• Home
  • »
  • News
  • »
  • uncategorized
  • »
  • গোয়ায় বেড়াতে গিয়ে মহিলার মৃত্যুর ঘটনায় ছ’মাস পরে স্বামীকে গ্রেফতার করল পুলিশ

গোয়ায় বেড়াতে গিয়ে মহিলার মৃত্যুর ঘটনায় ছ’মাস পরে স্বামীকে গ্রেফতার করল পুলিশ

গোয়ায় বেড়াতে গিয়ে মহিলার মৃত্যুর ঘটনায় ছ’মাস পরে স্বামীকে গ্রেফতার করল পুলিশ।

গোয়ায় বেড়াতে গিয়ে মহিলার মৃত্যুর ঘটনায় ছ’মাস পরে স্বামীকে গ্রেফতার করল পুলিশ।

গোয়ায় বেড়াতে গিয়ে মহিলার মৃত্যুর ঘটনায় ছ’মাস পরে স্বামীকে গ্রেফতার করল পুলিশ।

  • Share this:

    #কলকাতা: গোয়ায় বেড়াতে গিয়ে মহিলার মৃত্যুর ঘটনায় ছ’মাস পরে স্বামীকে গ্রেফতার করল পুলিশ। হোটেল থেকে অশোকনগরের বাসিন্দা তুলি নাগের ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হয়। পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে স্বামী প্রীতম নাগকে গ্রেফতার করল পুলিশ। তবে খুনের কারণ এখনও স্পষ্ট হয়নি।

    গত বছরের ডিসেম্বরে বিয়ে হয় অশোকনগরের বাসিন্দা তুলি ও প্রীতম নাগের। প্রতিবেশীেদর দাবি, কালনা আদালতের ক্লার্ক তুলি ও খড়গপুর ডাক বিভাগের কর্মী প্রীতমের দাম্পত্য জীবন ভালোই কাটছিল। এর তিনমাস পর গোয়ায় বেড়াতে গিয়েই ঘটল অঘটন।

    গোয়ায় তুলি ও প্রীতমের সঙ্গে বেড়াতে গিয়েছিল তাঁদের বন্ধু আরেক দম্পতিও। তাঁদের দাবি, এদিন সি বিচে ঝগড়া হয় তুলি ও প্রীতমের। সেদিন রাতে হোটেলের একশ ছয় নম্বর ঘরে তুলির ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হয়। তুলির মৃত্যুর কথা বাড়িতে জানায় বন্ধু দম্পতিদেরই একজন।

    পরিবারের অভিযোগ, প্রীতম সেদিন রাতে কোনও যোগাযোগই করেনি। এর জেরেই সন্দেহ দানা বাঁধে। অশোকনগর থানার পুলিশ গোয়া পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ করতে বলে। গোয়া প্রশাসনের তৎপরতায় অভিযোগ জানায় তুলির পরিবার। এরপরই অশোকনগর থানায় যোগাযোগ করে গোয়া পুলিশ। শেষমেশ ছ’মাস পর কল্যাণগড় এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয় প্রীতম নাগকে।

    খুনের কারণ নিয়ে ধোঁয়াশায় পুলিশ। প্রীতম ও তুলির দাম্পত্য জীবনে অশান্তি ছিল না বলেই জানা গিয়েছে। তাহলে একদিনের ঝগড়া কী করে খুনে গড়াতে পারে? তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

    First published: