• Home
  • »
  • News
  • »
  • technology
  • »
  • ১৫ মিনিটে ফুল চার্জ, আগামী বছর ২০০ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং-সহ ফোন আনতে পারে Xiaomi

১৫ মিনিটে ফুল চার্জ, আগামী বছর ২০০ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং-সহ ফোন আনতে পারে Xiaomi

অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন বলেন, মোবাইল ফোন শিল্প খুব দ্রুত বৃদ্ধি পাচ্ছে। মোবাইল ফোন ও চার্জার আমরা রফতানি করছি। ২.৫ শতাংশ আমদানি কর সেটার উপর ধার্য করা হল। বাড়তে পারে চার্জারের দাম

অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন বলেন, মোবাইল ফোন শিল্প খুব দ্রুত বৃদ্ধি পাচ্ছে। মোবাইল ফোন ও চার্জার আমরা রফতানি করছি। ২.৫ শতাংশ আমদানি কর সেটার উপর ধার্য করা হল। বাড়তে পারে চার্জারের দাম

৪৫০০ mAh ব্যাটারি মাত্র ১৫ মিনিটের মধ্যেই সম্পূর্ণ চার্জ করতে পারবে একটি ২০০ W+ ফাস্ট চার্জিং টেকনোলজি

  • Share this:

এ বছর প্রথমবার ১২০ w ফাস্ট চার্জিং টেকনোলজির সঙ্গে পরিচয় করিয়েছিল Xiaomi। Mi 10 Ultra স্মার্টফোন লঞ্চিংয়ের মধ্য দিয়ে এই নতুন ফাস্ট চার্জিং টেকনোলজি আমাদের সামনে আনে চিনা ফোনপ্রস্তুতকারী সংস্থাটি। তবে এতেই থেমে নেই এই টেক-জায়ান্ট। সূত্রে খবর, এ বার আরও বেশি ক্ষমতা সম্পন্ন ফাস্ট চার্জিং টেকনোলজির উপরে কাজ শুরু করে দিয়েছে Xiaomi। ডিজিটাল পোর্টাল Android Central-এর সম্প্রতি প্রকাশিত এক রিপোর্ট অনুযায়ী, সামনের বছরেই 200W+ ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট ফোন আনতে পারে এই সংস্থা।

Android Central-এর তরফে জানা গিয়েছে, ২০২১ সালেই প্রথম স্মার্টফোন আসতে পারে। যাতে ২০০ W+ ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট করে। এ বিষয়ে টেকবিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন, Mi 10 Ultra-এর ১২০ w ফাস্ট চার্জিং টেকনোলজি মাত্র ২৩ মিনিটে ৪৫০০ mAh ব্যাটারি সম্পূর্ণ চার্জ করতে পারে। কিন্তু সেই একই ৪৫০০ mAh ব্যাটারি মাত্র ১৫ মিনিটের মধ্যেই সম্পূর্ণ চার্জ করতে পারবে একটি ২০০ W+ ফাস্ট চার্জিং টেকনোলজি। এখন দেখার বিষয় হল কোন মডেলে এই ফাস্ট চার্জিং টেকনোলজিকে ব্যবহার করতে চলেছে Xiaomi।

তবে এ নিয়ে নানা বিতর্কও দানা বেঁধেছে। অনেকে বলছেন এই ২০০ W+ ফাস্ট চার্জিংয়ের জেরে ফোনের ব্যাটারি লাইফে গুরুতর প্রভাব পড়তে পারে। তবে টেকবিশেষজ্ঞদের একাংশ জানাচ্ছেন, Xiaomi যখন ২০০ W+ ফাস্ট চার্জিং নিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষার লক্ষ্যে নেমেছে, তখন ব্যাটারির স্বাস্থ্য নিয়েও যথাযথ ভাবনা-চিন্তা করছে তারা। নিশ্চয় কোনও উপায় বাতলাবে এই প্রস্তুতকারী সংস্থা। অনেকে আবার বলছেন এই ফাস্ট চার্জিং টেকনোলজিকে আলাদা কোনও অপশনাল ডিভাইজ হিসেবে আনতে পারে প্রস্তুতকারী সংস্থা।

সেই একই প্রতিবেদনে আরও বেশ কয়েকটি বিষয় নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে। জানা গিয়েছে, বর্তমানে ফোল্ডেবল স্মার্টফোন ও আন্ডার স্ক্রিন সেলফি ক্যামেরা টেকনোলজির উপরে কাজ করছে Xiaomi। অন্যান্য টেক-ওয়েবসাইটগুলিতেও এ নিয়ে ইঙ্গিত মিলেছে। শোনা যাচ্ছে, ১০৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরার একটি ফোল্ডেবল ফোন নিয়ে কাজ করছে Xiaomi।

প্রসঙ্গত, একই ক্যামেরা টেকনোলজির হাত ধরে শীঘ্রই বাজারে একটি নতুন স্মার্টফোন আনতে পারে Xiaomi-এর সাব ব্র্যান্ড Redmi। এই মাস বা সামনের মাসের মধ্যেই বাজারে লঞ্চ হতে পারে নতুন ফোনটি। তবে, Redmi Note 10 সিরিজ নয়, Redmi Note 9 সিরিজের আসন্ন মডেলগুলির মধ্যেই একটি হতে পারে এই ফোন।

Published by:Ananya Chakraborty
First published: