Jalpaiguri: কারও পৌষ মাস, কারও সর্বনাশ! দুর্ঘটনাগ্রস্থ ট্রেন দেখতে ভিড়, এলাকায় 'রমরমা' ব্যবসা

Bangla Digital Desk | News18 Bangla | 04:15:51 PM IST Jan 19, 2022

ভাস্কর চক্রবর্তী, জলপাইগুড়ি (ময়নাগুড়ি): একেই বলে কারও পৌষ মাস তো কারও সর্বনাশ। জলপাইগুড়ি জেলার ময়নাগুড়ি এবং দোমহনির মাঝে দক্ষিণ মৌয়ামারি এলাকার রেল দুর্ঘটনা এখন এই প্রবাদবাক্যকেই মনে করিয়ে দিচ্ছে। দুর্ঘটনার পর দিন যত বাড়ছে তত মৌয়ামারি এলাকায় উপচে পড়ছে উৎসাহী মানুষদের ভিড়। আর এই ভিড়ের সুযোগকে কাজে লাগিয়ে রেললাইন সংলগ্ন এলাকায় রকমারি খাবারের দোকান নিয়ে হাজির হচ্ছেন ব্যবসায়ীরা। জলপাইগুড়ি, মালবাজার সহ ময়নাগুড়ির বিভিন্ন এলাকা থেকে পরিবার-সহ দুর্ঘটনাগ্রস্থ রেল দেখতে উৎসাহী লোকজনদের ব্যাপক ভিড়ের কারণে ভালোই ব্যবসা হচ্ছে খাবারের ব্যবসায়ীদের। সব মিলিয়ে দুর্ঘটনাগ্রস্থ এলাকা যেন পর্যটন কেন্দ্রের রুপধারণ করেছে। বাড়ির বাচ্চাদের পাশাপাশি বাড়ির বয়স্ক বাবা, মা ও স্ত্রীকে নিয়ে ছুটির আমেজে প্রচুর মানুষ প্রতিদিনই ভিড় জমাচ্ছেন মৌয়ামারি গ্রামে।তবে কোন পিকনিক করতে নয়।তাঁরা আসছেন দুর্ঘটনাগ্রস্থ রেল দেখতে। কেউ এসেছেন নিজের গাড়ি নিয়ে, কেউ বা গাড়ি ভাড়া নিয়ে এসেছেন ঘটনাস্থলে।অনেকেই আবার এসেছেন টোটো রিজার্ভ করে।প্রচুর মানুষের ভিড়ে যদি ভালো ব্যবসা করা যায়,সেই সুযোগের সদব্যবহারে হাজির স্থানীয় লোকজন সহ ময়নাগুড়ির বিভিন্ন এলাকার বেশ কিছু ব্যবসায়ী। বেলুনের দোকান থেকে শুরু করে ফুচকার দোকান, রুটি সব্জির দোকান,আইস্ক্রিমের দোকান, চায়ের দোকান নিয়ে হাজির অনেকেই।ব্যবসা সারাদিন ভালোই হয়েছে বলে দাবি ব্যবসায়ীদের।আর যারা দুর্ঘটনাগ্রস্থ রেল দেখতে এসেছেন তাদের বক্তব্য, একদিকে ঘোরাও হল অপরদিকে খাওয়া-দাওয়াও হল। গত বৃহস্পতিবার ময়নাগুড়ির দক্ষিণ মৌয়ামারী এলাকায় গুয়াহাটিগামী বিকানির এক্সপ্রেস লাইনচ্যুত হয়ে যায়। যার ফলে রেলের ১২টি কামরা রেল লাইনের পাশে উলটে যায়।এরপর থেকেই দুর্ঘটনাগ্রস্থ এলাকায় লোকজনদের ব্যাপক ভিড় বাড়তে থাকে।

লেটেস্ট ভিডিও