বাকশক্তি নষ্ট হতে পারে! ভয়ে মস্তিষ্কে অপারেশন চলাকালীন হনুমান চল্লিশা পাঠ করলেন রোগী

বাকশক্তি নষ্ট হতে পারে! ভয়ে মস্তিষ্কে অপারেশন চলাকালীন হনুমান চল্লিশা পাঠ করলেন রোগী

অস্ত্রোপচারের সময় অজ্ঞান করা হয়নি তাঁকে ৷ বাকযন্ত্রকে সক্ষম রাখতে সে সময় হনুমান চল্লিশা পাঠ করছিলেন হুলাসমল ৷

  • Share this:

#জয়পুর: অদ্ভ‌ুত ঘটনা ঘটল রাজস্থানের জয়পুরে ৷ মস্তিষ্কে টিউমরের অস্ত্রোপচার চলাকালীন হনুমান চল্লিশা পাঠ করলেন এক রোগী ৷ বছর ত্রিশের এক ব্যক্তি এপিলেপসিতে ভুগছিলেন অনেকদিন ধরেই ৷ হুলাসমল জঙ্গির নামের ওই ব্যক্তি বিকানিরের একজন কম্পিউটার অ্যাকাউন্ট্যান্ট ৷ কিন্তু এপিলেপসির সমস্যা নিয়ে চিকিৎসকের কাছে যাওয়ার পর তাঁরা জানান, টিউমর রয়েছে হুলাসমলের মস্তিষ্কে ৷ যত শীঘ্র সম্ভব তা অস্ত্রোপচার করতে হবে ৷ কিন্তু মুশকিল বাঁধে অন্য জায়গায় ৷ চিকিৎসকরা জানান, এই অস্ত্রোপচারে হুলাসমলের বাকশক্তি পুরোপুরি নষ্ট হয়ে যেতে পারে ৷ সে সময় পুরোপুরি মানসিকভাবে ভেঙে পড়েন ওই ব্যক্তি ৷ তবে চিকিৎসকরা জানান, একটা উপায় আছে ৷ যদি ওই ব্যক্তি অপরেশনের সময় কথা বলেন বা সব সময় সজাগ থাকেন তা হলে বাকযন্ত্র সচল থাকবে ৷

ডাক্তারি পরিভাষায় এই অস্ত্রোপচারকে ‘Awake Craniotomy’ বা ‘Awake Brain Surgery’ বলে ৷ শেষ পর্যন্ত নারায়ণা মাল্টিস্পেশ্যালিটি হসপিটালে ডক্টর কেকে বনসলের নেতৃত্বে ৮জন চিকিৎসকের একটি দল অপারেশন করে হুলাসমলের ৷ অস্ত্রোপচারের সময় অজ্ঞান করা হয়নি তাঁকে ৷ বাকযন্ত্রকে সক্ষম রাখতে সে সময় হনুমান চল্লিশা পাঠ করছিলেন হুলাসমল ৷

অস্ত্রোপচার সফল হওয়ার পর এএনআই-কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে ডক্টর বনসল বলেন, ‘‘কাজটা খুবই কঠিন ছিল ৷ এটি একটি বিশেষ ধরনের অপারেশন ৷ যেখানে রোগীকে অজ্ঞান করা হয় ৷ তার উপর যে জায়গায় টিউমরটা ছিল তার খুব কাছাকাছি আমাদের শ্রবণ, দৃষ্টি আর শরীর নড়াচড়া করার নার্ভগুলি রয়েছে ৷’’

First published: December 31, 2018, 7:42 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर