Home /News /birbhum /
Birbhum News: জেলায় প্রথম তৈরি হল আদিবাসীদের গ্রন্থাগার

Birbhum News: জেলায় প্রথম তৈরি হল আদিবাসীদের গ্রন্থাগার

আদিবাসী [object Object]

এযাবৎ জেলায় কোথাও আলাদা করে সাঁওতালি ভাষার বই নিয়ে কোন গ্রন্থাগার ছিল না। এবার সেই খামতি পূরণ করল বীরভূম জেলা প্রশাসন।

  • Share this:

    #বীরভূম: জেলায় অনেক গ্রন্থাগার রয়েছে। সেই সকল গ্রন্থাগারে আলাদা করে সাধারণত বাংলা, ইংরেজি অথবা অন্যান্য ভাষার বই রয়েছে। কিন্তু এযাবৎ জেলায় কোথাও আলাদা করে সাঁওতালি ভাষার বই নিয়ে কোন গ্রন্থাগার ছিল না। এবার সেই খামতি পূরণ করল বীরভূম জেলা প্রশাসন। বীরভূমে এই প্রথম চালু করা হল একটি গ্রন্থাগার, যা কেবল মাত্র আদিবাসীদের জন্য এবং সেখানেই যে সকল বই রাখা হয়েছে সবই সাঁওতালি ভাষায়।

    প্রশাসন সূত্রে জানা যাচ্ছে, অনেকদিন ধরেই এই ধরনের একটি সাঁওতালি ভাষায় গ্রন্থাগার তৈরি করার জন্য ইচ্ছা প্রকাশ করেছিলেন বীরভূম জেলা সভাধিপতি বিকাশ রায় চৌধুরী। তার ইচ্ছামতই এবং তার প্রচেষ্টায় অবশেষে সেই গ্রন্থাগার বাস্তব রূপ পেল। আদিবাসীদের জন্য এই গ্রন্থাগার পথ চলা শুরু করেছে ৩০ জুন অর্থাৎ হুল দিবসের দিন থেকে।

    বীরভূমের সদর শহর সিউড়ির সার্কিট হাউসের পাশে থাকা তথ্য সংস্কৃতি দফতরের মধ্যে থাকা একটি ঘরে এই গ্রন্থাগার তৈরি করা হয়েছে। বীরভূম জেলা পরিষদ এবং জেলা প্রশাসনের যৌথ উদ্যোগে এই গ্রন্থাগার তৈরি করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন বীরভূম জেলাশাসক বিধান রায়। এই গ্রন্থাকার তৈরি করার জন্য সিউড়ি বিধানসভার বিধায়ক তথা বীরভূম জেলা পরিষদের সভাধিপতি বিকাশ রায় চৌধুরী এক লক্ষ টাকা অনুদান স্বরূপ দিয়েছেন।

    আরও পড়ুন - বিয়ের সাত দিনের মাথায় অ্যাসিড খেয়ে আত্মহত্যা গৃহবধূর

    আরও পড়ুন - আশায় বাঁচে চাষা, জল ট্যাঙ্ক ব্যবহার করে ফসল বাঁচাতে মরিয়া বীরভূমের চাষীরা

    ইতিমধ্যেই সাঁওতালি ভাষার এই গ্রন্থাগারে ৫০০ এর বেশি বই আনা হয়েছে। সাঁওতালি ভাষায় সাহিত্যসম্ভার ছাড়াও এই সকল বইয়ের তালিকায় রয়েছে নানা ধরনের বৃত্তিমূলক পরীক্ষার সাঁওতালি ভাষায় বই। এছাড়াও জানার বিষয় যেমন বিজ্ঞান, সংবিধান, ইতিহাস ইত্যাদি নানা ধরনের সাঁওতালি ভাষার বই এখানে রাখা হয়েছে বলে জানিয়েছেন জেলাশাসক বিধান রায়। পাশাপাশি তিনি জানিয়েছেন, আগামী দিনে বইয়ের সম্ভার আরও বৃদ্ধি করা হবে। এই লাইব্রেরি থেকে আদিবাসীরা তাদের প্রয়োজনীয় বই পাবেন বলে জানা যাচ্ছে প্রশাসন সূত্রে।

    আদিবাসীদের জন্য এই লাইব্রেরির উদ্বোধন প্রসঙ্গে আদিবাসী গাঁওতা সম্পাদক রবিন সরেন জানান, এমন লাইব্রেরী হয়েছে তা খুব ভালো উদ্যোগ। তবে এর পাশাপাশি আদিবাসীদের পড়ানোর জন্য উদ্যোগ নিতে হবে। অনেক দামি দামি বই আছে যে বইগুলি টাকার অভাবে পড়ার সুযোগ পান না আদিবাসী সম্প্রদায়ের মানুষরা। সেগুলির দিকে নজর রাখলে অনেক উপকার হবে।

    মাধব দাস

    Published by:Ananya Chakraborty
    First published:

    Tags: Birbhum, Suri

    পরবর্তী খবর