Home /News /technology /
এক জায়গায় স্টোর করা যাবে সব ব্যাঙ্কের কার্ড, লেনদেনও হবে আসান! Google আনছে নতুন Wallet অ্যাপ

এক জায়গায় স্টোর করা যাবে সব ব্যাঙ্কের কার্ড, লেনদেনও হবে আসান! Google আনছে নতুন Wallet অ্যাপ

ঘরে বসেই বিভিন্ন ধরনের অ্যাপের মাধ্যমে সবকিছু অর্ডার করা হচ্ছে এবং অনলাইনে পেমেন্ট করা হচ্ছে

  • Share this:

    গুগল তাদের আই/ও ডেভেপার কনফারেন্সে (Google I/O 2022) বেশি কিছু নতুন সার্ভিস এবং নতুন প্রোডাক্টের ঘোষণা করেছে। এর মধ্যে একটি হল গুগল ওয়ালেট অ্যাপ। এটি হল একটি ডিজিটাল ওয়ালেট অ্যাপ। এটির মাধ্যমে ফিজিক্যাল আইটেম ডিজিটাল ভার্সন হিসাবে ব্যবহার করা যাবে। এর ফলে গুগল ডিজিটাল অ্যাপ ওয়ালেট এবং পার্স হিসাবে ব্যবহার করা যাবে। গুগলের তরফে জানানো হয়েছে যে তাদের এই নতুন গুগল ওয়ালেট অ্যাপ লঞ্চ করা হতে চলেছে ৪০টি দেশে। করোনাভাইরাস ঘটিয়েছে একটি ডিজিটাল বিপ্লব। করোনা মহামারীর ফলে বেড়েছে ডিজিটাল অ্যাপের ব্যবহার। এর ফলে ঘরে বসেই বিভিন্ন ধরনের অ্যাপের মাধ্যমে সবকিছু অর্ডার করা হচ্ছে এবং অনলাইনে পেমেন্ট করা হচ্ছে। এটি অত্যন্ত জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। এর ফলে গুগলও লঞ্চ করতে চলেছে তাদের ডিজিটাল ওয়ালেট অ্যাপ।

    এই ডিজিটাল ওয়ালেট অ্যাপে স্টোর করে রাখা যাবে বিভিন্ন ধরনের ব্যাঙ্কের কার্ড। এর ফলে ইউজাররা সেই সমস্ত ব্যাঙ্কের কার্ডের মাধ্যমে আরও তাড়াতাড়ি পেমেন্ট করতে পারবেন। এই ডিজিটাল অ্যাপের মাধ্যমে সব জায়গায় ব্যঙ্কের কার্ড নিয়ে যেতে হবে না। এই ডিজিটাল ওয়ালেট অ্যাপে ব্যাঙ্কের কার্ড ছাড়াও অন্যান্য কার্ডও স্টোর করে রাখা যাবে। এর ফলে সব জায়গায় সেই কার্ড না গিয়ে গেলেও তার মাধ্যমে কাজ করা যাবে। এর ফলে সেই সকল কার্ড অত্যন্ত সুরক্ষিত থাকবে এবং সেগুলো হারানোর ভয় থাকবে না। গুগলের তরফে জানানো হয়েছে যে, ভবিষ্যতে তাদের ডিজিটাল ওয়ালেট অ্যাপে পাওয়া যাবে ডিজিটাল আইডি। এর ফলে খুব সহজেই এনএফসি প্রক্রিয়ার মাধ্যমে কাজ করা যাবে।

    আরও পড়ুন - অপেক্ষার অবসান, Whatsapp আপডেটে এ বার বড় ফাইল শেয়ারিংয়ের সুযোগ

    আরও পড়ুন - Google বন্ধ করে দিচ্ছে কল রেকর্ডিং অ্যাপ! জানুন এবার কী করবেন

    গুগলের তরফে জানানো হয়েছে যে, তাদের ডিজিটাল ওয়ালেট অ্যাপে ফ্লাইটের বোর্ডিং পাসও সেভ করে রাখা যাবে। এর ফলে এই অ্যাপের মাধ্যমে ইউজারদের নোটিফাই করা হবে যখন ফ্লাইটের তারিখ পরিবর্তন হবে এবং সময়ের পরিবর্তন হবে। এই অ্যাপ গুগলের অন্যান্য সার্ভিসের সঙ্গেও কাজ করবে। যেমন কেউ যদি বাসে ট্রাভেল করার সময় গুগল ম্যাপের মাধ্যমে দেখেন সেই রুট এবং একই সঙ্গে দেখেন সেখানকার ভাড়া, যদি দেখতে পান তাঁর কাছে সেই টাকা নেই তাহলে তৎক্ষণাৎ এই অ্যাপের মাধ্যমে নিজেদের কার্ডের সাহায্যে টাকা অ্যাড করতে পারবেন।

    এছাড়াও গুগলের ডিজিটাল অ্যাপের মাধ্যমে অন্যান্য বিভিন্ন ধরনের সুবিধা পাওয়া যাবে। এর মাধ্যমে করোনার ভ্যাকসিন নেওয়ার স্লট বুক করা সম্ভব। একই সঙ্গে ডিজিটাল অফিস এবং হোটেল কি-ও এর মধ্যে স্টোর করে রাখা সম্ভব। গুগলের তরফে জানানো হয়েছে যে, এখানে ইউজারদের সমস্ত ডেটা খুবই সুরক্ষিত থাকবে। বর্তমানে গুগলের প্লে অ্যাপ রয়েছে। এর মাধ্যমেও ইউজাররা বিভিন্ন ধরনের পেমেন্ট করতে পারেন। এটিও অত্যন্ত জনপ্রিয় একটি অ্যাপ।

    Published by:Ananya Chakraborty
    First published:

    Tags: Google

    পরবর্তী খবর