Home /News /business /
Petrol and Diesel: পেট্রোল-ডিজেলে কমিশন বৃদ্ধির দাবি, একাধিক রাজ্যে আজ পাম্প ধর্মঘট, কতটা প্রভাবিত হবেন গ্রাহকরা?

Petrol and Diesel: পেট্রোল-ডিজেলে কমিশন বৃদ্ধির দাবি, একাধিক রাজ্যে আজ পাম্প ধর্মঘট, কতটা প্রভাবিত হবেন গ্রাহকরা?

Petrol and Diesel: ৩১ মে সরবরাহকারী সংস্থাগুলোর কাছ থেকে পেট্রোল-ডিজেল কেনা হবে না।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: পেট্রোল-ডিজেলের দাম বাড়লে অনেকেই মনে করেন লাভ হচ্ছে পাম্প মালিকদের। বাস্তব যে তা নয়, সে কথা আজ প্রমাণ করে দিচ্ছে দেশের ২৪ রাজ্যের প্রায় ৭০ হাজার পেট্রোল-ডিজেল পাম্প ধর্মঘট। পাম্প মালিকদের সাফ ঘোষণা- জ্বালানির দাম বাড়লেও তাঁদের কমিশন বাড়েনি, তাই প্রতিবাদে সামিল হয়েছেন তাঁরা। বলছেন, ৩১ মে সরবরাহকারী সংস্থাগুলোর কাছ থেকে পেট্রোল-ডিজেল কেনা হবে না।

পেট্রোল-ডিজেলের খুচরো মূল্য বৃদ্ধিতে পেট্রোলিয়াম সংস্থাগুলো মুনাফার মুখ দেখলেও পাম্প মালিকরা রয়ে গিয়েছেন তিমিরেই, তাই একদিনের জন্য তাদের কাছ থেকে তেল না কেনার এই জেহাদ, যাতে সংস্থাগুলোও লোকসানের মুখ দেখে।

আরও পড়ুন: সম্পত্তি কেনার পরিকল্পনা রয়েছে?স্ট্যাম্প ডিউটি চার্জ কী ভাবে ক্যালকুলেট করা হয়

দিল্লির পেট্রোল ডিলার অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি অনুরাগ জৈন এই প্রসঙ্গে স্পষ্ট করেছেন তাঁদের অবস্থানের বিষয়। তিনি জানিয়েছেন যে পেট্রোল-ডিজেলের খুচরো মূল্য বৃদ্ধিতে তাঁদের কোনওই লাভ হয়নি, কেন না বিক্রির অনুপাতে তাঁদের কমিশন বাড়েনি। তাই সংস্থাগুলোর কাছে নিজেদের প্রাপ্য বুঝে নেওয়ার জন্য এই পদক্ষেপ। কিন্তু সাধারণ মানুষ কি এই প্রতিবাদে সমস্যায় পড়বেন না? সে উত্তরও দিয়েছেন জৈন। বলেছেন, পাম্পগুলোতে যথেষ্ট পরিমাণে জ্বালানি মজুত আছে, অতএব গ্রাহকদের চাহিদা পূরণে কোনও সমস্যা হওয়ার কথা নয়।

আরও পড়ুন: রিয়েল এস্টেটের এই নিয়ম সংক্রান্ত জেনে নিন, ফ্ল্যাট কেনার সময় লাভবান হবেন আপনি

জানা গিয়েছে, এই প্রতিবাদে সামিল হয়েছেন তামিলনাড়ু, কর্নাটক, কেরল, তেলঙ্গানা, অন্ধ্রপ্রদেশ, দিল্লি, পঞ্জাব, হরিয়ানা, রাজস্থান, গুজরাত, মহারাষ্ট্র, হিমাচলপ্রদেশ, বিহার, অসম, মেঘালয়, অরুণাচলপ্রদেশ, মিজোরাম, নাগাল্যান্ড, মণিপুর, ত্রিপুরা, সিকিম এবং উত্তরবঙ্গের অনেক পাম্প মালিকেরা; রয়েছেন উত্তরপ্রদেশ ও মধ্যপ্রদেশের ডিলাররাও।

ডিলারদের অভিযোগ, তাঁদের যে মার্জিন মুনাফা থাকে, তা প্রতি ৬ মাস অন্তর বাড়ার কথা, কিন্তু ২০১৭ সাল থেকে কোনওই পরিবর্তন হয়নি। অন্য দিকে, পাম্প ব্যবসায় আসার জন্য তাঁরা ঋণ নিয়েছেন, লগ্নির হার বেড়েছে, সুদও দিতে হচ্ছে চড়া হারে। ফলে, তাঁদের আর্থিক সুরাহা দূর অস্ত!

আরও পড়ুন: কারা এডুকেশন লোনের জন্য আবেদন করতে পারবেন ?

ডিলাররা পেট্রোলের খুচরো মূল্যে প্রতি লিটারে ২.৯০ টাকা এবং ওই এক হিসেবে ডিজেলের ক্ষেত্রে ১.৮৫ টাকা কমিশন পান। জৈন জানিয়েছেন, ২০১৭ সালে কমিশন ১ টাকা বাড়ানো হলেও তার থেকে আবার ৪০ পয়সা লাইসেন্স ফি হিসেবে কেটে নেওয়া হয়। ফলে বিদ্যুতের খত, কর্মীদের বেতন, ব্যাঙ্ক চার্জ সামলে তাঁদের নাভিশ্বাসের জোগাড়। এখন দেখার পেট্রোলিয়াম সংস্থাগুলো কী পদক্ষেপ নেয়!

Published by:Dolon Chattopadhyay
First published:

Tags: Petrol and Diesel, Petrol pump

পরবর্তী খবর