প্রযুক্তি

corona virus btn
corona virus btn
Loading

সারা বিশ্বে হঠাৎ থমকে গেল ট্যুইটার, স্বাভাবিক হতেই ছেয়ে গেল মিমের বন্যায়

সারা বিশ্বে হঠাৎ থমকে গেল ট্যুইটার, স্বাভাবিক হতেই ছেয়ে গেল মিমের বন্যায়

ঘণ্টাখানেক পরই আবার স্বমহিমায় ফিরে আসে ট্যুইটার

  • Share this:

ভোররাতে কিছুক্ষণের জন্য থেমে যায় ট্যুইটার। আর এর পর থেকেই শোরগোল পড়ে যায় সোশ্যাল মিডিয়ায়। ট্যুইটার ডাউনটাইমের পর কেউ অ্যাকাউন্টের নিরাপত্তা নিয়ে ভুগতে শুরু করেন। কেউ বা মিম বানিয়ে ব্যঙ্গ করে ক্ষোভ উগরে দেন ট্যুইটার কর্তৃপক্ষর উপর। কিন্তু ঠিক কী হয়েছিল?

সোশ্যাল মিডিয়া আউটেজ বা ডাউনটাইম ট্র্যাকিং ওয়েবসাইট Downdetector.com-এর মতে, ভোররাত সাড়ে তিনটা নাগাদ এই সমস্যার সম্মুখীন হন ব্যবহারকারীরা। বিশ্ব জুড়ে প্রায় ৫৯,০৮২ ব্যবহারকারীর ট্যুইট কার্যত স্তব্ধ হয়ে যায়। তবে অধিকাংশ ক্ষেত্রে আমেরিকা ও জাপানের ট্যুইটার-ব্যবহারকারীদের কাছ থেকেই এই সমস্যা নিয়ে অভিযোগ এসেছে।

এ বিষয়ে ট্যুইটারের তরফে একটি বিজ্ঞপ্তি জারি করে বলা হয়, অনেকেরই ট্যুইট অ্যাকাউন্ট হঠাৎ করে বন্ধ হয়ে গিয়েছে। আচমকা এই ডাউনটাউমের কারণ জানার চেষ্টা করা হচ্ছে। ইন্টারনাল সিস্টেমে কিছু সমস্যার জেরেই এই পরিস্থিতি। তবে, দ্রুত ব্যাকআপের জন্যও কাজ শুরু হয়েছে। ইতিমধ্যেই অনেকে অ্যাকাউন্ট হ্যাক হয়ে যাওয়ার আতঙ্কে ভুগতে শুরু করেছিলেন। কিন্তু সে বিষয়েও আশ্বস্ত করে ট্যুইটার। জানানো হয়, ট্যুইট অ্যাকাউন্ট হ্যাক হয়ে যাওয়া বা নিরাপত্তাসংক্রান্ত কোনও সমস্যা নেই। শুধুমাত্র ইন্টারনাল সিস্টেমেই কিছু সমস্যা হয়েছে। সেটাই ঠিক করার চেষ্টা চলছে। এর পর বেশি সময় লাগেনি। ঘণ্টাখানেক পরই আবার স্বমহিমায় ফিরে আসে ট্যুইটার।

এর পর থেকেই শুরু হয় ট্যুইট-রিট্যুইট এবং কমেন্টের বন্যা। ট্যুইট আউটেজ বা ডাউনটাইমের উপরে মিম-ফোটো বানিয়ে পোস্ট করতে শুরু করেন অনেকে। কেউ ক্ষোভ প্রকাশ করে লেখেন, আরে তোদের অ্যাপটা ঠিক কর! কেউ আবার বিরক্ত হয়ে নানা স্মাইলি দিয়ে জিজ্ঞেস করেন, এ কেমন ব্যবহার ট্যুইটার? যেখানেই যাই দেখাচ্ছে যে এই ট্যুইটের কোনও অস্তিত্ব নেই! কেউ বাড়ির জানালায় দাঁড়ানোর ছবি ব্যঙ্গ করে পোস্ট করেন। ছবিতে লেখেন ট্যুইট ডাউনটাইমের পর তিনি পাশের বাড়ির মহিলাটিকে জিজ্ঞেস করছেন, ওই মহিলা এই ১৪০ ক্যারাক্টারের মনোলোগ সম্পর্কে আগ্রহী কি না!

ইন্টারনাল সিস্টেমে কোনও পরিবর্তনের জেরে হঠাৎ করে কোনও সোশ্যাল মিডিয়া কিছুক্ষণের স্তব্ধ হয়ে যাওয়া বা ডাউনটাইমের এই বিষয়টি আজকাল নতুন কিছু নয়। কারণ সপ্তাহ দুয়েক আগে ১ অক্টোবরও ট্যুইটারে ডাউনটাইম দেখা যায়। Downdetector.com এর আগে গত মাসে Facebook ও Instagram-এও প্রায় ৭৫,০০০ ব্যবহারকারীর সঙ্গে ডাউনটাইমের এই সমস্যা লক্ষ্য করে।

Published by: Ananya Chakraborty
First published: October 16, 2020, 3:34 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर