স্বামীকে খুন, প্রেমিকের মুখ পুড়িয়ে স্বামীর পরিচয়! মাস্টার প্ল্যান মহিলার

Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Dec 11, 2017 03:02 PM IST
স্বামীকে খুন, প্রেমিকের মুখ পুড়িয়ে স্বামীর পরিচয়! মাস্টার প্ল্যান মহিলার
Swathi, who was married to Sudhakar Reddy for a couple of years, allegedly decided to kill him after she had an affair with Rajesh.
Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Dec 11, 2017 03:02 PM IST

 #হায়দরাবাদ: এই ঘটনা হার মানাবে বলিউড সাসপেন্স থ্রিলারকেও ৷ ভালবাসার খাতিরে নিজের স্বামীকে খুন করার পর প্রেমিকের মুখও অ্যাসিডে পুড়িয়ে দিলেন এক মহিলা ৷ না না আঘাত করতে নয়, প্রেমিকের সঙ্গে সারাজীবন নিশ্চিন্তে কাটিয়ে দেওয়ার জন্য এটাই ছিল তাঁর মাস্টার প্ল্যান ৷ প্রেয়সীর ভালবাসা পেতে পুরো ঘটনা শুধু মেনেই নেননি, স্বেচ্ছায় মহিলার সঙ্গ দিয়েছেন প্রেমিকও ৷

বছর কয়েক আগেই ধুমধাম করে বিয়ে হয়েছিল তেলেঙ্গানার নাগরকুরনুল্ল জেলার বাসিন্দা স্বাথী ও সুধাকর রেড্ডির ৷ বিয়ের পরেই রাজেশ নামে এক ব্যক্তির সঙ্গে বিবাহবহির্ভূত সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ে স্বাথী ৷ ভালবাসা গভীর হতেই রাজেশের পথের কাঁটা সুধাকরকে সরিয়ে দেওয়ার পরিকল্পনা করে সে ৷ শুধু তাই নয় সুধাকরকে খুন করে সকলের সামনে রাজেশকে সুধাকর সাজিয়ে হাজির করার এক মাস্টারপ্ল্যান বানিয়েছিলেন স্বাথী ৷ যা হার মানাবে যে কোনও সিনেমার চিত্রনাট্যকেও ৷

প্রেমিককে স্বামী সাজাতে অ্যাসিডে তাঁর মুখ পুড়িয়ে দেয় স্বাথী এবং সুধাকরের বাড়ির লোকজনদের জানায় অজ্ঞাত ব্যক্তির হামলায় নষ্ট হয়ে গিয়েছে তাঁর স্বামীর মুখ ৷ সুধাকরের পরিবার প্রথমে স্বাথীর কথা বিশ্বাস করে নিলেও শেষ রক্ষা হয়নি ৷

একটি সর্বভারতীয় সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত খবর অনুযায়ী, গত ২৬ নভেম্বর পরিকল্পনা মাফিক ঘুমন্ত সুধাকরের মাথায় বাড়ি মেরে তাঁকে খুন করে স্বাথী ৷ এরপর রাজেশের সঙ্গে মিলে সুধাকরের মৃতদেহ গাড়ি করে ফেলে আসে মাইসাম্মার জঙ্গলে ৷

ঠিক এর দু’দিন পর পরিচয় মুছে ফেলতে নিজে হাতে অ্যাসিড ঢেলে রাজেশের মুখ সম্পূর্ণ পুড়িয়ে দেয় স্বাথী ৷ অ্যাসিডে পোড়ার যন্ত্রণায় কাতরাতে থাকা রাজেশকে হায়দরাবাদের একটি প্রাইভেট হাসপাতালে ভর্তি করে খবর দেয় শ্বশুরবাড়িতে ৷ দুর্ঘটনার খবর শুনে ছুটে আসে সুধাকরের পরিবার ৷

স্বাথী আগেই থেকেই ঠিক করে রেখেছিল অ্যাসিডে পোড়ার ক্ষত শুকোলেই যত তাড়াতাড়ি সম্ভব রাজেশের প্লাস্টিক সার্জারি করিয়ে নেবে ৷ যাতে কারোর কোনও সন্দেহ অবশিষ্ট না থাকে ৷ সেই মতো সুধাকরের পরিবারকে রাজিও করে ফেলেছিল সে ৷ ততদিনে রাজেশের চিকিৎসার পিছনে সুধাকরের পরিবার প্রায় ৫ লাখ টাকারও বেশি অর্থ খরচ করে ফেলেছে ৷

এ পর্যন্ত সব ঠিকই চলছিল, কিন্তু সন্দেহ জাগে সুধাকরের মায়ের মনে ৷ পরিবারের সাধারণ তথ্যও বলতে পারছিল না আহত ‘সুধাকর’ ৷ শুধু তাই নয়, সুধাকরের মা জানান, ‘দুর্ঘটনা’-র পর থেকে বদলে গিয়েছে ছেলের গলার স্বর থেকে আচার ব্যবহারও ৷ এই বদল ধরা পড়ে বাকিদের চোখেও ৷

এরপরই পুলিশের শরণাপন্ন হয় সুধাকরের পরিবার ৷ তদন্তে নেমে স্বাথীকে জেরা করতেই সামনে আসে আসল ঘটনা ৷ পুলিশি জেরার মুখে ভেঙে পড়ে সমস্ত অপরাধ স্বীকার করেছে স্বাথী ৷ রবিবার তাঁকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ ৷ জঙ্গল থেকে সুধাকরের মৃতদেহ উদ্ধার করে পাঠানো হয়েছে পোস্টমর্টেমে ৷ এই অপরাধে তাঁর পার্টনার রাজেশ আপাতত চিকিৎসাধীন ৷

First published: 03:02:22 PM Dec 11, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर