Home » Tag » Jagdeep Dhankhar
Jagdeep Dhankhar

Jagdeep Dhankhar র সব খবর

    পশ্চিমবঙ্গের রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ের (Jagdeep Dhankhar) জন্ম ১৯৫১ সালের ১৮ মে। বর্তমানে তিনি রাজ্যের রাজ্যপাল হিসাবে কাজ করছেন। তিনি পশ্চিমবঙ্গের রাজ্যপালের দায়িত্ব নেন ৩০ জুলাই ২০১৯ সালে। তাঁর আগে রাজ্যের রাজ্যপাল ছিলেন কেশরীনাথ ত্রিপাঠী। রাজস্থানে একটি ছোট্ট গ্রাম, সদ্য স্বাধীনতার পরবর্তী সময়ে তখন গ্রাম ভারতের আরও পাঁচটি স্থানের মতো সেখানেও এসে লেগেছে অর্জিত স্বাধীনতার বার্তা, সেখানেই জন্মগ্রহণ করেন জগদীপ ধনখড় (Jagdeep Dhankhar)। কিথানা ছিল সেই গ্রামের নাম। চিতোরগড়ের সৈনিক স্কুলে স্কুলের পড়াশোনা শেষ করেন তিনি। এর পর পড়তে যান মহারাজা কলেজ জয়পুরে। যেটি ছিল জয়পুরের ইউনিভার্সিটি অফ রাজস্থানের অনুমোদনপ্রাপ্ত একটি কলেজ। সেখানে তিন বছরে তিনি পদার্থবিদ্যায় স্নাতক ডিগ্রি অর্জন করেন। এরপর রাজস্থান বিশ্ববিদ্যালয়ে তিনি আইন বিভাগে ভর্তি হন। ১৯৭৮-৭৯ সালে তিনি সেখান থেকে পাশ করেন। ১৯৭৯ সালে তিনি রাজস্থানের বার কাউন্সিলে তিনি নাম নথিভুক্ত করেন। ধনখড় (Jagdeep Dhankhar) প্রাথমিক শিক্ষা শেষ করেছিলেন কৈথানা গ্রাম্য স্কুল বা ভিলেজ স্কুলে। পেশাগত জীবনে তিনি দেশের সর্বোচ্চ আদালত, সুপ্রিম কোর্টের এক জন আইনজীবী হিসাবেও স্বনামধন্য।

    ধনখড়ের (Jagdeep Dhankhar) রাজনৈতিক জীবনের সূত্রপাত হয় রাজস্থানের ঝুনঝুনু লোকসভা কেন্দ্র থেকে। ১৯৮৯ সালে তিনি সেই আসনে নবম লোকসভা নির্বাচনে তিনি জয়ী হয়ে সাংসদ হন। তিনি ছিলেন জনতা দলের সাংসদ। ১৯৯০ সালে তিনি পার্লামেন্টারি কমিটির চেয়ারম্যান হয়েছিলেন। মন্ত্রীও হয়েছিলেন ওই বছরই। এর পর তিনি বিধায়ক হিসাবেও নির্বাচিত হয়েছিলেন। ১৯৯৩ সাল থেকে ১৯৯৮ সাল পর্যন্ত তিনি ছিলেন বিধায়ক। রাজস্থানের কিসানগড় আসন থেকে তিনি নির্বাচিত হয়েছিলেন বিধায়ক। রাজস্থানের দশম বিধানসভার সদস্য ছিলেন তিনি। তিনি তাঁর পেশাগত জীবনে রাজস্থান হাইকোর্টের বার অ্যাসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট পদ সামলেছেন দীর্ঘ দিন। ২০১৯ সালের ৩০ জুলাই ভারতের রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ জগদীপ ধনখড়কে (Jagdeep Dhankhar) পশ্চিমবঙ্গের রাজ্যপাল হিসাবে নিয়োগ করেন।

    জগদীপ ধনখড় ব্যক্তিগত জীবনে আইনচর্চার নানা গবেষণার সঙ্গেও যুক্ত। বিভিন্ন পিছিয়ে পড়া শ্রেমি ও রাজস্থানের জাট সম্প্রদায়ের উন্নতি কল্পে তিনি দীর্ঘদিন কাজ করেছেন। তিনি রাজ্যপাল হিসাবে সর্বদাই পশ্চিমবঙ্গের রাজ্য রাজনীতির আলোচনার কেন্দ্রে থেকেছেন। বিভিন্ন সময়ে সরকারের সঙ্গে আলাপ আলোচনায় দেখা গিয়েছে তাঁকে, নিয়মিত বিভিন্ন বিষয়ে মত প্রকাশ করতেও তাঁকে দেখেছেন সাধারণ মানুষ।