The Accidental Prime Minister Movie Review: পলিটিক্যাল ড্রামা নয়, বরং সস্তা কমেডি !

Akash Misra | News18 Bangla
Updated:Jan 11, 2019 03:23 PM IST
The Accidental Prime Minister Movie Review: পলিটিক্যাল ড্রামা নয়, বরং সস্তা কমেডি !
Akash Misra | News18 Bangla
Updated:Jan 11, 2019 03:23 PM IST

#কলকাতা: এমনিতে বলিউডে খুব একটা রাজনৈতিক ছবি হতে দেখা যায় না ৷ প্রকাশ ঝা বেশ কয়েকটি বানিয়েছেন অবশ্যই, যা কিনা বক্স অফিসে সাফল্যও পেয়েছে ৷ তবে সেই সব ছবিতে মূলত বাস্তব ঘটনা থেকে কিছুটা অনুপ্রাণিত হয়ে তৈরি হয়েছে গল্প ৷ তা প্রকাশ ঝা-র ‘রাজনীতি’ কিংবা ‘সত্যগ্রহ’ দেখলেই স্পষ্ট হয়ে যায় ৷ এমনকী, বলিউডে কোনও বিশেষ রাজনৈতিক ব্যক্তিকে নিয়েও ছবির সংখ্যা বেশ কম ! তবে সঠিক অর্থে যদি পলিটিক্যাল ড্রামা হিসেবে কোনও ছবিকে বাছা যায়, যেখানে কিনা ভারতীয় রাজনীতি ফুটে ওঠে, তাহলে সবার আগে মনে পড়বে ‘গান্ধি’ ছবির কথা ৷ পরিচালক স্যার রিচার্ড অ্যাটেনবার্গ মহাত্মার ব্যক্তিত্ব, ভারতীয় রাজনীতির সঠিক মিশেল দেখিয়েছিলেন ছবিতে ৷ সেদিক থেকে দেখলে, পরিচালক বিজয় গুট্টের ‘দ্য অ্যাক্সিডেন্টাল প্রাইম মিনিস্টার’ হতেই পারত সঠিক অর্থে বলিউডে তৈরি হওয়া এক পলিটিক্যাল ড্রামা ৷ কিন্তু শেষমেশ, তা আর হয়ে উঠল না ! অনুপম খেরের শত চেষ্টার পরেও ছবি বেশ কিছুটা ক্যারিকেচার হয়ে রইল !

আরও পড়ুন 

Simmba Movie Review: ছবির নাম রণবীর সিং হলেও ক্ষতি ছিল না

পরিচালক বিজয় গুট্টে ছবির গল্প ধার করেছিল সঞ্জয় বারুর একই নামের বই থেকে ৷ বরং, বিজয়ের ছবিতে অক্ষয় খান্না অভিনয়ও করেছেন সঞ্জয় বারু-র চরিত্রে ৷ আর তা চোখ দিয়েই ‘অ্যাক্সিডেন্টাল প্রাইম মিনিস্টার’ ছবির গল্প এগিয়ে নিয়ে চলা ৷ এই ছবির সময়কাল, ২০০৪ থেকে ২০১৪ ৷ সিনেমার প্লট অনুযায়ী, এই সময়ে দেশ পেল এক দুর্বল প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং ৷ যিনি কংগ্রেস চেয়ারপার্সন সোনিয়া গান্ধির হাতের ইশারায় চলতেন ৷ সেই সময় রাজনৈতিক মহলে একটাই কথা চলত, সোনিয়া গান্ধির কথাই আসলে বলতেন মনমোহন সিং ৷ ছবিতে বার বারই মনমোহন সিংয়ের চরিত্রকে খর্ব করে দেখানো হয়েছে ৷ দেখানো হয়েছে কংগ্রেসের হাতের পুতুল হিসেবে ৷ সিনেমায় এসেছে সেই সময়ের নানা দুর্নীতির কথাও ৷ বিশেষ করে দেখানো হয়েছে, নিউক্লিয়ার ডিল নিয়ে ওঠা বিতর্ক ৷ তবে প্রতিটি ক্ষেত্রে অতিরঞ্জিত ! অনেক সময়ই মনে হবে, দৃশ্যকে নাটকীয় করে তোলার জন্য ‘মিথ্যে’ বাস্তবের সাহায্য নেওয়া হয়েছে ৷ গোটা ছবিতেই বহুবার ব্যবহৃত হয়েছে এরকমই মিথ্যে বাস্তব ! আর যা কিনা ছবির চিত্রনাট্যকে দুর্বলতর করে তুলেছে৷

মনমোহন সিং চরিত্রে নিজেকে তুলে ধরার জন্য অনুপম খের যে খেটেছেন, তা গোটা ছবি জুড়ে স্পষ্ট ৷ কিন্তু ছবিতে সঞ্জয় মারু হিসেবে অক্ষয় খান্না, সোনিয়ার ভূমিকায় সুশান বার্নেটের চরিত্রগুলো একটু বেশি নাটকীয় ৷ যা কিনা ছবিকে কোথাও গিয়ে ক্যারিকেচারে পরিণত করে ৷ বিশেষ করে মনমোহন সিংয়ের মিডিয়া উপদেষ্টা হিসেবে অক্ষয় খান্না যে ছবির কমেডি রিলিফ ! অভিনেতাদের লুক অ্যান্ড ফিলে বাস্তবের সঙ্গে বেশিমাত্রায় মিল খুঁজতে গিয়ে অভিনয়কে কম গুরুত্ব দিয়েছেন পরিচালক তা কিন্তু স্পষ্ট হয়ে ওঠে প্রায় প্রত্যেকটি ফ্রেমে ৷

Loading...

তবে সব শেষে প্রশ্ন ওঠে একজন মৃদুভাষী মানুষ, অর্থনীতিবিদ ও দু’বার ভারতের প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংকে নিয়ে ‘অর্থব’ ছবি বানানোর কি কোনও প্রয়োজনীওতা ছিল ? প্রশ্ন ওঠে এই ছবি কী শুধু লোকসভা নির্বাচনকে মাথায় রেখেই তৈরি এক প্রোপাগান্ডা ছবি ? অন্তত, সঠিক অর্থে পলিটিক্যাল ছবি বা বায়োপিকের সত্যতা কোনওভাবেই রাখতে পারে না ‘দ্য অ্যাক্সিডেন্টাল প্রাইম মিনিষ্টার’ !

First published: 03:23:51 PM Jan 11, 2019
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर