আজকের খবরের কাগজের সেরা খবর

Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Feb 20, 2017 09:17 AM IST
আজকের খবরের কাগজের সেরা খবর
Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Feb 20, 2017 09:17 AM IST

প্রতিদিনের ব্যস্ততায় খবর কাগজ খুঁটিয়ে পড়া সম্ভব হয় না ৷ অনেক সময় গুরুত্বপূর্ণ খবর চোখ এড়িয়ে যায় ৷ তাছাড়া একাধিক কাগজও পড়ার মতো সময় কারোর হাতেই নেই ৷ তাই আসুন এক নজরে, একজায়গায় দেখে নিন কলকাতার বিভিন্ন কাগজের সেরা খবর গুলি ৷ সোমবারের গুরুত্বপূর্ণ খবরগুলি হল-

anandabazar11

১) প্রচার কৌশল পাল্টালেন মোদী, তীব্র আক্রমণ সপা-কংগ্রেসকে

উত্তরপ্রদেশে ভোটের মাঝপথে এসে প্রচার কৌশল অনেকটাই বদলে ফেললেন নরেন্দ্র মোদী।

জোটের হাওয়া জোরালো হয়ে উঠছে দেখে অখিলেশ-রাহুলের বিরুদ্ধে আরও বেশি আক্রমণাত্মক হয়ে উঠছেন প্রধানমন্ত্রী। কংগ্রেস–সমাজবাদী পার্টির শক্তি কমাতে মায়াবতীকে কাজে লাগানোর জন্যও মোদী তৎপর হয়েছেন। পাশাপাশি, নোট বাতিল নিয়ে এখন সরাসরি জোর গলায় আত্মপক্ষ সমর্থনে প্রচার করতে চাইছেন বিজেপি নেতারা। নরেন্দ্র মোদী-অমিত শাহরা ঠিক করেছেন, ব্যাকফুটে নয়, এগিয়ে খেলেই উত্তরপ্রদেশে ভোটের প্রচার চালাবেন। এমনকী, প্রধানমন্ত্রী আজ ফতেপুরের জনসভায় মেরুকরণের তাসও খেলে দিয়েছেন। মোদী বলেন, ‘‘গ্রামে কবরস্থানের জায়গা করা হলে শ্মশানঘাটও বানানো উচিত। যদি রমজানের সময় বিদ্যুৎ দেওয়া হয়, দীপাবলির সময়েও তা দিতে হবে।’’ ভোটের মাঝপথে গো-মাংস বিতর্কও শুরু হয়েছে। অমিত শাহ বলেছেন, উত্তরপ্রদেশে বিজেপি ক্ষমতায় এলে সব কসাইখানা বন্ধ করে ছাড়বে। আর অখিলেশের পাল্টা চ্যালেঞ্জ, মোদী আর অমিত শাহ দিল্লি ফিরে গিয়ে মাংসের রফতানি বন্ধ করে দেখান।

Loading...

২)শিশু পাচারে জড়াল বিজেপি নেত্রীর নাম

দত্তক দেওয়ার নাম করে বিদেশে শিশু পাচার করে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে জলপাইগুড়ির একটি হোমের বিরুদ্ধে। সেই অভিযোগে নাম জড়াল বিজেপির রাজ্য মহিলা মোর্চার সাধারণ সম্পাদিকা জুহি চৌধুরীরও। হোমের কর্ণধার চন্দনা চক্রবর্তী, আধিকারিক সোনালি মণ্ডল ইতিমধ্যেই গ্রেফতার হয়েছেন। জুহির বিরুদ্ধে সিআইডি জলপাইগুড়ি কোতোয়ালি থানায় শিশু পাচারের অভিযোগ করেছে।

জুহির দাবি, ‘‘আমি তো চন্দনা চক্রবর্তীকে চিনতাম না। দিনকয়েক আগে তিনি আমার কাছে এসে রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ করেন। হাইকোর্টে মামলা করেছেন বলে দাবি করেন। সব শুনে যথাযথ কর্তৃপক্ষকে জানাতে বলেছি।’’ কিন্তু তদন্তের পরে সিআইডির দাবি, জুহির সঙ্গে অভিযুক্তরা নিয়মিত যোগাযোগ রাখতেন। সম্প্রতি দিল্লিতে গিয়ে কেন্দ্রীয় নারী ও শিশু উন্নয়ন মন্ত্রকের কর্তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করেন অভিযুক্তরা। একাধিক শিশুকে দত্তক দেওয়ার জাল নথি তৈরি করলেও হোমের লাইসেন্স পুনর্নবীকরণের সময় সেগুলি খুঁটিয়ে পরীক্ষা করা হয়নি বলে অভিযোগ। সিআইডি জানিয়েছে, বিজেপি নেত্রীর সঙ্গে যোগাযোগের সুবাদে অভিযুক্তরা পরীক্ষা থেকে ছাড় পেয়েছিল কি না, তা দেখা হচ্ছে ।

৩) সরে যাননি, সরিয়ে দেওয়া হল ধোনিকে

এত দিন তাঁর সম্পর্কে বলা হতো, কাউকে কোঁতল করার সুযোগই দেন না। নিজে থেকে ছেড়ে দিয়ে যান অধিনায়কত্ব বা দলের সদস্যের জায়গা।

যেমন অস্ট্রেলিয়া সফরের মাঝপথে আচমকাই অবসর ঘোষণা করে দিয়েছিলেন টেস্ট থেকে। তেমনই একদিনের দলের অধিনায়কত্ব থেকে সরে দাঁড়িয়েছিলেন নিজে থেকে। আইপিএলের ক্ষেত্রে সেই সুযোগ আর পেলেন না মহেন্দ্র সিংহ ধোনি। দশম আইপিএলের নিলামের আগের দিনই তাঁকে অধিনায়কত্বের পদ থেকে ছেঁটে ফেলল রাইজিং পুণে সুপারজায়ান্টস। ভারতীয় অধিনায়কত্ব ছাড়ার সময় ‘তিনি নিজেই সরে গিয়েছেন’ বলে ভারতীয় বোর্ডের তরফে জানানো হয়েছিল। যদিও কারও কারও সন্দেহ, ধোনি সরে যেতে বাধ্য হয়েছিলেন। কোনও কোনও মহলের দাবি, জাতীয় নির্বাচকেরা ঠিকই করে নিয়েছিলেন, নেতৃত্বে বদল আনবেন। ব্যাটিংয়ে ধার কমে যাওয়া ধোনিকে আর অধিনায়ক হিসাবে রাখতে চাইছিলেন না কেউ। তেমনই দুর্ধর্ষ ফর্মে থাকা কোহালি অনেক ন্যায্য দাবিদার হয়ে উঠেছিলেন।

৪) হাফিজদের শাস্তি নিশ্চিত করতে উদ্যোগী দিল্লি

নতুন মার্কিন প্রশাসনের চাপে লোক দেখানো পাক পদক্ষেপ? নাকি নয়াদিল্লির দীর্ঘদিনের উদ্বেগকে গুরুত্ব দিয়ে ভারত-বিরোধী জঙ্গিদের বিরুদ্ধে এগোনো? এই দু’টি সম্ভাবনাকে সামনে রেখে জামাত উদ দাওয়া প্রধান হাফিজ সইদের বিরুদ্ধে পাক সন্ত্রাস-বিরোধী আইন প্রয়োগকে মাপতে চাইছে দিল্লি। প্রকাশ্যে বিষয়টি নিয়ে বিশদে প্রতিক্রিয়া দেওয়া হচ্ছে না। তবে ঘরোয়া ভাবে বিদেশ মন্ত্রকের এক কর্তা জানান, ‘‘পাকিস্তানের সঙ্গে দীর্ঘমেয়াদি শান্তি তৈরি হবে, এক কথায় তারা সমস্ত সন্ত্রাসঘাঁটি নির্মূল করে দেবে—এমনটা আমরাও আশা করছি না।’’ তাঁর কথায়, ‘‘ডোনাল্ড ট্রাম্প ক্ষমতায় আসার পর যে বার্তাগুলি ইসলামাবাদের কাছ থেকে পাওয়া যাচ্ছে তা ইতিবাচক। একে কাজে লাগিয়ে মুম্বই এবং পঠানকোট হামলার সঙ্গে যুক্ত জঙ্গিদের শাস্তি নিশ্চিত করতে চাইছি আমরা।’’ বিদেশ মন্ত্রক কর্তাদের মতে, এটা ঘটনা যে হাফিজ সইদের বিরুদ্ধে এখনও পর্যন্ত যেটুকু পদক্ষেপ করেছে নওয়াজ শরিফ সরকার তা এর আগে ভাবাও যায়নি। দীর্ঘদিন ধরেই পাক সেনা তথা আইএসআই-এর সঙ্গে ঘনিষ্ঠ যোগাযোগ রেখে চলেছেন হাফিজ। তাই বার বার ভারত হাফিজকে গ্রেফতারের দাবি জানালেও নির্বিবাদে পাকিস্তানের মাটিতে ভারত-বিরোধী বক্তৃতা এবং সভা করে গিয়েছেন এই জঙ্গি নেতা। তবে এ বার তিনি সন্ত্রাস-বিরোধী আইনের আওতায় আসার ফলে জনসভা আর করতে পারবেন না।

bartaman_big11

১) ‘ক্যাডবেরি বয়ে’র আচরণে বিপাকে সিপিএম

দলের রাজ্যসভার তরুণ সংসদ সদস্য ঋতব্রত বন্দ্যোপাধ্যায়ের ‘অ-কমিউনিস্টসুলভ’ আচরণে বেজায় উদ্বিগ্ন সিপিএম। আজ দিল্লিতে দলের পলিটব্যুরোর বৈঠকে এই ইস্যু নিয়ে দীর্ঘ আলোচনা হয়। তারপর সিপিএমের সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরি সাফ জানান, পশ্চিবমঙ্গ রাজ্য কমিটি যে এই আচরণকে অনুমোদন করে না, তা আমাদের ইতিমধ্যেই তারা জানিয়ে দিয়েছে। পলিটব্যুরোও একে অনুমোদন করছে না। বিষয়টা এখন রাজ্য কমিটি বিচার করে দেখবে। দলের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য কমিটির এক সদস্য বলেন, চলতি সপ্তাহেই রাজ্য কমিটির বৈঠক হওয়ার কথা। সেখানে ঋতব্রতর কাছ থেকে এ ব্যাপারে মৌখিক কৈফিয়ৎ চাওয়া হতে পারে।

