পুরনো ফোন থেকে তৈরি হচ্ছে গৃহস্থালির নানা সরঞ্জাম, সৌজন্যে Samsung Galaxy-র আপসাইক্লিং প্রোগ্রাম!

২০১৭ সালে এই প্রচেষ্টার সূত্রপাত। সেই সময়ে Galaxy আপসাইক্লিং প্রোগ্রাম (Galaxy Upcycling Program) শুরু করেছিল ফোনপ্রস্তুতকারী সংস্থা Samsung।

২০১৭ সালে এই প্রচেষ্টার সূত্রপাত। সেই সময়ে Galaxy আপসাইক্লিং প্রোগ্রাম (Galaxy Upcycling Program) শুরু করেছিল ফোনপ্রস্তুতকারী সংস্থা Samsung।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: ২০১৭ সালে এই প্রচেষ্টার সূত্রপাত। সেই সময়ে Galaxy আপসাইক্লিং প্রোগ্রাম (Galaxy Upcycling Program) শুরু করেছিল ফোনপ্রস্তুতকারী সংস্থা Samsung। লক্ষ্য ছিল পুরনো ফোনগুলিকে একটি নতুন ও অন্য রকম পদ্ধতিতে ব্যবহার করা, ফোনগুলিকে একদম অন্য ভাবে কাজে লাগানো। সেই সূত্রেই পুরনো ফোন থেকে তৈরি হচ্ছে একের পর গৃহস্থালির জিনিস। তৈরি হচ্ছে আর্কেড মেশিন, অটোমেটিক পেট ফিডার-সহ একাধিক সরঞ্জাম।

বিশেষজ্ঞদের কথায়, গত বছরই প্রায় ৫০ মিলিয়ন টন ইলেকট্রনিক্স সরঞ্জাম ব্যবহারের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। আর এই ক্রমবর্ধমান অব্যবহৃত জিনিসগুলি থেকেই নতুন কিছু উদ্ভাবনের চেষ্টায় রয়েছে Samsung Galaxy-এর আপসাইক্লিং টিম। এক্ষেত্রে পুরনো ফোনগুলি থেকে আর্কেড মেশিন, অটোমেটিক পেট ফিডার, স্মার্ট ফিশ ট্যাঙ্ক মনিটর-সহ নানা জিনিস তৈরি করা হচ্ছে। এই স্মার্ট ফিশ ট্যাঙ্ক মনিটরের কাজ চমকে দেবে আপনাকে। এক্ষেত্রে একটি টেক্সট মেসেজের মাধ্যমেই এই যন্ত্রের সেন্সর কাজ করতে শুরু করে। মাছেদের খাওয়ানোর পাশাপাশি নিজে থেকেই অ্যাকোরিয়ামের আলো জ্বলে ওঠে। এখানেই শেষ নয়। ফোনের প্লাস্টিক প্যাকেজিং থেকে একটি স্মার্ট পেট বোল (Smart Pet Bowl) তৈরি করা হয়েছে। যার সাহায্যে অত্যাধুনিক প্রযুক্তিতে পোষ্যদের খাওয়ানো যায়। এই বছরও একটি নতুন লক্ষ্য নিয়েছে এই Galaxy আপসাইক্লিং প্রোগ্রাম। এক্ষেত্রে নতুন সফটওয়্যারের মাধ্যমে পুরনো ফোনগুলিকে ফ্ল্যাশ করার কাজ চলছে। নিচের ভিডিওতে এমনই দু'টি দৃষ্টান্ত তুলে ধরা হয়েছে। প্রথমে একটি ফোনকে বেবি মনিটর হিসেবে গড়ে তোলা হয়েছে। দারুণ ভাবে কাজ করে এই যন্ত্রটি। যখন কোনও বাচ্চা কেঁদে উঠবে, তখন তড়িঘড়ি নোটিফিকেশন পৌঁছে যাবে। এর ফলে সচেতন হয়ে যাবেন বাবা-মায়েরা। আর একটি যন্ত্রের সাহায্যে অন্ধকার হলেই আলো জ্বালানো যাবে। এতে কেউ বাড়িতে না থাকলেও তাঁদের পোষ্যরা সুরক্ষিত থাকবে। উল্লেখ্য, গত বছর পুরনো Galaxy ফোনগুলি দিয়ে একটি চোখ পরীক্ষার যন্ত্র তৈরি করেছিল সংশ্লিষ্ট সংস্থা। এক্ষেত্রে Samsung TV থেকে কার্ডবোর্ড বক্স বের করে নিয়ে গৃহস্থালির জিনিসপত্র তৈরি করার পরিকল্পনাও চলছে। সেই কথা মাথায় রেখে ২০২১ সালের সমস্ত টিভিতে কার্ড বোর্ড বসানোর কথা জানিয়েছে প্রস্তুতকারী সংস্থা।
Published by:Akash Misra
First published: