল এস্টেট বিল ৷ নতুন বাড়ি কিনতে ইচ্ছুক মানুষদের স্বার্থ রক্ষার্থে এই বিল একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নেবে ৷ একই সঙ্গে রিয়েল এস্টেট ব্যবসা থেকে দুর্নীতিকেও দূর করা সম্ভব হবে ৷ এই বিলটি রাজ্যসভায় পাস হওয়ার খবরে খুশি হয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি জানালেন, ‘নতুন বাড়ির ক্রেতাদের জন্য এটা খুব খুশির খবর ৷’ রাজ্যসভার পর এবার আগামী সোমবার লোকসভায় রিয়েল এস্টেট বিলটি উত্থাপন করার হবে বলে জানানো হয়েছে ৷ কিন্তু এই বিল পাস হলে রিয়েল এস্টেট ব্যবসায় কী কী পরিবর্তন আসতে চলেছেন দেখে নিন এক ঝলকে,

আরও পড়ুন...
  • Pradesh18
  • Last Updated :
  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: বৃহস্পতিবার রাজ্য সভায় পাস হয়ে গেল বহু প্রতীক্ষিত রিয়েল এস্টেট বিল ৷ নতুন বাড়ি কিনতে ইচ্ছুক মানুষদের স্বার্থ রক্ষার্থে এই বিল একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নেবে ৷ একই সঙ্গে রিয়েল এস্টেট ব্যবসা থেকে দুর্নীতিকেও দূর করা সম্ভব হবে ৷ এই বিলটি রাজ্যসভায় পাস হওয়ার খবরে খুশি হয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি জানালেন, ‘নতুন বাড়ির ক্রেতাদের জন্য এটা খুব খুশির খবর ৷’ রাজ্যসভার পর এবার আগামী সোমবার লোকসভায় রিয়েল এস্টেট বিলটি উত্থাপন করার হবে বলে জানানো হয়েছে ৷ কিন্তু এই বিল পাস হলে রিয়েল এস্টেট ব্যবসায় কী কী পরিবর্তন আসতে চলেছেন দেখে নিন এক ঝলকে,

    ১)এরপর থেকে সমস্ত রিয়েল এস্টেট প্রজেক্ট প্রোমোটার, প্রজেক্ট, লেআউট প্ল্যান, ভূমি পরীক্ষার তথ্য সবিস্তারে রেগুলেটরি অথরিটির কাছে নথিভুক্ত করাতে হবে ৷ এর সঙ্গেই জমা দিতে হবে প্রজেক্ট সংক্রান্ত সমস্ত অনুমতিপত্র ৷ রিয়েল এজেন্ট, স্ট্রাকচারাল ইঞ্জিনিয়ার, কনট্রাক্টর, আর্কিটেক্টের সঙ্গে হওয়া চুক্তির সবিস্তার তথ্য জমা দিতে হবে ৷

    ২) প্রপার্টি বা কমপ্লেক্স বিক্রি করার সময় ধর্ম, জাত-পাত ও লিঙ্গের ভিত্তিতে কোনও বৈষম্য করা যাবে না ৷ এমনকী, আবাসনের অন্যান্য ফ্ল্যাটের বাসিন্দারাও উক্ত বিষয়গুলির ভিত্তিতে কাউকে ফ্ল্যাট বিক্রি করাতে বাধা দান করতে পারবেন না ৷

    ৩) বিল্ডার ক্রেতাদের তরফ থেকে যত টাকা পাবেন তার ৭০ শতাংশ জমি ও নির্মাণের খরচ বাবদ এসক্রো অ্যাকাউন্ট অর্থাৎ তৃতীয় পক্ষের কোনও অ্যাকাউন্টে জমা রাখতে হবে ৷ নির্ধারিত সময়ের মধ্যে ক্রেতাকে তাঁর বাড়ি বা প্রজেক্ট হস্তান্তরিত করা হচ্ছে কিনা তাতে নজর রাখবে রাজ্যের রিয়েল এস্টেট রেগুলেটরি অথরিটি ৷

    ৪) প্রজেক্ট নথিভুক্ত না করা অবধি প্রজেক্ট কোনভাবেই লঞ্চ করা যাবে না ৷

    ৫) ৫০০ স্কোয়ার মিটার অথবা সর্বোচ্চ ৮ তলার বেশি যে কোনও অ্যাপার্টমেন্ট রিয়েল এস্টেট বিলের আওতাভুক্ত হবে ৷

    ৬) ডিজাইন আর বাস্তব প্রজেক্টের মধ্যে পার্থক্য থাকলে বিল্ডারের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে ৷

    ৭) প্রতিশ্রুতির খেলাপ ঘটলে ক্রেতার সমস্ত টাকা সুদ সমেত ফেরত দিতে হবে বিল্ডারকে ৷

    ৮) এই সব অভিযোগের ক্ষেত্রে প্রোমোটারদের তিনবছর পর্যন্ত এবং রিয়েল এস্টেট এজেন্টদের একবছর পর্যন্ত জেল হতে পারে ৷ এমনকী, মিথ্যা বিজ্ঞাপন দিয়ে ক্রেতাদের বিভ্রান্ত করলে কর্তৃপক্ষ আর্থিক ক্ষতিপূরণ দেওয়ারও নির্দেশ দিতে পারেন৷

    ৯) ক্রেতারাও যদি ট্রাইবুনালের কোনও নির্দেশ না মানেন তাহলে তাদের আর্থিক জরিমানা দিতে হবে ৷

    ১০) বিল্ডারদের শেষ পাঁচ বছরে তাদের করা সমস্ত সম্পূর্ণ ও অসম্পূর্ণ প্রজেক্টের বিস্তারিত তথ্য দিতে হবে রেগুলেটরি অথরিটিকে ৷ এই বিল্ডার সম্পর্কে এই তথ্যগুলি রেগুলেটরি অথরিটির ওয়েবসাইটে পাওয়া যাবে ৷ যাতে ক্রেতা সমস্তরকম তথ্য যাচাই করে তারপরই যেন বিল্ডারের সঙ্গে বাড়ি বা প্লট কেনার জন্য চুক্তি করেন ৷

    First published:

    Tags: Buyers, Consumers, Promoter, Rajya Sabha, Real Estate Agents, Real Estate Bill

    পরবর্তী খবর