Home /News /west-bardhaman /
Paschim Bardhaman: এবার পুরবোর্ড গঠন নিয়ে হাইকোর্টে মামলা

Paschim Bardhaman: এবার পুরবোর্ড গঠন নিয়ে হাইকোর্টে মামলা

আসানসোল পুরভোট সম্পন্ন হয়েছে বেশ কয়েক মাস আগে। বিরোধীদের ধুলিস্যাৎ করে জয় পেয়েছে তৃণমূল। তারপর পেরিয়ে গিয়েছে বেশ কয়েকটি মাস।

  • Share this:

    পশ্চিম বর্ধমান : আসানসোল পুরভোট সম্পন্ন হয়েছে বেশ কয়েক মাস আগে। বিরোধীদের ধুলিস্যাৎ করে জয় পেয়েছে তৃণমূল। তারপর পেরিয়ে গিয়েছে বেশ কয়েকটি মাস। সম্পন্ন হয়েছে আসানসোল লোকসভা কেন্দ্রের উপনির্বাচন। সেখানেও জয়ের ধারা অব্যাহত রেখেছে ঘাসফুল শিবির। কিন্তু এখনও পর্যন্ত আসানসোল পুরনিগমের পুরবোর্ড গঠন করা হয়নি। এখনও পর্যন্ত আসানসোল পুরসভা শুধুমাত্র পেয়েছে একজন মেয়র, দুজন ডেপুটি মেয়র এবং পুরসভার চেয়ারম্যান। কিন্তু পুরবোর্ড গঠন না হওয়ার ফলে, এখনও মেয়র পারিষদ পায়নি আসানসোল পুরনিগম। যা নিয়ে এবার আইনি পদক্ষেপ করেছে বিরোধী দল বিজেপি। আসানসোল পুরসভার বিরোধী নেত্রী তথা বিজেপি নেত্রী চৈতালি তিওয়ারি, পুরবোর্ড গঠন না হওয়া নিয়ে মামলা দায়ের করলেন কলকাতা হাইকোর্টে। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে শুরু হয়েছে রাজনৈতিক তরজা। আসানসোল পুরনিগমে মেয়র পারিষদ গঠন হয়নি। এই নিয়ে কলকাতা হাইকোর্টে মামলা করলেন আসানসোল পুরনিগমের ২৭ নম্বর ওয়ার্ডের বিজেপি কাউন্সিলার চৈতালী তিওয়ারি। আসানসোলের গোধূলি মোড়ের আবাসনে বিজেপি কাউন্সিলর চৈতালী তিওয়ারি একথা জানিয়েছেন।

    তিনি অভিযোগ করেছেন, আসানসোল পুরনিগমে মেয়র পারিষদ গঠন নিয়ে মেয়র সহ নগরোন্নয়ন দফতরে চিঠি দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু কোনও সদুত্তর না পাওয়ায়, এদিন কলকাতা হাইকোর্টে মামলা করা হয়েছে। এই প্রসঙ্গে বিজেপি কাউন্সিলর চৈতালী তিওয়ারি আরও বলেছেন, আমরা ওনাদের (শাসক দল) অনেকদিনই সময় দিলাম। আমরা মামলা করতে রাজি ছিলাম না। তা সত্ত্বেও আমাদের মামলা করতে বাধ্য করা হল। কারণ আমরা মেয়র সাহেবের কাছে গিয়েছিলাম। মেয়রকে চিঠি দিয়েছিলাম। তাছাড়াও মিউনিসিপ্যাল অ্যাফেয়ার্স - এর কাছেও চিঠি পাঠিয়েছিলাম। এমনকি তারপর আমরা নোটিশ দিয়েছিলাম। তাতেও কোনও সদুউত্তর না পাওয়ায়, আমরা বাধ্য হলাম মামলা করতে। আমরা জনসাধারণের ভোটে জয়যুক্ত হয়েছি।

    আরও পড়ুনঃ Paschim Bardhaman: বিরল দৃশ্য! লোকাল টানছে কার্গো ইঞ্জিন

    তাই আমরা জনসাধারণের কথা চিন্তা করেই এই রাস্তা বেছে নিয়েছি। তবে পুরসভার বিরোধী নেত্রীর পদক্ষেপের জবাব দিয়েছেন চেয়ারম্যান অমরনাথ চট্টোপাধ্যায়।আসানসোল পুরনিগমের চেয়ারম্যান অমরনাথ চট্টোপাধ্যায় বলছেন, এই মাস পর্যন্ত সময় আছে। সেটা আমরা ওনাকে বোর্ড মিটিংয়ে জানিয়ে দিয়েছিলাম। এই মাস পর্যন্ত রাজ্য সরকার আমাদের সময় দিয়েছে। ইউডি ডিপার্টমেন্ট থেকে আমাদের কাছে সেই চিঠিও এসছিল। সেগুলিও আমরা সব ডিসট্রিবিউশন করে দিয়েছি।

    আরও পড়ুনঃ Saxophone Players: পাণ্ডবেশ্বরের এই দুই বধূ এখন স্যাক্সোফোন শিল্পী! করেছেন ৫০ টিরও বেশি অনুষ্ঠান!

    তা সত্ত্বেও যদি উনি নিজের ইচ্ছেই হাইকোর্টে যেতে চান, যেতে পারেন। এই ব্যাপারে চৈতালি তিওয়ারিকে কটাক্ষের সুরে অমরনাথ বাবু বলেছেন, উনি তো নিজেই অ্যাডভোকেট মানুষ। ওনার প্র্যাকটিসের সুবিধা হবে বলে বোধহয় তিনি এই কাজ করেছেন। তবে পুরবোর্ড গঠন নিয়ে হাইকোর্টে মামলার যে পদক্ষেপ বিজেপি কাউন্সিলর করেছেন, তা নিয়ে আসানসোল জুড়ে শুরু হয়েছে রাজনৈতিক তরজা।

    Nayan Ghosh
    First published:

    Tags: Asansol, Paschim bardhaman

    পরবর্তী খবর