কোভিড সংকটে হাতে টাকার দরকার? FD বা PPF ভাঙার শর্তগুলি জানতেই হবে

সঞ্চয় ভাঙার আগে জানুন কী করবেন কী করবেন না।

পিপিএফ, এফডি ও অন্যান্য সঞ্চয় ভাঙার আগে এই গাইডলাইনটি জেনে নিন-

  • Share this:

    #কলকাতা: কোভিডের তাণ্ডবে সমাজের সর্বস্তরের মানুষই বেকায়দায়। আগুনে হাত পুড়ছে মধ্যবিত্ত, নিম্নবিত্তের। বহু চাকরিজীবীই গতবছরের মতো বেকায়দায় পড়ছেন কাজ হারিয়ে। অনেকে মন করছেন, সঞ্চয় ভেঙে হাতে লিক্যুইড অর্থ রাখার কথা। কিন্তু কোন সঞ্চয় ভাঙবেন, কোন সঞ্চয় ভাঙলে অর্থদণ্ড দিতে হবে, এসব নিয়ে অনেকেরই স্পষ্ট কোনও ধারণা নেই। পিপিএফ, এফডি ও অন্যান্য সঞ্চয় ভাঙার আগে এই গাইডলাইনটি জেনে নিন-

    পিপিএফ

    পিপিএফ এর গাইডলাইন অনুযায়ী ফান্ড শুরু করার পাঁচ বছরের পর থেকে টাকা তোলা যায়। সর্বোচ্চ তোলা যাবে সঞ্চিত অর্থের শতাংশ। বছরে একবারই টাকা তুলতে পারবেন একজন গ্রাহক। ‌ তবে স্বস্তির কথা পিপিএফ-এ পুরোপুরি ম্যাচিওর হয়ে যাওয়া টাকার ক্ষেত্রে এমনকি মাঝপথে তুললেও কর ছাড় পাওয়া যায়। শুধু ফর্ম সি সই করে নিজস্ব ব্রাঞ্চে জমা দিলেই সহজেই আপনার জমা টাকা তুলতে পারবেন পিপিএফ থেকে।

    ইপিএফ

    চাকরি খোয়ানো বা চিকিৎসা পরিষেবা ব্যাতীত অন্য় যে কোনও কারণে এই টাকায় হাত দিলে তা করের আওতায় পড়ে। তবে পাঁচ বছর পরে এই টাকা আর করের আওতায় পড়বে না।

    ফিক্সড ডিপোজিট

    ফিক্সড ডিপোজিটের ক্ষেত্রে টাকা ম্যাচিওর হওয়ার আগে টাকা তোলা যায় না। আগেই এই ডিপোজিট ভাঙতে হলে টাকা‌ একবারে তুলতে হবে এবং অ্যাকাউন্ট বন্ধ করতে হবে। ব্যঙ্কের নিরিখে শতাংশ থেকে ১ শতাংশ পর্যন্ত সুদও দিতে হতে পারে।

    জাতীয় পেনশন স্কিম

    তিন বছর হয়ে গেলে বিনিয়োগকারী তাঁর বিনিয়োগের ২৫ শতাংশ তুলতে পারেন। এক্ষেত্রে তিনি কর ছাড় পাবেন।

    Published by:Arka Deb
    First published: