বাড়তে থাকুক জমানো টাকা, ফিক্সড ডিপোজিটে কোন কোন ব্যাঙ্কে মিলবে ৭% পর্যন্ত সুদ ?

বাড়তে থাকুক জমানো টাকা, ফিক্সড ডিপোজিটে কোন কোন ব্যাঙ্কে মিলবে ৭ শতাংশ পর্যন্ত হারে সুদ?

সুদের হারে বৃদ্ধি ঘটেছে বেশ কিছু বেসরকারি ব্যাঙ্ক ও অন্যান্য ছোট ছোট কিছু ফিন্যান্স ব্যাঙ্কের ক্ষেত্রে।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: স্থায়ী আমানত বা ফিক্সড ডিপোজিট মধ্যবিত্ত সংসারের শেষ ভরসার নাম। রিস্ক বাঁচিয়ে উপার্জনের টাকা বৃদ্ধি করতে স্থায়ী আমানতের জুড়ি মেলা ভার। সংসার খরচ বাঁচিয়ে, পকেটের পয়সা স্থায়ী আমানতে রাখতে মধ্যবিত্ত এক্সপার্ট। রিস্ক নেই, শুধু ভবিষ্যতের নিশ্চয়তা আছে। সঙ্গে আছে পর্যাপ্ত সুদের হার। এত দিন পর্যন্ত ভারতের মধ্যবিত্ত এমনকি নিম্নমধ্যবিত্তের জীবনযাপন বলতে ছিল এই-ই। বাদ সাধল ২০১৪। নরেন্দ্র মোদির (Narendra Modi) নির্বাচিত কেন্দ্রীয় সরকারের কোপ সরাসরি মধ্যবিত্তের হেঁসেলের পাশাপাশি ঢুকল ব্যাঙ্ক আ্যাকাউন্টেও। নাগাড়ে কমতে থাকল স্থায়ী আমানতের সুদ। চরম প্রকোপ আসে করোনাকালে। রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়ার (RBI) নির্দেশনায় বর্তমানে হিসাবে স্থায়ী আমানতের সুদের হার ৪%। কাটছাঁট হয়েছে অন্য ব্যাঙ্কগুলির সুদের হারেও। সব মিলিয়ে চিন্তার ভাঁজ মধ্যবিত্তের কপালে।

তবে এরই মাঝে আশার খবরও আছে। বড় ব্যাঙ্কগুলির যেমন সুদের হারে কাটছাঁট করছে, ঠিক তেমনই সুদের হারে বৃদ্ধি ঘটেছে বেশ কিছু বেসরকারি ব্যাঙ্ক ও অন্যান্য ছোট ছোট কিছু ফিন্যান্স ব্যাঙ্কের ক্ষেত্রে। বেশ কিছু ব্যাঙ্ক তাদের স্থায়ী আমানতের ক্ষেত্রে সুদের হার বাড়িয়ে ৭ শতাংশের কাছাকাছি নিয়ে গিয়েছে। এই বাজারে যা বেশ আশাপ্রদ মধ্যবিত্তের কাছে। নিজের পকেট বাঁচিয়ে এই সমস্ত ব্যাঙ্কে টাকা রাখার উদ্যোগী হতে পারেন মধ্যবিত্ত মানুষজন। এক ঝলকে এই ব্যাঙ্কের নামগুলো একবার দেখে নেওয়া যাক।

জন স্মল ফাইনান্স ব্যাঙ্ক (Jana Small Finance Bank): ৭ শতাংশ প্রতি বছরে।

সুরদায়া স্মল ফাইনান্স ব্যাঙ্ক (Suradaya Small Fin Bank): প্রতি বছরের হিসাবে ৬.৭৫ শতাংশ।

ডিসিবি ব্যাঙ্ক (DCB Bank): ৬.৭০ শতাংশ বছরের হিসাবে।

ইয়েস ব্যাঙ্ক (Yes Bank): ৬.৫০ শতাংশ বছরের হিসাবে।

ইনডাসল্যান্ড ব্যাঙ্ক (Indusland Bank): ৬.৫ শতাংশ প্রতি বছরের হিসাবে।

উক্ত প্রতিটি ব্যাঙ্কের স্থায়ী আমানতের উপরে সুদের যে হিসাব দেওয়া হয়েছে, তা ২০২১ সালের তিরিশে এপ্রিলের দিন পর্যন্ত বলবৎ থাকবে। এপ্রিল মাসের তিরিশ তারিখের পর এই হিসাবে নির্দিষ্ট কিছু বদল এলেও আসতে পারে। আবার সুদের হার তিরিশ তারিখের হিসাব অনুযায়ী ভবিষ্যতেও একই খাতে চলতে পারে। উক্ত প্রতিটি ব্যাঙ্কই তাদের বরিষ্ঠ নাগরিকদের ক্ষেত্রে বিশেষ সুবিধা দিয়ে থাকে। প্রত্যেকটি ব্যাঙ্কের ক্ষেত্রেই সর্বোচ্চ সুদের হারের হিসাবটি প্রদান করা হয়েছে।

Published by:Dolon Chattopadhyay
First published: