ডিগ্রি আছে-খাবার নেই, সপরিবারে স্বেচ্ছামৃত্যুর আবেদন বারাসতের কৃতির

Bangla Editor | News18 Bangla | 02:18:43 PM IST Aug 17, 2019

ঘরে এমএ, পিএইচডি ডিগ্রি আছে। খাবার নেই। থাকবেই বা কি করে? রোজগার যে বন্ধ। কাজের আবেদন করে ঘুরেছেন বিভিন্ন দফতরে। সাড়া পাননি। তাই সপরিবারে স্বেচ্ছামৃত্যু করতে চেয়ে জেলাশাসকের কাছে চিঠি বারাসতের গার্গী বন্দ্যোপাধ্যায়ের। বারাসতের নবপল্লির এক কামরার ছোট্ট ফ্ল্যাট। কোণায় কোণায় রুগ্নতা স্পষ্ট। অসুস্থ বাবা-মাকে নিয়ে বিপাকে পড়েছেন গার্গী বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে কয়েক বছর আগেও এমনটা ছিল না । বাবা দুর্গাপুর স্টিল প্ল্যান্টে চাকরি করতেন। মা স্টিল প্ল্যান্টেরই প্রাইমারি স্কুলে কাজ করতেন। কাজে অবসর নিয়ে বারাসতে ফ্ল্যাট কেনেন। ততদিনে দুই মেয়েরই বিয়ে দিয়েছেন। বড় মেয়ে গার্গী রবীন্দ্রভারতী থেকে সংগীত নিয়ে এমএ করেছেন। পরে প্রকৃতি ও মানব মন নিয়ে গবেষণা করে পিএইচডি করেন। মন্তেসরি ট্রেনিংও নেন। একটি বেসরকারি স্কুলে কাজ পান। কিন্তু সেটাও থাকেনি। আর খারাপের শুরু তারপর থেকেই। একটা কাজের জন্য দরজায়-দরজায় ঘোরা। ততদিনে আবার বিবাহবিচ্ছেদও হয়েছে। অদুই মেয়ের শিক্ষা ও বিয়ের জন্য খরচ করে ফেলেছেন সঞ্চয়ের অনেকটা অংশ। দু’হাজার চোদ্দো থেকে সঞ্চয় বলে কিছুই নেই। কখনও দিন কাটে অর্ধাহারে। তাই বাধ্য হয়েই স্বেচ্ছামৃত্যুর আবেদন।

লেটেস্ট ভিডিও