২) দিল্লির কিছু নেতার সঙ্গে সম্পর্ক ভাঙিয়ে বিদেশে শিশু বিক্রি করত বিজেপি নেত্রী

জলপাইগুড়ি শিশু পাচারকাণ্ডে এফআইআরে নাম থাকা বিজেপি নেত্রী জুহি চৌধুরির সঙ্গে দিল্লির বেশকিছু নেতার যোগ মিলছে। তাঁদের ‘ম্যানেজ’ করেই হোমের শিশুদের নথি পাঠানো হয়নি কেন্দ্রীয় সরকারের সংস্থা সেন্ট্রাল অ্যাডপটেশন রিসোর্স অথরিটির (কারা) কাছে। নথিভুক্ত না করানো লুকিয়ে রাখা শিশু চড়া দামে বিক্রি করা হয়েছে বিদেশের বিভিন্ন জায়গায়। ওই হোমকে যাতে কালো তালিকাভুক্ত করা না হয়, সেজন্য প্রভাব খাটিয়েছেন দিল্লির ওই সমস্ত নেতারা। তদন্তে নেমে এইসব চাঞ্চল্যকর তথ্য উঠে এসেছে বলে দাবি সিআইডির। অভিযোগ, কারা দপ্তরের কর্তারা যাতে এই হোমে তল্লাশি না চালান, সেজন্য বিভিন্ন সময়ে নির্দেশ গিয়েছে। অফিসারদের দাবি, এই হোম থেকে যে শিশু বিক্রি হয়, তা জানতেন এই নেতারাও। এর বিনিময়ে জুহিদেবীর মাধ্যমে ভেটও গিয়েছে সংশ্লিষ্টদের কাছে। তদন্ত সূত্রে যে সমস্ত নেতার নাম উঠে এসেছে, তাঁদের কারও পরিচিত বা ঘনিষ্ঠজনেরা কেউ এই হোম থেকে শিশু কিনেছেন কি না, তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

৩) প্রয়াত বনশ্রী সেনগুপ্ত

‘আজ বিকালের ডাকে তোমার চিঠি পেলাম’...। না, বিকাল পর্যন্ত আর অপেক্ষা করতে হল না। রবিবার বেলা ১১টা নাগাদ মৃত্যুর বার্তা লেখা চিঠি এসে পৌঁছাল এসএসকেএম-এর উডবার্ন ওয়ার্ডের সেই কেবিনে। নিথর হলেন সংগীত শিল্পী বনশ্রী সেনগুপ্ত (৭১)। থেকে গেল তাঁর অসামান্য সৃষ্টি। তাঁর কণ্ঠেই অমরত্ব লাভ করেছে ‘দূর আকাশে তোমার সুর’, ‘আমার অঙ্গে জ্বলে রংমশাল’সহ অসংখ্য জনপ্রিয় গান। সূত্রের খবর, ফুসফুসে সংক্রমণ হয়ে বেশ কিছুদিন ধরেই সেখানে ভরতি ছিলেন তিনি।

৪) ফতেপুর থেকে তোপ মোদির, পালটা ঝাঁসি থেকে কামান দাগলেন রাহুল, অখিলেশ

উত্তরপ্রদেশে তৃতীয় দফার ভোটের দিনই তরজা উঠল জমে! ‘হারবে বুঝে গিয়ে বেচারা অখিলেশের তো মুখ শুকিয়ে গিয়েছে দেখলাম! উত্তরপ্রদেশে উন্নয়নকে বনবাসে পাঠিয়ে দিয়েছে সমাজবাদী পার্টির (সপা) সরকার।’ মন্তব্য করলেন প্রধানমন্ত্রী। রাহুল গান্ধীকে কটাক্ষ করে বললেন, সোনার চামচ মুখে নিয়ে জন্মেছেন। কিন্তু এখন বুঝে গিয়েছেন, হাল বেহাল। অন্য঩দিকে, ‘আমার নয়। ভোটের ফলাফল বেরনোর পর বিজেপি নেতাদেরই ব্লাড প্রেসার পরীক্ষা করাতে হবে।’ পালটা তোপ দাগলেন অখিলেশ যাদব। রাহুলের জবাব, কংগ্রেস-সপা জোট হতে ভয়ে চেহারাই বদলে গিয়েছে নরেন্দ্র মোদির।’ ফতেপুর থেকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বিদায়ী মুখ্যমন্ত্রী অখিলেশ যাদবকে আক্রমণ করতেই ঝাঁসির যৌথ সভায় এভাবেই পাল্টা তোপ দাগলেন রাহুল-অখিলেশ।

First published: 09:16:10 AM Feb 20, 2017
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर