Home /News /west-bardhaman /
Bardhaman News: আদিবাসী শিশুকে দেওয়া হল ঘুমের ইঞ্জেকশন! একটুর জন্য রক্ষা প্রাণ! জানুন ভয়াবহ ঘটনা

Bardhaman News: আদিবাসী শিশুকে দেওয়া হল ঘুমের ইঞ্জেকশন! একটুর জন্য রক্ষা প্রাণ! জানুন ভয়াবহ ঘটনা

কাঁকসা থানায় অভিযোগ দায়ের করতে হাজির শিশুটির পরিবার।

কাঁকসা থানায় অভিযোগ দায়ের করতে হাজির শিশুটির পরিবার।

Bardhaman News: কাঁকসার তেলিপাড়ায় কিছু দুষ্কৃতী ঘুমের ইনজেকশন দিয়ে এক শিশুকে অপহরণের চেষ্টা করে। তারপর? ভয়াবহ ঘটনা

  • Share this:

    #পশ্চিম বর্ধমান : ভয়ঙ্কর বিপদের হাত থেকে রক্ষা পেল আদিবাসী এক খুদে। জঙ্গলমহলের এই ঘটনায় রীতিমতো শোরগোল পড়ে গিয়েছে। কাঁকসার তেলিপাড়ায় কিছু দুষ্কৃতী ঘুমের ইনজেকশন দিয়ে এক শিশুকে অপহরণের চেষ্টা করে। যদিও দুষ্কৃতীরা ব্যর্থ হয়েছে। তবে এই ঘটনায় রীতিমতো চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়। ইতিমধ্যেই এই ঘটনা নিয়ে কাঁকসা থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। অন্যদিকে ঘুমের ইনজেকশন দিয়ে শিশুকে অপহরণের চেষ্টার ঘটনায় ঘুম উড়েছে স্থানীয় মানুষজনের। চিন্তিত এই শিশুটির পরিবার, পাশাপাশি চিন্তিত স্থানীয় মানুষজন। কারণ এলাকায় অনেক বাড়িতেই শিশুদের বসবাস। যারা বাইরে ঘোরাফেরা করে, নিজেদের মতো খেলা করে। ফলে দুষ্কৃতীরা ওই সমস্ত শিশুদের সঙ্গে এমন কাণ্ড ঘটাতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন তাঁদের অভিভাবকরা। সব মিলিয়ে এই ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়। চিন্তিত স্থানীয় মানুষজন ও অভিভাবকরা।

    জানা গিয়েছে, কাঁকসার তেলিপাড়া এলাকা থেকে এক আদিবাসী শিশুকে অপহরণের চেষ্টা চালায় একদল দুষ্কৃতী। শুক্রবার দুপুরে কাঁকসা থানায় লিখিত অভিযোগ জানায় ওই শিশুর পরিবার। শিশুটির পরিবারের সদস্যরা জানিয়েছেন, গত বুধবার দুপুরে নাগাদ একদল দুষ্কৃতী গ্রামে ঢুকে তার বাচ্চাকে ঘুমের ইনজেকশন দিয়ে অপহরণের চেষ্টা চালায়। তবে সৌভাগ্যবশত দুষ্কৃতীদের হাত থেকে ঐ শিশুটি বাড়ি থেকে বেরিয়ে চলে আসে।

    আদিবাসী শিশুটির পরিবার সূত্রে খবর, বৃহস্পতিবার ওই শিশুটি অসুস্থ বোধ করলে, তাকে পানাগড় ব্লক প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যাওয়া হয়। তারপরই পরিবারের সকল সদস্যদের কাছে পুরো ঘটনাটি জানায় আদিবাসী ওই শিশুটি। তারপর শুক্রবার পরিবারের পক্ষ থেকে কাঁকসা থানায় অপহরণের চেষ্টার লিখিত অভিযোগ জানানো হয়েছে।

    পুলিশ সূত্রে খবর, ইতিমধ্যেই এই ঘটনার তদন্ত শুরু করা হয়েছে। কাঁকসা থানার পুলিশ, আদিবাসী ওই শিশুটির পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্তে নেমেছে। কে বা কারা ওই শিশুটিকে অপহরণ করার চেষ্টা চালিয়েছিল, তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ। কেন তারা এই অপহরণের ফাঁদ পেতেছিল, তা নিয়েও শুরু হয়েছে তদন্ত। পাশাপাশি পুলিশ খোঁজ লাগানোর চেষ্টা করছে, ওই দুষ্কৃতীদের দলের সঙ্গে বড় কোন চক্র জড়িত রয়েছে কিনা, বা ওই চক্রটি শিশু পাচারের সঙ্গে জড়িত রয়েছে কিনা। তবে ঘুমের ইনজেকশন দিয়ে অপহরণ করার এই ঘটনা দেখে কিছুটা চিন্তিত পুলিশ আধিকারিকরাও।

    অন্যদিকে, এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে শুরু হয়েছে রাজনৈতিক তরজা। বর্ধমান সদরের বিজেপির জেলা সহ সভাপতি রমন শর্মা দাবি তোলেন, শুধু কাঁকসা নয়, রাজ্য জুড়ে নানান ধরনের অপরাধমূলক কাজ হয়েই চলেছে। এই বিষয়ে প্রশাসনকে আরও সক্রিয় ভূমিকা গ্রহণ করতে হবে। অপরদিকে কাঁকসা ব্লকের তৃণমূলের যুব সহ-সভাপতি সমরেশ ব্যানার্জি জানিয়েছেন, যে কোনও ঘটনার ক্ষেত্রে প্রশাসন অত্যন্ত দ্রুততার সঙ্গে অপরাধীদের ধরছে। এক্ষেত্রেও প্রশাসন যথেষ্ট সক্রিয় ভূমিকা নিয়েছে বলেও দাবি করেন তিনি।

    Nayan Ghosh

    Published by:Piya Banerjee
    First published:

    Tags: Bangla News, Bardhaman news, Burdwan

    পরবর্তী খবর