Home /News /west-bardhaman /
Paschim Bardhaman: শিক্ষার ওপর চলল বুলডোজার, গুড়িয়ে দেওয়া হল ৪০ বছরের স্কুল

Paschim Bardhaman: শিক্ষার ওপর চলল বুলডোজার, গুড়িয়ে দেওয়া হল ৪০ বছরের স্কুল

আসানসোলের

আসানসোলের যোগীস্থানে বুলডোজারের সাহায্য চলছে স্কুলবিল্ডিং ভাঙার কাজ।

শিক্ষার ওপর চলল বুলডোজার। বুলডোজার চালান হল গরীব শিশুদের ভবিষ্যতের ওপর। আসানসোলের যোগীস্থানের ঘটনা দেখে এমনই মন্তব্য করলেন স্থানীয় এক মিম নেতা।

  • Share this:

    আসানসোল, পশ্চিম বর্ধমান : শিক্ষার ওপর চলল বুলডোজার। বুলডোজার চালান হল গরীব শিশুদের ভবিষ্যতের ওপর। আসানসোলের যোগীস্থানের ঘটনা দেখে এমনই মন্তব্য করলেন স্থানীয় এক মিম নেতা। রেলের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে তীব্র ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন তিনি। রেলের এই সিদ্ধান্তে রীতিমতো ক্ষুব্ধ শহরের মানুষজন। উল্লেখ্য, আসানসোলের যোগীস্থানে একটি স্কুল ভবনকে উচ্ছেদের পর ভেঙে গুঁড়িয়ে দিল রেল কর্তৃপক্ষ। গভীর রাতে বুলডোজার চালিয়ে বিদ্যালয় ভবনটি ভেঙ্গে ফেলা হয়েছে। যার ফলে অন্ধকারে পড়েছে বহু পড়ুয়ার ভবিষ্যৎ। ধুলিস্যাৎ হয়েছে বিবেকানন্দ বিদ্যালয়ের স্মৃতি। প্রসঙ্গত দিন কয়েক আগেই পূর্ব রেল কর্তৃপক্ষের তরফ থেকে বিবেকানন্দ বিদ্যালয় উচ্ছেদ করা হয়। গত সপ্তাহে রেলের আধিকারিক এবং আরপিএফ কর্মীরা গিয়ে বিদ্যালয় উচ্ছেদ অভিযান চালান। বিদ্যালয়ের সমস্ত আসবাবপত্র বাইরে বের করে দেওয়া হয়। কালো কালি দিয়ে মুছে দেওয়া হয় বিদ্যালয়ের নামের ফলক। এই ঘটনায় রীতিমতো ক্ষোভ প্রকাশ করেছিলেন বিদ্যালয়ের শিক্ষকরা এবং অভিভাবকরা। তারা জানিয়েছিলেন, বিদ্যালয়টি রেলের মালিকানাধীন জমির ওপর অবস্থিত হলেও, তারা ওই জমিটি লিজ নেওয়ার জন্য বারবার রেল কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন করেছেন। কিন্তু রেল কর্তৃপক্ষের তরফ থেকে কোনও সাড়া পাওয়া যায়নি। তার পরই হঠাৎ করে উচ্ছেদ অভিযান করা হয়েছে। অন্যদিকে রেল কর্তৃপক্ষের দাবি ছিল, দখলীকৃত জায়গা পুনরুদ্ধারে নেমেছে রেল কর্তৃপক্ষ। সেজন্যই এই ধরনের উচ্ছেদ অভিযান চলছে। তবে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ওপর উচ্ছেদের ঘটনায় রীতিমতো ক্ষুব্ধ শহরের মানুষজন। বিবেকানন্দ বিদ্যালয়ের আগে শহরে ১০০ বছরের একটি পুরনো বিদ্যালয় রেল কর্তৃপক্ষ উচ্ছেদ করেছে। তারপর ফের ৪০ বছরের পুরনো বিবেকানন্দ বিদ্যালয় উচ্ছেদে করা হয় গত সপ্তাহে। আর এবার উচ্ছেদের পর রাতের অন্ধকারে ভেঙে গুঁড়িয়ে দেওয়া হল বিদ্যালয় ভবন। Nayan Ghosh

    First published:

    Tags: Asansol, Paschim bardhaman

    পরবর্তী খবর