গণধর্ষণের অভিযোগ জানাতে গেলে ধর্ষিতাকে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপনের প্রস্তাব পুলিশকর্মীর– News18 Bengali

গণধর্ষণের অভিযোগ জানাতে গেলে ধর্ষিতাকে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপনের প্রস্তাব পুলিশকর্মীর

ধর্ষণের পর অভিযোগ দায়ের করাতে গেলে এরকম ঘটনা যে ঘটতে পারে তা ভাবতে পারেননি ধর্ষিতা ৷

Dolon Chattopadhyay | News18 Bangla
Updated:Jun 23, 2017 03:21 PM IST
গণধর্ষণের অভিযোগ জানাতে গেলে ধর্ষিতাকে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপনের প্রস্তাব পুলিশকর্মীর
Dolon Chattopadhyay | News18 Bangla
Updated:Jun 23, 2017 03:21 PM IST

#রামপুর: ধর্ষণের পর অভিযোগ দায়ের করাতে গেলে এরকম ঘটনা যে ঘটতে পারে তা ভাবতে পারেননি ধর্ষিতা ৷ ৩৭ বছরের নির্যাতিতা রামপুর শহরের গঞ্জ থানায় সাহায্যের জন্য গিয়েছিলেন ৷ কিন্তু সাহায্য করার বদলে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপনের শর্ত রেখেছিল থানার তদন্তকারী অফিসার ৷

অভিযোগ, থানায় মহিলা ধর্ষণকারীদের গ্রেফতারি চাইতে গেলে কর্মরত এসআই তার সঙ্গে প্রথমে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করার কথা বলেন ৷ এই প্রস্তাবে রাজি হলেই ধর্ষকদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেওয়ার আশ্বাস দেন তিনি ৷

নির্যাতিতা তাতে রাজি না হওয়ায় তিনি রাজি না হওয়ায় মামলার ক্লোজার রিপোর্ট জমা দেন ওই এসআই। কোনও উপায় নে দেখে তিনি ফের এসআই-এর দ্বারস্থ হন ৷ কিন্তু এবার পুরো কথোপকথন রেকর্ড করে এসপি-র কাছে তা জমা দেন ৷ এরপর অভিযুক্ত এসআই-র বিরুদ্ধে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন এসপি ৷

নির্যাতিতার বয়ান অনুযায়ী, ১২ ফেব্রুয়ারি ওই মহিলাকে দু’জন ব্যক্তি গণধর্ষণ করে ৷ তাদের মধ্যে একজন তার পূর্বপরিচিত ছিলেন ৷ ঘটনার দিন এক আত্মীয়র বাড়িতে গিয়েছিল নির্যাতিতা ৷ ফেরার সময় ধর্ষকরা তাকে গাড়িতে লিফ্ট দেয় ৷ এরপর বন্দুক ঠেকিয়ে তাকে গণধর্ষণ করে ৷

পুলিশ প্রথমে এফআইআর দায়ের করতে চায়নি। মহিলা স্থানীয় আদালতে গেলে তাদের নির্দেশে মামলা রুজু হয়। এরপর অভিযুক্ত ৫৫ বছর বয়সি আমির আহমেদ, ও ৪৫ বছরের সাত্তার আহমেদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয় ৷

First published: 03:21:44 PM Jun 23, 2017
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर