তীব্র গরমে হাঁসফাঁস হয়ে এয়ার কুলার কেনার পরিকল্পনা করছেন? তার আগে মাথায় রাখুন এই দিকগুলি

তীব্র গরমে হাঁসফাঁস হয়ে এয়ার কুলার কেনার পরিকল্পনা করছেন? তার আগে মাথায় রাখুন এই দিকগুলি

তীব্র গরমে হাঁসফাঁস হয়ে এয়ার কুলার কেনার পরিকল্পনা করছেন? তার আগে মাথায় রাখুন এই দিকগুলি!

দামের পাশাপাশি কুলার কেনার আগে আরও বেশ কয়েকটি জিনিস মাথায় রাখা প্রয়োজন বা দেখে নেওয়া প্রয়োজন।

  • Share this:

তীব্র গরমে হাঁসফাঁস অবস্থা প্রায় সকলের। যত দিন বাড়ছে, তাপমাত্রা বাড়ছে। এই পরিস্থিতিতে AC-তে থাকা ভালো থাকা বা আরামে থাকার অন্যতম উপায়। কিন্তু যদি কেউ AC কিনতে না চান বা AC কেনা সম্ভব না হয়, তাঁর জন্য রয়েছে এয়ার কুলার। যা সহজেই ঘর ঠাণ্ডা করতে পারে ও হাঁসফাঁস অবস্থা থেকে মুক্তি দিতে পারে।

কিন্তু বাজারে হরেক রকমের এয়ার কুলার পাওয়া যায়। দামও ব্র্যান্ড আর ক্যাপাসিটি হিসেবে ভিন্ন হয়। তবে, অনেকের ধারণা থাকে, দাম বেশি মানেই জিনিস ভালো, কিন্তু এক্ষেত্রে দামের পাশাপাশি কুলার কেনার আগে আরও বেশ কয়েকটি জিনিস মাথায় রাখা প্রয়োজন বা দেখে নেওয়া প্রয়োজন।

ওয়াটার ট্যাঙ্কের পরিমাণ বা ক্যাপাসিটি

কুলার কেনার সময় প্রথমেই যেটা মাথায় রাখা দরকার তা হল ওয়াটার ট্যাঙ্কের আকার বা ক্যাপাসিটি। খুব বড় ওয়াটার ট্যাঙ্ক যুক্ত এয়ার কুলার ঘর ঠাণ্ডা করতে বাকি ছোট ট্যাঙ্কের মতোই সাহায্য করবে। কিন্তু এক্ষেত্রে পার্থক্য আছে। বড় ট্যাঙ্ক অনেকটা বেশি সময় পর্যন্ত কুলিংয়ের কাজ করবে। ফলে রাতে বা দিনে বার বার ট্যাঙ্কে জল ভরার সমস্যা পোহাতে হবে না।

সাধারণত ছোট ঘরের জন্য ১৫ লিটার আর বড় ঘরের জন্য ২৫ লিটার ট্যাঙ্কের কুলার নিলেই কাজ হবে।

পার্সোনাল কুলার না ডেসার্ট কুলার?

এই প্রশ্ন অনেকেরই থাকে। কোন ধরনের কুলার বেছে নেওয়া উচিত? এক্ষেত্রে বলে রাখা ভালো, ছোট ঘরের জন্য বা মাঝারি আকারের ঘরের জন্য পার্সোনাল কুলার ভালো। কিন্তু বড় ঘরের জন্য হলঘরের জন্য ডেসার্ট কুলার। কারণ পার্সোনাল কুলার ১০০ থেকে ৩০০ স্কোয়ার ফিট এলাকা ঠাণ্ডা করতে পারে কিন্তু ডেসার্ট কুলার ৩৫০ থেকে ৪০০ স্কোয়ার ফিট এলাকা ঠাণ্ডা করতে পারে।

কুলিং প্যাড

বিভিন্ন রকমের কুলিং প্যাড বাজারে পাওয়া যায়। যার মধ্যে হানিকম্ব প্যাড রয়েছে, আসপেন প্যাড রয়েছে ও উল উড প্যাড রয়েছে। এইগুলোর মধ্যে হানিকম্ব ভালো। রক্ষণাবেক্ষণের খরচা বাকিগুলির সাপেক্ষে কম।

নয়েজ লেভেল

কিছু কিছু কুলারে খুব বেশি আওয়াজ হয়। যা ঘুমে সমস্যা করতে পারে। ফলে এই বিষয়টা দেখে নেওয়া দরকার।

জল ভরা বা রিফিলিং

কুলার রিফিলিং বা জল ভরার বিষয়টি খুবই বিরক্তকর মনে হতে পারে অনেকের। তাই অটো রিফিল অপশন আছে, এমন কুলার বেছে নেওয়া উচিত। এতে কুলারও খারাপ হয় না আর বার বার জলও ঢালতে হয় না।

আবহাওয়া অনুযায়ী কুলার কেনা দরকার

যেখানে আর্দ্রতা বেশি হয়, ঘাম বেশি হয় সেখানে পার্সোনাল কুলার কেনা উচিত। আর যেখানে শুকনো আবহাওয়া সেখানে ডেসার্ট কুলার কেনা উচিত।

Published by:Ananya Chakraborty
First published: