• Home
  • »
  • News
  • »
  • uncategorized
  • »
  • রাজনীতিতে ছেলেও কম যান না বুঝেই রাতারাতি ড্যামেজ কন্ট্রোলে মুলায়ম

রাজনীতিতে ছেলেও কম যান না বুঝেই রাতারাতি ড্যামেজ কন্ট্রোলে মুলায়ম

রাজনীতিতে ছেলেও যে খুব একটা কম যায় না, তা হাড়ে হাড়েই বুঝলেন নেতাজি।

রাজনীতিতে ছেলেও যে খুব একটা কম যায় না, তা হাড়ে হাড়েই বুঝলেন নেতাজি।

রাজনীতিতে ছেলেও যে খুব একটা কম যায় না, তা হাড়ে হাড়েই বুঝলেন নেতাজি।

  • Pradesh18
  • Last Updated :
  • Share this:

    #লখনউ: রাজনীতিতে ছেলেও যে খুব একটা কম যায় না, তা হাড়ে হাড়েই বুঝলেন নেতাজি। আর বুঝেই নেমে পড়লেন ড্যামেজ কন্ট্রোলে। বহিস্কারের ২৪ ঘণ্টা কাটতে না কাটতেই অখিলেশকে দলে ফিরিয়ে নিলেন মুলায়ম সিং যাদব। দলে ফিরলেন রামগোপালও। বাবা-ছেলের অলিখিত চুক্তিতে বাতিল হচ্ছে দু’জনের প্রার্থী তালিকাই। নতুন প্রার্থী তালিকায় অগ্রাধিকার পাবে অখিলেশের পছন্দ।

    ২৪ ঘণ্টার মধ্যে সিদ্ধান্ত বদল অখিলেশকে দলে ফেরালেন মুলায়ম প্রার্থী বাছাইয়ে অগ্রাধিকার অখিলেশকে

    যাদবকুল নাটকে নয়া অঙ্ক। ৬ বছরের জন্য বহিষ্কার উঠে যেতে লাগল ১৮ ঘণ্টা। আবার সমাজবাদী পার্টিতে ফিরলেন অখিলে। পুরনো সবপদেও বহাল হচ্ছেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী। নিজের পছন্দের প্রার্থীদের নিয়ে বৈঠকের মাঝেই মুলায়মের সঙ্গে দেখা করতে পৌঁছন অখিলেশ।একান্তে প্রায় আধ ঘণ্টা কথা হয় বাবা-ছেলের। তারপরই অখিলেশের শাস্তি তোলার ঘোষণা করতে এগিয়ে দেওয়া হয় কাকা শিবপালকে।

    ছেলে তথা মুখ্যমন্ত্রীকে দল থেকে বের করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিশ্চয় না ভেবে নেননি নেতাজি। তা হলে ১৮ ঘণ্টার মধ্যেই তা থেকে কেন সরে আসতে হল

    তাঁকে? রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা জানাচ্ছেন, দলে অখিলেশের সমর্থন যে এতটা বেশি, তা আঁচ করতে পারেননি দুঁদে রাজনীতিক মুলায়ম।

    অখিলেশের ডাকা বৈঠকে হাজির হন তাঁর তালিকায় থাকা ২০৭ জন প্রার্থী ৷ ১১৩ জনেরও বেশি প্রার্থীকে হাজির করাতে পারেনি মুলায়ম-শিবপাল শিবির  ৷ দলের শীর্ষ কমিটির ৭ সদস্যরাও অখিলেশের হয়ে সওয়াল করেন ৷

    আরও একটি বড় ধাক্কা নাড়িয়ে দেয় মুলায়ম-শিবপাল শিবিরকে। বৈঠকে তাদের পছন্দের প্রার্থীরাই বৈঠকে এলেও জয়ের ব্যাপারে গ্যারান্টি দিতে পারেননি।

    সূত্রের খবর, আদরের টিপু দলে প্রভাব কতটা বাড়িয়েছে, তা তখনই বুঝে যান মুলায়ম। তার কিছুক্ষণ পরেই লোদি গার্ডেনে মুলায়মের বাসভবনে পৌঁছন অখিলেশ।

    বাবা-ছেলের সমঝোতায় স্থির হয়েছে :-

    কয়েকদিনের মধ্যেই চূড়ান্ত প্রার্থীতালিকা প্রকাশিত হবে অখিলেশের সুপারিশ মেনেই ৭০ শতাংশ প্রার্থী প্রচার ও নির্বাচনী কৌশল নির্ধারণের ভারও অখিলেশের হাতে

    কাকা শিবপালের সঙ্গে গণ্ডগোলেই বাবার সঙ্গে দুরত্ব বেড়েছিল অখিলেশের। মুলায়মের নির্দেশে ভবিষ্যতে ভাইপো টিপুর সঙ্গে সমন্বয় রেখেই কাজ করতে হবে শিবপালকে। যাদব বংশের ক্ষমতার লড়াই কি আবারও অন্য মোড় নেওয়ার অপেক্ষা ?

    First published: